• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

ভারতের বাইরে কোন দেশে সবচেয়ে বেশি মূর্তি রয়েছে গান্ধীজির, জানেন কি?

আর দু’‌দিন বাদেই স্বাধীনতা দিবস আর দেশজুড়ে চলছে তারই প্রস্তুতি। ব্রিটিশদের কাছ থেকে ১৯৪৭ সালের ১৫ অগাস্ট স্বাধীনতা অর্জন করে ভারত। তবে স্বাধীনতা অর্জন করতে গিয়ে বহু মূল্য দিতে হয়েছে দেশের মানুষকে। বিশেষ করে স্বাধীনতা সংগ্রামীদের, যাঁরা নিজেদের প্রাণের বিনিময়ে এই দেশকে স্বাধীন করে তুলেছে। মহাত্মা গান্ধী হলেন সেরকমই এক ব্যক্তি ভারতের স্বাধীনতা আন্দোলনকে নিজের শান্তি ও অহিংসার নীতি দিয়ে পরিচালনা করেছেন। দেশ স্বাধীন হওয়ার পরও গান্ধী জি বিশ্রাম নেননি, বরং ভারতে প্রচলিত বিভিন্ন ইস্যুতে কাজ চালিয়ে যান। প্রত্যেক বছর স্বাধীনতা দিবসের দিন দেশবাসী মহাত্মা গান্ধীর প্রচেষ্টাকে স্মরণ করে যা দেশকে বিদেশি শক্তির বেড়াজাল থেকে বেরোতে সাহায্য করেছিল। দেশর বাইরেও মহাত্মা গান্ধী ততধিক জনপ্রিয়, যেখানে তাঁর নীতিগুলিকে সম্মান জানানো হয়েছিল। তাইতো বিভিন্ন দেশে রয়েছে মহাত্মা গান্ধীর মূর্তি।

মার্কিন রাষ্ট্রদূত টুইট করে জানিয়েছেন যে ভারতের পর বেশিরভাগ গান্ধী মূর্তি রয়েছে আমেরিকায়। যদিও গান্ধী নিজে কোনওদিন মার্কিন মুলুকে যাননি, তাও সেখানে বেশ কিছু গান্ধী মূর্তি, স্মৃতিস্তম্ভ মহান নেতা এবং তাঁর অনন্য নীতি স্মরণ করে রয়েছে।

ভারতীয় দূতাবাস, ওয়াশিংটন ডিসি

ভারতীয় দূতাবাস, ওয়াশিংটন ডিসি

ওয়াশিংটন ডিসিতে ভারতীয় দূতাবাসের বাইরে রাখা রয়েছে গান্ধী মূর্তি। ২০০০ সালের ১৬ সেপ্টেম্বর প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটল বিহারি বাজপেয়ীর আমেরিকা সফরের সময় তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিন্টন এই মূর্তি উৎসর্গ করেছিলেন। সম্প্রতি, ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটারের প্রতিবাদের সময় দুর্বৃত্তরা এটিকে বিকৃত করেছিল।

আরিয়ানা পার্ক, জেনেভা, সুইৎজারল্যান্ড

আরিয়ানা পার্ক, জেনেভা, সুইৎজারল্যান্ড

১৯৪৮ সালে ভারত ও সুইৎজারল্যান্ডের মধ্যে স্বাক্ষরিত অ্যামিটি চুক্তির স্মরণে ভারত সরকার এই চুক্তির ৬০ বছর পূর্তিতে তাদের একটি গান্ধী মূর্তি উপহার দেয়। মূর্তির শিলালিপিতে ফরাসি ভাষায় লেখা, ‘‌মা ভায়ে ইজ মন মেসেজ'‌, টার অর্থ হল, ‘‌আমার জীবনই হল আমার বার্তা।'‌

‌ মেমোরিয়াল গার্ডেন, জিনজা, উগান্ডা

‌ মেমোরিয়াল গার্ডেন, জিনজা, উগান্ডা

১৯৪৮ সালে মহাত্মা গান্ধী চিতাভস্ম জিনজার নিল নদীতে ভাসিয়ে দেওয়া হয়। ওই স্থানেই তৈরি করা হয় হাত্মা গান্ধীর ব্রোঞ্জের মূর্তি।

পার্লামেন্ট স্কোয়ার, লন্ডন, ইংল্যান্ড

পার্লামেন্ট স্কোয়ার, লন্ডন, ইংল্যান্ড

সম্প্রতি মহাত্মা গান্ধীর সাম্প্রতিকতম ভাস্কর্যটি ২০১৫ সালের ১৪ মার্চ এখানে বসানো হয়েছে। শিল্পী ফিলিপ জ্যাকসনের হাতে এই মূর্তিটি তৈরি হয়েছে। এই অনুষ্ঠানে সেই সময় উপস্থিত ছিলেন তৎকালীন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অরুণ জেটলি, গান্ধীর নাতি ও পশ্চিমবঙ্গের প্রাক্তন রাজ্যপাল গোপাল কৃষ্ণ গান্ধী ও অভিনেতা অমিতাভ বচ্চন।

কোপেনহেগেন, ডেনমার্ক

কোপেনহেগেন, ডেনমার্ক

১৯৮৪ সালে ইন্দিরা গান্ধীর সফরের সময় তিনি ড্যানিশ সরকারকে মহাত্মা গান্ধীর মূর্তি দেন। ডেনমার্কবাসী এই মূর্তি বসান কোপেনহেগেনের মহাত্মা গান্ধী পার্কে।

গ্লেব পার্ক, ক্যানবেরা, অস্ট্রেলিয়া

গ্লেব পার্ক, ক্যানবেরা, অস্ট্রেলিয়া

এখানে গান্ধীর ব্রোঞ্জের মূর্তি রয়েছে। এই দেশের চার শহরে গান্ধীর মূর্তি রয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

প্লাজা সিসিলিয়া, বুয়েনস আইরেস, আর্জেন্টিনা

প্লাজা সিসিলিয়া, বুয়েনস আইরেস, আর্জেন্টিনা

আর্জেন্টিনার বুয়েনস আইরেস প্লাজা সিসিলিয়ায় গান্ধীর একটি মূর্তি রয়েছে। ভারতের ১৫ তম স্বাধীনতা দিবসে, ভারত সরকার রাম ভানজি সুতারের তৈরি মূর্তিটি আর্জেন্টিনাকে উপহার দিয়েছিল।

মহাত্মা গান্ধীকে যে বিষয়টি বিখ্যাত করেছিল তা ব্রিটিশ উপনিবেশ থেকে ভারতের স্বাধীনতায় তাঁর অংশগ্রহণই নয়, বিশ্বকে অহিংসা বা অহিংসার বিষয়ে শিক্ষা দেওয়ার জন্য। গান্ধীকে আজও শান্তির প্রতীক হিসাবে দেশ জুড়ে স্মরণ করা হয়।

কলেজের অনলাইন অ্যাডমিনেশনে নেওয়া যাবে না টাকা, সাফ জানালেন শিক্ষামন্ত্রী

দু’‌দিন বাদেই ১৫ অগাস্ট, মাস্ক ও সামাজিক দুরত্ব মেনে লাল কেল্লায় জোরকদমে চলছে মহড়া

English summary
mahatma gandhis most of his statues in the us
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X