• search

দেড় হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগের প্রস্তাব বাংলায়, উচ্ছ্বসিত রাজ্য

  • By Ananya Pratim
Subscribe to Oneindia News
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS
For Daily Alerts
    অমিত মিত্র
    কলকাতা, ১৩ জুলাই: সুখবর! পশ্চিমবঙ্গে ১৫০০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করতে এগিয়ে এল বিভিন্ন বাণিজ্যিক গোষ্ঠী। এ ছাড়া, আগে ঘোষিত ১৭০০ কোটি টাকার বিভিন্ন প্রকল্পও বাস্তবায়নের পথে। গতকাল অর্থাৎ শনিবার বণিকসভা এমসিসিআই আয়োজিত একটি অনুষ্ঠানে রাজ্যের অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্রকে এ কথা জানিয়েছেন শিল্পপতিরা। সব শুনে উচ্ছ্বসিত অমিতবাবু বলেছেন, "কারা বলছেন, পশ্চিমবঙ্গে শিল্প আসছে না! আপনাদের কোনও সমস্যা হলে সরাসরি আমাকে ফোন করুন বা ই-মেইল করুন। আমি নিজে সব কিছু দেখব।"

    নতুন করে যে দেড় হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগের প্রস্তাব এসেছে, তার তালিকা বেশ দীর্ঘ। যেমন, জামুড়িয়াতে শাকম্ভরী গগন লিমিটেড ৮৫০ কোটি টাকা ব্যয়ে ইস্পাত ও বিদ্যুৎ প্রকল্প গড়ে তুলবে। এ জন্য রাজ্য সরকারকে জমির ব্যবস্থা করতে অনুরোধ করেছে তারা। ফলতায় ৫০০ কোটি টাকা ব্যয়ে সৌর বিদ্যুতের সরঞ্জাম তৈরির কারখানা খুলতে চায় বিক্রম সোলার লিমিটেড। প্রসঙ্গত, ফলতা দীর্ঘদিন ধরেই শিল্পাঞ্চল হিসাবে পরিচিত। এখানে ৫০০ কোটি টাকা বিনিয়োগ হলে নিঃসন্দেহে তা রাজ্যের অর্থনীতিকে আরও মজবুত করবে। আর ইমামি গোষ্ঠী কলকাতার মুকুন্দপুরে ১৫০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করতে চায়।

    গতকাল শাকম্ভরী গগন লিমিটেডের চেয়ারম্যান দীপক আগরওয়াল অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্রকে জানান, জামুড়িয়াতে জমি পেতে কিছু সমস্যা হচ্ছে। তিনি আশ্বাস দেন, বিষয়টি জরুরি ভিত্তিতে খতিয়ে দেখা হবে। তিনি বলেন, "সমস্যা থাকলে অবশ্যই জানাবেন। আমরা সময়সীমা ধরে সেই সমস্যার সমাধান করব। এর আগে রাজ্যে শিল্প স্থাপন করতে গেলে ৯৯ পাতার একটি ফর্ম পূরণ করতে হত। এখন তা কমিয়ে সাত পাতার করা হয়েছে।" বণিকসভার অনুষ্ঠানে অমিতবাবুর আক্ষেপ, কেন্দ্র মোটা টাকা সুদ কেটে নিয়ে চলে যাচ্ছে প্রতি বছর। এই টাকা মকুব করা হলে পশ্চিমবঙ্গে আরও উন্নয়নমূলক কাজ করা সম্ভব হত।

    English summary
    Several business houses proposes to invest Rs 1500 crores in West Bengal. They convey it to finance minister Mr. Amit Mitra. He has assured them to extend full support.

    Oneindia - এর ব্রেকিং নিউজের জন্য
    সারাদিন ব্যাপী চটজলদি নিউজ আপডেট পান.

    We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Oneindia sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Oneindia website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more