• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

মিজোরাম অশান্তি ছড়াতে তৈরি 'আরাকান আর্মি'! ব্লু টুথ দিয়ে ল্যান্ডমাইন বিস্ফোরণের ছক

  • By Annanya
  • |

দক্ষিণ এশিয়ার অন্যতম বড় প্রজেক্ট 'কালাদান'। মিজোরামের লঙটালা জেলায় নির্মীয়মান এই প্রজেক্টের হাত ধরে দশ্রিণ এশিয়ার ভারতের সদর্পে যাতায়াত শুরু হবে বিভিন্ন দেশের সঙ্গে। এই 'মাল্টি মডেল ট্রান্জিট ট্রান্সপোর্ট 'কালাদান-ই এবার উগ্রপন্থী হামলার নিশানায় রয়েছে। অন্তত সূত্রের দাবি এমনটাই। কারণ মায়ানমারের 'বিদ্রোহী' গোষ্ঠী আরাকান আর্মি এবার তৈরি হচ্ছে ভারতের উত্তরপূর্বকে অশান্ত করতে।

মিজোরামে আরাকান সেনা

মিজোরামে আরাকান সেনা

সূত্রের দাবি মিজোরামের বিভিন্ন অংশে গা ঢাকা দিয়ে থাকতে শুরু করেছে মায়ানমারের গোষ্ঠী আরাকান আর্মি। ইতিমধ্যেই মিজেরামোর বিভিন্ন জায়গায় তাদের ক্যাম্পের খবর পাওয়া গিয়েছে। আর তাদের নিয়েই ক্রমেই কাপালে ভাঁজ পড়তে শুরু করেছে ভারতীয় প্রশাসনের।

আরাকান আর্মি-কে নিয়ে কেন আশঙ্কা!

আরাকান আর্মি-কে নিয়ে কেন আশঙ্কা!

জানা গিয়েছে, মায়ানমারের বিদ্রোহী গোষ্ঠী আরাকান আর্মি ইতিমধ্যেই মায়নমারের সেনার বিরুদ্ধে বিভিন্ন ধরনের হামলাার ঘটনা ঘটাতে শুরু করেছে। যার মধ্যে সবচেয়ে আতঙ্কের বিষয় হল ল্যান্ডমাইন বিস্ফোরণ। যা অত্যাধুনিক প্রযুক্তিতে করে চলেছে আরাকান আর্মি।

 ব্লুটুথ দিয়ে ল্যান্ডমাইন বিস্ফোরণ

ব্লুটুথ দিয়ে ল্যান্ডমাইন বিস্ফোরণ

ব্লুটুথ দিয়ে ল্যান্ডমাইন বিস্ফোরণের এক অত্যাধুনিক প্রযুক্তিকে ব্যবহার করছে আরাকান আর্মি। তারা ওয়াইফাই প্রযুক্তকে ব্যবহার করে কিংবা ব্লুটুথ দিয়ে ল্যান্ডমাইন বিস্ফোরণের মতো ঘটনা ঘটিয়ে চলেছে।

অসম রাইফেলস শুরু করেছে খোঁজ

অসম রাইফেলস শুরু করেছে খোঁজ

আরাকান আর্মির নজর কালাদান প্রজেক্টে রয়েছে বলে ইতিমধ্যেই আশঙ্কা শুরু হয়েছে । এদিকে, অসম রাইফেলস গোটা উত্তর পূর্ব জুড়ে খোঁজ শুরু করেছে এই আরাকান আর্মির সদস্যদের। এরা মূলত, ব্লুটুথ প্রযুক্তি ব্যবহার করে কিভাবে ল্যান্ডমাইন বিস্ফোরণ ঘটাচ্ছে তার জোরদার খোঁজ করতে শুরু করেছে অসম রাইফেলস।

জ্যামার বসিয়েছে মায়নমার সেনা

জ্যামার বসিয়েছে মায়নমার সেনা

যাতে যেকোনওরকমের নাশকতা রোখা যায়, তার জন্য মায়ানমার সেনা বিভিন্ন জায়গায় , বিশেষত সীমান্তবর্তী এলাকায় জ্যামার বসিয়ে দিয়েছে। সেনার কোনও কনভয় এলাকা দিয়ে গেলে আগে জ্যামার বসানো থাকে এলাকায়। ফলে ব্লু টুথ ব্যবহার করে নাশকতার আশঙ্কা অনেকটাই রুখে দিচ্ছে মায়ানমার সেনা। তবে , ভারতে কালাদান প্রজেক্টকে এই বিচ্ছিন্নতাবাদী 'বিদ্রোহী' গোষ্ঠী আরাকান আর্মি র হাত থেকে কিবাবে রক্ষা করা যায়, পাশাপাশি মিজোরামে কিভাবে নাশকতার ছক বানচাল করা যায়, তার চেষ্টাতেও রয়েছে ভারতীয় সেনা।

[মহরমের উ‌ৎসবে কারবালায় পদপিষ্ট হয়ে মৃত ৩১, আহত শতাধিক]

[কাশ্মীর সীমান্তে পাকিস্তানের জঙ্গি 'লঞ্চপ্যাড' প্রস্তুত! আফগান-পশতুন সন্ত্রাসবাদীদের নিয়ে নয়া ছক ]

English summary
Myanmar insurgent group using Bluetooth to activate landmines . The insurgent group also has presence in Mizoram. This is the reason why Indian security agencies are verifying the use of such technology by insurgent groups to trigger landmines.
For Daily Alerts
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X
We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Oneindia sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Oneindia website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more