• search

'যেকোনও বিয়েকে যখন তখন লাভ জিহাদ আখ্যা দেওয়া যাবে না'

Subscribe to Oneindia News
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS
For Daily Alerts

    'লাভ জিহাদ' সংক্রান্ত মামলায় স্বামীর বাড়িতে স্ত্রীকে ফিরে যাওয়ার নির্দেশ দিল কেরল হাইকোর্ট। আদালতের তরপে জানানো হয়েছে যে সমস্ত বিয়েকে 'লাভ জিহাদ' আখ্যা দেওয়া উচিত নয়। জনৈক শ্রুতি ও হামিদের বিয়ে নিয়ে 'লাভ জিহাদ'-এর অভিযোগে মামলা দায়ের হয় কেরল হাইকোর্টে।

    'যেকোনও বিয়েকে যখন তখন লাভ জিহাদ আখ্যা দেওয়া যাবে না'

    উল্লেখ্য, এর আগে কোর্টের একটি আলাদা বেঞ্চ এই ঘটনাকে লাভ জিহাদ বলে ব্যাখ্যা করে। তবে কেরল আদালতের বর্তমান বেঞ্চ তা নস্যাৎ করে দেয়। প্রসঙ্গত, এই ইনস্ট্যান্ট কেস-এ অনিস তাঁর স্ত্রী শ্রুতিকে তাঁর পরিবারের হাত থেকে ছাড়িয়ে আনবার দাবি করে। এর আগে শ্রুতি জানায় কোচির কাছের এক যোগা সেন্টারে তাঁকে জোর করে আটকে রাখা হয়। ওই যোগা সেন্টারের লোকজন শ্রুতির ওপর অত্যাচার করে বলেও অভিযোগ।

    এরপরই ওঅ যোগা সেন্টারের তরফের আইনজীবীকে এবিষয়ে আদালতে প্রশ্ন করা হলে, তিনি জানা গোটা ঘটনাটি 'লাভ জিহাদ' ছিল। তখনই তাঁকে ভর্ৎসনা করে আদালত জানায় , সমস্ত বিয়েকেই লাভ জিহাদের তকমা দেওয়া উচিত নয়। এর আগে , এই ঘটনায় এএনআইএ তদন্তের নির্দেশ দেয় সুপ্রিম কোর্ট। তবে সেই তদন্তের প্রয়োজনীয়তা নিয়েও প্রশ্ন তোলে কেরল সরকার।

    English summary
    Dont term every marriage as love jihad, the Kerala High Court observed while allowing a lady to return to her husband. The observation was made by the court which was dealing with a marriage between Sruthi and Anees Hameed in which it was alleged that it was a case of love jihad

    Oneindia - এর ব্রেকিং নিউজের জন্য
    সারাদিন ব্যাপী চটজলদি নিউজ আপডেট পান.

    Notification Settings X
    Time Settings
    Done
    Clear Notification X
    Do you want to clear all the notifications from your inbox?
    Settings X
    We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Oneindia sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Oneindia website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more