গণনার ফল 
মধ্যপ্রদেশ - 230
PartyLW
CONG1077
BJP9810
IND40
OTH40
রাজস্থান - 199
PartyLW
CONG4256
BJP3638
IND85
OTH77
ছত্তিশগঢ় - 90
PartyLW
CONG3928
BJP123
BSP+71
OTH00
তেলেঙ্গানা - 119
PartyLW
TRS285
TDP, CONG+021
AIMIM07
OTH13
মিজোরম - 40
Party20182013
MNF265
IND80
CONG534
OTH10
  • search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

    চিনকে কোণঠাসা করতে বাংলাদেশকে পাশে রেখে তিস্তা চুক্তি চাইছেন মোদী, রাজি হবেন কি মমতা

    তিস্তা জলবণ্টন চুক্তি আটকে রয়েছে বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জন্য। রাজ্যের সম্মতি না মেলায় কেন্দ্রের নরেন্দ্র মোদী সরকারের আপত্তি না থেকেও তিস্তা চুক্তি হয়নি। গতবছরে শেখ হাসিনা ভারত সফরে এসে আতিথেয়তা পেয়েছেন। তবে তিস্তার পানি পেলেন না বলে হা হুতাশ করে ফিরে গিয়েছেন। তবুও শেখ হাসিনার হাতে মমতা শাড়ি তুলে দিলেও জল নিয়ে ইতিবাচক সাড়া দেননি।

    চিনকে কোণঠাসা করতে বাংলাদেশকে পাশে রেখে তিস্তা চুক্তি চাইছেন মোদী, রাজি হবেন কি মমতা

    তবে এবার কেন্দ্র ও বাংলাদেশ সরকার শেষ চেষ্টা করতে চলেছে তিস্তা চুক্তি বাস্তাবায়িত করার জন্য। মমতা বারবার বলেছেন, তিস্তা চুক্তি হলে উত্তরবঙ্গের জেলাগুলি জল না পেয়ে শুকিয়ে যাবে। যা কোনওমতেই তিনি মেনে নেবেন না। আর তাই প্রথম থেকেই বিরোধিতা করে আসছেন তিনি।

    সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর, নয়াদিল্লি এখন বাংলাকে রাজি করানোর চেষ্টা করছে। বাংলাদেশ সরকারকেও নাকি সেকথা জানানো হয়েছে। ইন্টারন্যাশনাল সোলার অ্যাসোসিয়েশনের কনফারেন্সে মোদী নাকি তিস্তা চুক্তির উজ্জ্বল ভবিষ্যতের কথা বলেছেন।

    বাংলাদেশ বারবার তিস্তা প্রকল্প বাস্তবায়নে তদ্বির করছে। গ্রীষ্মের সময়ে উত্তর বাংলাদেশের বিস্তীর্ণ এলাকা জল না পেয়ে শুকিয়ে যায়। তিস্তা চুক্তি না হলে বাংলাদেশের সমস্যা আরও বাড়বে। বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে একথা জানালে প্রত্যুত্তরে মোদী এই আশ্বাস দিয়েছেন।

    ঘটনা হল, এবছরেই বাংলাদেশে সাধারণ নির্বাচন। তিস্তা চুক্তি তার আগে হয়ে গেলে শেখ হাসিনা সরকার ফের একবার ক্ষমতায় ফিরতে পারবে সহজেই। সেক্ষেত্রে ভারত যেমন বন্ধু হাসিনাকে ক্ষমতায় থাকতে দেখবে তেমনই বন্ধুত্বও অটুট থাকবে। মোদী সরকারের গা ছাড়া ভাবের সুযোগ নিয়ে বাংলাদেশকে বুঝিয়ে সেদেশে বেশ কয়েকটি প্রকল্পে কাজ করতে ঢুকে পড়েছে চিন। সেক্ষত্রে চিনকে সরিয়ে পয়লা নম্বর বন্ধুদেশের তকমা নিজেদের সঙ্গে রাখতে গেলে ভারতকে তিস্তা চুক্তির দিকে নজর ঘোরাতেই হবে। আর সেক্ষেত্রে কেন্দ্র মমতাকে কীভাবে রাজি করায় সেটাই এখন দেখার।

    এবছরেই নরেন্দ্র মোদী একসঙ্গে নেপাল, ভূটান ও বাংলাদেশ সফরে যাচ্ছেন। চিনকে কোণঠাসা করতে এই তিন বন্ধু দেশকে পাশে রাখা ভারতের জন্য বিশেষ জরুরি। নেপাল ও বাংলাদেশে চিন প্রভাব খাটানোর চেষ্টা করছে। এদিকে ডোকলাম এলাকায় গা জোয়ারি করে ভূটানকে চাপে রাখছে। এই অবস্থায় বাংলাদেশের মনজয় করতে তিস্তা চুক্তিই একমাত্র ভরসা।

    English summary
    Before Bangladesh Elections, India's Pm Modi govt keen to complete Teesta deal with Mamata Banerjee's cooperation
    For Daily Alerts

    Oneindia - এর ব্রেকিং নিউজের জন্য
    সারাদিন ব্যাপী চটজলদি নিউজ আপডেট পান.

    Notification Settings X
    Time Settings
    Done
    Clear Notification X
    Do you want to clear all the notifications from your inbox?
    Settings X
    We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Oneindia sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Oneindia website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more