• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

লকডাউন উঠলেই কী হতে চলেছে ভারতের করোনা পরিস্থিতি, উদ্বেগ বাড়ালেন মহামারী বিশেষজ্ঞ

করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় চতুর্থ দফার লকডাউন চলছে দেশে। তার মধ্যেই বেশ কিছু জিনিসে ছাড় দেওয়া হয়েছে। বিমান পরিষেবা শুরু হতে চলেছে। শুরু হয়ে গিয়েছে ট্রেন পরিষেবা। বাস পরিষেবাও শুরু হয়েছে। ৩১ মে লকডাউন শেষ হওয়ার কথা তার পরের চিত্রটা ভাবলেই কেঁপে উঠছেন মহামারী বিশেষজ্ঞ গিরধর আর বাবু। জুলাইয়ের মাঝামাঝি চরমে উঠবে ভারতে করোনা সংক্রমণ। এমনই আশঙ্কার কথা শুনিয়েছেন তিনি।

লকডাউন উঠলেই বাড়বে সংক্রমণ

লকডাউন উঠলেই বাড়বে সংক্রমণ

৩১ মে পর্যন্ত গোটা দেশে চতুর্থ দফার লকডাউন বহাল রয়েছে। তাতে বেশ কিছু জিনিসে ছাড় দেওয়া হলেও নিয়ন্ত্রিত কাজ হচ্ছে। যেমন নাইট কার্ফু জারি করেছে। শপিং মল, সিনেমা হল বন্ধ। রাস্তায় নিয়ন্ত্রিত যান চলাচল করছে। ট্রেন পরিষেবাও নিয়ন্ত্রিত। কিন্তু লকডাউন শেষ হলে কী হবে। তাই নিয়েই শঙ্কায় রয়েছেন ভারতের মহামারী বিশেষজ্ঞ গিরধর আর বাবু। তিনি জানিয়েছেন লকডাউনের কারণেই করোনা সংক্রমণ এখনও আয়ত্তের মধ্যে রয়েছে। লকডাউন উঠলেই সংক্রমণ লাগাম ছাড়া হবে।

জুলাইয়ের মাঝামাঝি সর্বাধিক সংক্রমণ

জুলাইয়ের মাঝামাঝি সর্বাধিক সংক্রমণ

লকডাউন উঠলেই সংক্রমণ ছড়াতে শুরু করবে গোটা দেশে। তাই জুলাইয়ের মাঝামাঝি ভারতে করোনা সংক্রমণ সর্বাধিক হবে বলে জানিয়েছেন মহামারী বিশেষজ্ঞ গিরধর আর বাবু। বিশেষ করে দিল্লি, মুম্বই এবং কলকাতায় করোনার সংক্রমণ বাড়বে। তিনি জানিয়েছেন দিল্লি-মুম্বইয়ের মত সংক্রমণ ছড়ায়নি বেঙ্গালুরুতে কারণ প্রথম থেকেই কড়া হয়েছিল প্রশাসন। এছাড়া জনঘনত্ব বেশি থাকার কারণেও দিল্লি, মুম্বই এবং কলকাতায় করোনা সংক্রমণ ছড়াচ্ছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

অগস্টেই তৈরি হবে হার্ড ইমিউনিটি

অগস্টেই তৈরি হবে হার্ড ইমিউনিটি

এদিকে গবেষকরা দাবি করেছেন অগস্টেই করোনা প্রতিরোধক হার্ড ইমিউনিিট তৈরি হবে। অর্থাৎ মানুষেই শরীরেই করোনা প্রতিরোধক শক্তি তৈরি হবে। গরম আর আর্দ্র আবহাওয়াই এই প্রতিরোধক শক্তি গড়ে তুলতে সাহায্য করবে। এই আবহাওয়ায় করোনার লড়াই করার ক্ষমতাও কমে আসবে। কাজেই আগস্টে করোনা মুক্তির ক্ষীণ আশা দেখিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

করোনা সংক্রমণ বাড়ছে দেশে

করোনা সংক্রমণ বাড়ছে দেশে

ইতিমধ্যেই করোনা সংক্রমণ ১ লাখ অতিক্রম করেছে দেশেষ গত ২৪ ঘণ্টায় সর্বাধিক সংক্রমণ ছড়িয়েছে দেশে। আক্রান্ত হয়েছেন প্রায় ৫৬০০ জন। মৃত্যু হয়েছে ১৩২ জনের। সার্বিকভাবে মৃতের সংখ্যা ৩০০০ অতিক্রম করেছে আগেই। কলকাতা সহ দিল্লি, মুম্বই একাধিক শহরে করোনা সংক্রমণ ক্রমশ বাড়ছে।

আমফানের দাপটের পর কলকাতার পরিস্থিতি ক্ষতিয়ে দেখতে রাস্তায় ফিরহাদ

অবশেষে খুলতে চলেছে রেলের রিজার্ভেশন কাউন্টার! শুক্রবার থেকে বুকিং শুরু

English summary
Coronavirus may reach highest in mid July claimed Epidemiologist
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X