• search
হোম
 » 
রাজনীতিকরা
 » 
নভজ্যোত সিং সিধু

নভজ্যোত সিং সিধু

জীবনি

নবজ্যোত সিং সিধু পেশাগত দিক থেকে একজন ক্রিকেটার, বর্তমানে তিনি পঞ্জাব সরকারের পর্যটন, সংস্কৃতি এবং জাদুঘর বিষয়ক মন্ত্রী। বিজেপির টিকিটে ২০০৪ সালে অমৃতসর থেকে প্রথমবার লোকসভা নির্বাচনে জয়ী হন সিধু। খুনের ঘটনার মামলায় তাঁর নাম জড়ানোয় ২০০৬ সালে লোকসভা থেকে পদত্যাগ করেন। ২০০৯ সালের লোকসভা ভোটে প্রতিদ্বন্দ্বী কংগ্রেসের সুরিন্দর সিংলাকে ৭৭,৬২৬ ভোটের বিশাল ব্যবধানে তিনি পরাজিত করেন। তবে ২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেননি সিধু। ২০১৬ সালের এপ্রিলে মোদী সরকার রাজ্যসভায় তাঁর নাম মনোনীত করে। তবে ১৮ জুলাই রাজ্যসভা থেকে পদত্যাগ করেন সিধু। ২০১৬ সালে বিজেপি থেকে পদত্যাগ করেন তিনি। ২০১৬ সালের সেপ্টেম্বর মাসে আওয়াজ-ই-পঞ্জাব (এইপি) নামে একটি ফ্রন্ট গঠন করেন সিধু। আর ২০১৭ সালের জানুয়ারিতে যোগ দেন কংগ্রেসে। ২০১৭ সালে পঞ্জাব বিধানসভা নির্বাচনে অমৃতসর থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন সিধু, এই নির্বাচনে ৪২,৮০৯ ভোটে জয়ী হন তিনি।

ব্যক্তিগত জীবন

পুরো নাম নভজ্যোত সিং সিধু
জন্ম-তারিখ 20 Oct 1963 (বয়স 56)
জন্মস্থান পাতিয়ালা, পঞ্জাব
রাজনৈতিক দলের নাম Indian National Congress
শিক্ষা Graduate Professional
পেশা ক্রিকেটার, ভাষ্যকার এবং রাজনীতিবিদ
পিতৃ পরিচয় সর্দার ভগবন্ত সিং
মাতৃ পরিচয় নির্মল সিধু
জীবনসঙ্গীর নাম নভজ্যোত কৌর সিধু
জীবনসঙ্গীর পেশা চিকিৎসক / রাজনীতিবিদ
পুত্র সন্তান 1
কন্যা সন্তান 1

যোগাযোগ

স্থায়ী ঠিকানা ২৬, যাদবমডিরা কলোনি, মল রোড, পাতিয়ালা, পঞ্জাব
বর্তমান ঠিকানা ১১০-হোলি সিটি, অমৃতসর
যোগাযোগ নম্বর 9478466666
ইমেল lgtm42@gmail.com
ওয়েবসাইট sherryontopp.com
সোশ্যাল মিডিয়া

আকর্ষণীয় তথ্য

তাঁর ডাকনাম "শেরি"। ক্রিকেট জীবনে তাঁর অসাধারণ ব্যাটিংয়ের জন্য সিধুকে "সিস্কার সিধু" বলা হত। এবং তিনি ফিল্ডিংও করতেন দারুণ, সেকারণে ফিল্ডিংয়ের ক্ষেত্রে তাঁকে বলা হত "জন্টি সিং"।
নবজ্যোত সিং সিধু তাঁর ওয়ান-লাইন উদ্ধৃতির জন্য বিখ্যাত, যা "সিধুহিসমস" নামে বিখ্যাত।
"মুঝসে শাদি করোগি" ছবিতে স্পেশাল অ্যাপিয়ারেন্স করেন নবজ্যোত সিং সিধু, এছাড়া 'এবিসিডি ২' ছবিতে একটি ছোট চরিত্রে দেখা যায় তাঁকে। তিনি পঞ্জাবি ছবি "মেরা পিন্ড" তেও অভিনয় করেছেন।

রাজনৈতিিক টাইম-লাইন

  • 2017
    সিধু জাতীয় কংগ্রেসে যোগ দেন। পঞ্জাবের বিধানসভা নির্বাচনে অমৃতসর পূর্ব থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন এবং জয়ী হন। বর্তমানে তিনি পঞ্জাব সরকারের পর্যটন, সংস্কৃতি ও জাদুঘর বিষয়ক মন্ত্রী।
  • 2016
    ২৮ এপ্রিল রাজ্যসভার সদস্য হিসাবে সিধু শপথ নেন।
  • 2016
    ১৮ জুলাই তিনি রাজ্যসভা থেকে পদত্যাগ করেন।
  • 2013
    তিনি কমেডি শোয়ে বিচারক হিসাবে যুক্ত হন, এবং কমেডি নাইট উইথ কপিলে স্থায়ী অতিথি হন। রাজনীতিক হিসাবে একসময় যারা তাঁর সমালোচনা করেছিল পরবর্তীতে সেইসব লোকজনই সিধুর ফ্যান হয়ে ওঠেন। বিশেষ করে কমেডি শোতে তাঁর ওয়ান লাইনারগুলি দর্শকেদর কাছে খুব জনপ্রিয় হয়।
  • 2009
    ২০০৯ সালের সাধারণ নির্বাচনে অমৃতসর থেকে নিজের জয়ের ধারা অব্যাহত রাখেন।
  • 2007
    বড় ব্যবধানে তিনি উপনির্বাচনে জয়ী হন।
  • 2004
    ২০০৪ সালে বিজেপির টিকিটে অমৃতসর থেকে সিধু লোকসভায় নির্বাচিত হন।

আগের ইতিহাস

  • 1999
    ১৯৯৯ সালের ডিসেম্বরে সব ধরনের ক্রিকেট থেকে অসবর গ্রহণের কথা ঘোষণা করেন সিধু। তিনি ৫১টি টেস্ট ম্যাচের পাশাপাশি ১৩৬টি একিদেনর আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ম্যাচ খেলেছেন, আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে তাঁর ৭,০০০ বেশি রান রয়েছে। ১৮ বছরের ক্রিকেট জীবনে তাঁর ২১টি প্রথম শ্রেণির সেঞ্চুরি রয়েছে।
  • 1981
    সিধুর প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে অভিষেক হয়। এরপর ১৯৮৩ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হয় তাঁর। সিধু বেশিরভাগ সময়ই টপ-অর্ডার ব্যাটসম্যান হিসাবে খেলতেন।
মোট সম্পদ মূল্য45.37 CRORE
সম্পদ45.91 CRORE
দায়বদ্ধতা54.25 LAKHS

Disclaimer: The information relating to the candidate is an archive based on the self-declared affidavit filed at the time of elections. The current status may be different. For the latest on the candidate kindly refer to the affidavit filed by the candidate with the Election Commission of India in the recent election.

সোশ্যাল

অ্যালবাম

চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X
We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Oneindia sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Oneindia website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more