• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

প্রশান্ত কিশোরে ক্ষুব্ধ বিধায়কদের মুকুল-যোগ! একুশের আগে ঘুম ছুটেছে তৃণমূল কংগ্রেসের

২০২১-এর বিধানসভা নির্বাচনের আগে বিজেপিতে গুরুত্বের পদ পেয়েছেন মুকুল রায়। তাতেই তৃণমূল কংগ্রেসের রাতের ঘুম চলে গিয়েছে। যাঁকে দিয়ে মুকুল রায়কে ঠেকানোর পরিকল্পনা করেছিলেন মতা বন্দ্যোপাধ্যায়, সেই প্রশান্ত কিশোরের প্রতি তৃণমূলের একাংশ ক্ষুব্ধ। তাঁরা সদ্য় নির্বাচিত বিজেপির সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি মুকুল রায়ের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন বলে জল্পনা চলছে রাজ্য রাজনীতিতে।

তৃণমূলের বিদ্রোহীরা নড়েচড়ে বসেছেন মুকুলের গুরুত্বে

তৃণমূলের বিদ্রোহীরা নড়েচড়ে বসেছেন মুকুলের গুরুত্বে

তৃণমূলের বিদ্রোহী নেতারা এতদিন চুপচাপ ছিলেন তৃণমূলে। মুকুল রায় প্রায় বছরাবধি বিজেপিতে নিষ্ক্রিয় ছিলেন। এই সময়ে ট্যাঁ-ফুঁ করেননি কেউ। কিন্তু সম্প্রতি বিজেপিতে মুকুলের গুরুত্ব বাড়ার পর তিনি সক্রিয় হতেই তৃণমূলের বিধায়ক থেকে শুরু করে প্রথম সারির নেতারাও নড়চড়ে বসতে শুরু করলেন।

অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের গুরুত্ব বেড়েছে, বেড়েছে ক্ষোভও

অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের গুরুত্ব বেড়েছে, বেড়েছে ক্ষোভও

তৃণমূলের একাংশের অভিযোগই ছিল দলে শুধু অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের গুরুত্ব বাড়ানো হচ্ছে। তার জন্য মুকুল রায়ের মতো নেতাকে সরে যেতে হয়েছে। এখনও অনেকে তৃণমূলে অভিষেকের বাড়বাড়ন্ত মেনে নিতে পারেননি। তার উপর প্রশান্ত কিশোরকে এনে অভিষেকের নেতৃত্বকে স্বীকৃতি দেওয়া হচ্ছে আরও। এই কারণে শুভেন্দু অধিকারীর মতো নেতাও মুখ ঘুরিয়ে রয়েছেন।

প্রশান্ত কিশোর চটিয়ে দিয়েছেন তৃণমূলের ভোট ম্যানেজারদের

প্রশান্ত কিশোর চটিয়ে দিয়েছেন তৃণমূলের ভোট ম্যানেজারদের

আরও একটি সমস্যা তৈরি হয়েছে তৃণমূলে। দলে স্বচ্ছতা আনতে গিয়ে তৃণমূলের ভোট ম্যানেজারদের চটিয়ে দিচ্ছেন প্রশান্ত কিশোর। ফলে প্রশান্ত কিশোরের প্রতি অনেকেই ক্ষুণ্ণ। ঠিক এই ফাঁক ধরেই মুকুল রায়-দিলীপ ঘোষরা তৃণমূলকে আঘাত করতে চাইছেন। একুশের নির্বাচনের আগে ভেঙে দিতে চাইছেন কোমর।

মুকুল রায়কে দিয়ে তৃণমূলকে ঝটকা দিয়ে চাইছে বিজেপি

মুকুল রায়কে দিয়ে তৃণমূলকে ঝটকা দিয়ে চাইছে বিজেপি

বিজেপি চাইছে মুকুল রায়কে দিয়ে তৃণমূলকে বড় কোনও ঝটকা দিতে। হেভিওয়েট কাউকে বিজেপিতে যোগদান করিয়ে ফের রাজ্য রাজনীতিতে শোরগোল ফেলে দেওয়া বিজেপির উদ্দেশ্য। যাঁণরা তৃণমূলে বিদ্রোহীর ভূমিকা নিয়েছেন এবং যাঁরা তৃণমূলের দল পরিচালনায় ক্ষুব্ধ তাঁদের সঙ্গে বিজেপি যোগাযোগ রাখার চেষ্টা করছে।

মুকুলের ক্লোজড-রিলেশন কাজে লাগিয়ে তৃণমূলকে প্রত্যাঘাত

মুকুলের ক্লোজড-রিলেশন কাজে লাগিয়ে তৃণমূলকে প্রত্যাঘাত

এমনিতেই মুকুল রায়ের সঙ্গে তৃণমূলের সমস্ত জেলা নেতৃত্বের যোগাযোগ রয়েছে। তিনি নিজের হাতে দলের সংগঠন তৈরি করেছিলেন। ২০ বছর এই দলের সঙ্গে ঘর করেছেন। ব্লকে ব্লকে নেতাদের নামে চেনেন তিনি। তাঁদের অনেকের সঙ্গে ক্লোজড-রিলেশনও রয়েছে তাঁর। তাই মুকুলের পক্ষে তৃণমূলকে প্রত্যাঘাত করা খুবই সহজ।

বিজেপি, মুকুল রায় ও তৃণমূল বিধায়কদের নিজের তাগিদ

বিজেপি, মুকুল রায় ও তৃণমূল বিধায়কদের নিজের তাগিদ

বিজেপিও চাইছে, মুকুল রায়কে সামনে রেখে গেরুয়া শিবিরের শক্তি বাড়ানোর অভিযান শুরু করতে। পক্ষান্তরে মুকুল রায়ও চাইছেন দলে গুরুত্ব পাওয়ার পর তৃণমূলকে জবরদস্ত ধাক্কা দিতে। আবার তৃণমূলের বিদ্রোহী বিধায়করাও মুকুলের সঙ্গে যোগাযোগ রেখে চলেন বলে বিজেপির দাবি দীর্ঘদিনের। এই অবস্থায় প্রত্যেকেই নিজের নিজের তাগিদ অনুভব করে কাজ করছেন।

২০২১ নির্বাচনের আগে পিকে বনাম মুকুলের খেল জমে যাবে

২০২১ নির্বাচনের আগে পিকে বনাম মুকুলের খেল জমে যাবে

প্রশান্ত কিশোর তৃণমূলের দায়িত্ব নিয়ে এসে মুকুলকে প্রত্যাঘাত করেছিলেন। তাঁর অভিযান থামিয়ে দিয়ে তৃণমূলে ঘরওয়াপসির ব্যবস্থা করেছিলেন। তৃণমূলও এই এক বছরে অনেক শক্তি ফিরে পেয়েছেন। এবার প্রশান্ত কিশোরের দুর্বলতার সুযোগ নিয়ে মুকুল রায় পাল্টা আঘাত করতে চাইছেন। তাহলে ২০২১ নির্বাচনের আগে খেল জমে যাবে।

মুকুলের হাতে তৃণমূল বিধায়করা তালিকা দীর্ঘ হচ্ছে

মুকুলের হাতে তৃণমূল বিধায়করা তালিকা দীর্ঘ হচ্ছে

এখন মুকুল রায়ের গুরুত্ব বেড়েছে বিজেপিতে। মুকুল রায় দলে গুরুত্ব বাড়িয়ে নেওয়ার পর থেকেই দেখা যাচ্ছে তৃণমূলের অনেক বিধায়ক বেসুরো গাইতে শুরু করেছেন। মুকুল রায়ের কাছে তৃণমূল লম্বা তালিকা তো রয়েছেই। এখন আবার মুকুল রায় নতুন এক তালিকা তৈরি করছেন তৃণমূলে বিদ্রোহীদের নিয়ে।

মুকুলের গুরুত্ব বৃদ্ধিতে তৃণমূলের ভাঙন জল্পনা

মুকুলের গুরুত্ব বৃদ্ধিতে তৃণমূলের ভাঙন জল্পনা

মুকুল রায় সর্বভারতীয় সহসভাপতি মনোনীত হওয়ার পরই জল্পনা তৈরি হয়, ৪ অক্টোবর দিল্লিতে মুকুল রায়ের হাত ধরে বিজেপিতে যোগ দিতে পারেন বেশ কয়েকজন বিধায়ক। যদিও সেই পরিকল্পনা সফল হয়নি। কেউই যোগ দেননি বিজেপিতে। তৃণমূলের কোনও লোকসান হয়নি। তবে চর্চা থামেনি এই বিজেপিতে যোগদান বা তৃণমূলে ভাঙন নিয়ে।

তৃণমূলের বেসুরো বিধায়কদের তালিকা প্রলম্বিত

তৃণমূলের বেসুরো বিধায়কদের তালিকা প্রলম্বিত

এরই মধ্যে তৃণমূলে বেসুরা গাইতে চলেছেন মুকুল-ঘনিষ্ঠ তৃণমূল বিধায়ক হিসেবে পরিচিত শীলভদ্র দত্ত, কোচবিহারের মিহির গোস্বামী, হুগলির প্রবীর ঘোষাল। তারপর মালদহে কৃষ্ণেন্দু নারায়ণ চৌধুরী থেকে শুরু করে নীহাররঞ্জন ঘোষের বিজেপি যোগ আগেই পাওয়া গিয়েছিল। এছাড়া শুভেন্দু অধিকারীকে নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে্ জল্পনা চলছে। এছাড়া আরও অনেক বিধায়ক রয়েছেন, যাঁরা প্রশান্ত কিশোরের ভূমিকায় ক্ষুব্ধ তৃণমূলের শীর্ষ নেতৃত্বের প্রতি।

মুকুল রায়ের হাত ধরতে আগ্রহী কি সব বিদ্রোহীরা

মুকুল রায়ের হাত ধরতে আগ্রহী কি সব বিদ্রোহীরা

এখন দেখার তৃণমূল বিক্ষুব্ধরা সবাই মুকুল রায়ের হাত ধরতে আগ্রহী হন কি না। অনেকেরই বিজেপিতে যোগদানের প্রতি অ্যালার্জি রয়েছে। তাঁদের কাছে বিকল্প নেই বলে তৃণমূলে আছেন, এমন অনেক নেতা রয়েছেন। কংগ্রেস আগের মতো শক্তিশালী নয়, বামেদের পরিস্থতিও সঙ্গীন। এই অবস্থায় তাঁরা তৃণমূলে থাকতে বাধ্য হচ্ছেন। তবে মুকুল রায়-সহ বিজেপির তরফে চেষ্টার কসুর করা হচ্ছে না তৃণমূল ভাঙানোর জন্য।

২০১৯-এ যা পেরেছেন, ২০২১-এ কি পারবেন মুকুল

২০১৯-এ যা পেরেছেন, ২০২১-এ কি পারবেন মুকুল

এটা ১০০ শতাশ ঠিক যে তৃণমূল ভাঙিয়ে বিজেপি গড়ার কারিগর মুকুল রায়ই। ২০১৯-এর নির্বাচনের আগে থেকেই তৃণমূলে ভাঙন ধরিয়ে দিয়েছিলেন মুকুল রায়। তিনি তাঁর ঘনিষ্ঠ তৃণমূল নেতাদের ভাঙিয়ে এনেছিলেন বিজেপিতে। এবং বিজেপিতে তাঁদের সাংসদ পদপ্রার্থী করেছিলেন। বেশিরভাগই আজ সাংসদ, অনেকে সাংসদ পদপ্রার্থী হিসেবে হেরেছেন একটুর জন্য। আর ২০১৯-এর নির্বাচনের পরও সেই যোগদানের পালা অব্যাহত ছিল। এবার ২০২১-এ কি তিনি পারবেন সেই খো খেলতে, এখন কিন্তু তৃণমূলের বড় ‘খিলাড়ি' রয়েছে।

কলকাতাঃ নবান্ন অভিযানকে সামনে রেখে বিজেপি দফতরের পাশে তৈরী হচ্ছে ক্যাম্প

মুকুল 'তালিকা’ তৈরি করছেন তৃণমূল বিধায়কদের! একুশের আগে কারা আছেন লাইনে

{quiz_384}

English summary
TMC rebels MLAs are contacted with Mukul Roy being agitated over Prashant Kishor
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X