'নব আনন্দে জাগো' , নতুনত্বের ভাবনা নিয়ে ঐতিহ্য মেনে বর্ষবরণে মাতোয়ারা বাঙালি

Subscribe to Oneindia News

হিসাব বলছে এ তো চিরাচরিত নিয়ম! কালের নিয়মে , ক্যালেন্ডারের অঙ্কে প্রতিবছরের মতোই এসেছে নতুন বছর, কিন্তু মননে থেকে যাওয়া বাঙালিয়ানা সে অঙ্ক বোঝা না! 'নতুন' -এর আশ্রয় নিয়ে, নতুনত্বকে প্রশ্রয় দেওয়ার উস্কানিই বাঙালির ১ লা বৈশাখ, ...বাঙালির নববর্ষ। ওয়ান ইন্ডিয়ান তরফে সকল পাঠককে ১৪২৫ নববর্ষের অনেক শুভেচ্ছা। আপনাদের আরও বেশি করে পাশে পাওয়ার আশা নিয়ে শুরু হল আমাদের নতুন বছরের পথ চলা।

নব আনন্দে জাগো , নতুনত্বের ভাবনা নিয়ে ঐতিহ্য মেনে বর্ষবরণে মাতোয়ারা বাঙালি

চেনা বৈশাখী সকাল আর পয়লা বৈশাখের সকালের মধ্যে একটা পার্থক্য আছে। রবীন্দ্র সঙ্গীতের আবহে শুরু হওয়া ১ লা বৈশাখের এই সকাল বাঙালিকে জানান দেয় , ২৫ বৈশাখ আসছে,.. আসছে বাঙালির আরেক 'ঠাকুর পুজো'-র দিন। নতুন জামার গন্ধ, নতুন ক্যালেন্ডার, হালখাতা, সব কিছুর মধ্যেই একটু আধটু উঁকি মারে ব্যস্ততায় হারিয়ে যাওয়া বাঙালিয়ানাগুলো। এদিন,রসনা তৃপ্তিতে পাঁঠার মাংস রান্নার পর্বের মাঝেই গৃহকন্য়ার শান্তি কামনায় পূজা পাঠে ব্যস্ত হয়ে যান বহু 'মা' বহু 'স্ত্রী'। বিভিন্ন মন্দির শুরু হয়ে যায় মঙ্গলকামনায় ভরা এক সকাল। এদিনও ঐতিহ্য মেনে সকাল থেকেই কলকাতা থেকে মফঃস্বলের বিভিন্ন মন্দিরে ছিল ভক্তদের চোখে পড়ার মতো ভিড়। বীরভূমের তারাপীঠে ২০০ বছরের পূর্তী উপলক্ষ্য়ে জাঁকজমক সহকারে শুরু হয়েছে বিশেষ পূজা অর্চনা। রয়েছে পূর্ণ্যার্থীদের ভিড়ও।

বাঙালির ভাবনার অন্তরালে কোথাও না কোথাও একটা সুপ্ত শিল্প ভাবনা লেগেই থাকে। আর ১৫ এপ্রিলের এই দিনটি বিশ্ব শিল্পকলা দিবস। ফলে বাঙালির চিরন্তন শিল্প সত্ত্বার সঙ্গে এদিন মিশে গেল নববর্ষের আনন্দও। আজ সকালে বিশ্ব শিল্পকলা দিবস উপলক্ষ্য়ে কলকাতার পার্কস্ট্রিট থেকে একটি শোভাযাত্রা বের হয়। যেখানে অংশ নেন বামলা তাবড় শিল্পী থেকে শিল্প প্রেমী মানুষ। আরেকটি শোভাযাত্রা দেখা যায় গাঙ্গুলী বাগানে। তবে এটি ছিল বর্ষবরণের উপলক্ষ্যকে উদযাপন করে। এদিকে, শহর কলকাতা থেকে দূরে কবি গুরুর শান্তিনিকেতন আজ মেতেছিল বর্ষ বরণের উৎসবে। সকাল থেকেই সেখানে ঐতিহ্য মেনে চলে একাধিক অনুষ্ঠান।

English summary
Bengal Celebrates poila baishakh the Bengali New year with tradition.

Oneindia - এর ব্রেকিং নিউজের জন্য
সারাদিন ব্যাপী চটজলদি নিউজ আপডেট পান.