• search

দিল্লির পরে এবার উত্তরপ্রদেশে জাল ২ হাজারের নোট, লেখা 'ভারতীয় মনোরঞ্জন ব্যাঙ্ক'

Subscribe to Oneindia News
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS
For Daily Alerts

    গাজিয়াবাদ, ২৩ ফেব্রুয়ারি : দিল্লির স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়ার এটিএমে জাল ২ হাজারের নোট পাওয়া নিয়ে চাঞ্চল্য ছড়ানোর পরে এবার উত্তরপ্রদেশের গাজিয়াবাদে এমন নোট পাওয়া গিয়েছে বলে জানা গিয়েছে। দিল্লির সঙ্গম বিহারে একটি এটিএম থেকে জাল নোট বেরিয়েছিল। এবার গাজিয়াবাদের এটিএম জাল ২ হাজারের নোট উপহার দিল বহুজাতিক সংস্থার এক কর্মীকে।[দিল্লির SBI এটিএম থেকে বেরল 'চিল্ড্রেন ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া'-র ২০০০ টাকার খেলনা নোট! ]

    জানা গিয়েছে, গত ২৪ জানুয়ারি বহুজাতিক সংস্থায় কাজ করা ২৬ বছরের সিদ্ধান্ত শশীকর এই জাল ২ হাজারের নোট হাতে পান। তিনি তারপরে এই জাল নোটের বদলের বহু চেষ্টা তিনি করেছেন। নোট নিয়ে ব্যাঙ্কে গেলে, অভিযোগ, ম্যানেজার শশীকরের কথায় কর্ণপাত করেননি।

    দিল্লির পরে এবার উত্তরপ্রদেশে জাল ২ হাজারের নোট, লেখা 'ভারতীয় মনোরঞ্জন ব্যাঙ্ক'

    দাবি করেছেন, এটিএমে ঢোকানোর আগে সমস্ত নোট যাচাই করা হয়। তাই এমন কোনও সম্ভাবনা নেই বলে জানান ব্যাঙ্ক ম্যানেজার। তবে দিল্লিতে সঙ্গম বিহারের ঘটনা সামনে আসার পরে সাহস করে এগিয়ে এসেছেন শশীকর।

    শশীকর এবার পুলিশ অভিযোগ জানাতে চলেছেন। তিনি এইচসিএল টেকনোলজিস-এ তিনি কর্মরত। অফিস যাওয়ার ফাঁকে ইন্দিরাপুরমের একটি এসবিআই এটিএমে ঢুকে তিনি ২ হাজার টাকা এটিএম থেকে তোলেন। সেখানেই ২ হাজারের একটি জাল নোট বেরিয়েছে বলে অভিযোগ।

    শশীকর জানিয়েছে, নোটে আরবিআইয়ের বদলে লেখা রয়েছে 'ভারতীয় মনোরঞ্জন ব্যাঙ্ক'। সিরিয়াল নম্বর '০০০০০০'। নোটে রুপি চিহ্ন নেই। পিকে লোগো লাগানো রয়েছে। গভর্নরের সই নেই। অশোক চিহ্নের জায়গায় রয়েছে অন্য চিহ্ন। কেন্দ্রীয় সরকারের গ্যারান্টির বদলে রয়েছে 'চিলড্রেন্স ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া'-র গ্যারান্টি।

    English summary
    Days before the cash machine of the State Bank of India in south Delhi’s Sangam Vihar dispensed five notes with ‘Churan Lable’ on them, another ATM in Ghaziabad had dished out a fake Rs 2,000 note to an employee of a multinational company.

    Oneindia - এর ব্রেকিং নিউজের জন্য
    সারাদিন ব্যাপী চটজলদি নিউজ আপডেট পান.

    We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Oneindia sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Oneindia website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more