• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts
Oneindia App Download

শ্রদ্ধা হত্যার ছায়া দিল্লিতে! খুনের পর বাবার দেহের ২২টি টুকরো করে ফ্রিজে রাখল মা ও ছেলে

শ্রদ্ধা হত্যার ছায়া দিল্লিতে! খুনের পর বাবার দেহের ২২টি টুকরো করে ফ্রিজে রাখল মা ও ছেলে
Google Oneindia Bengali News

রাজধানীতে শ্রদ্ধা ওয়াকারের পর ফের একটি নৃশংস হত্যার কাহিনী প্রকাশ্যে এল। মা ও ছেলে মিলে বাবাকে খুন করার অভিযোগ। তারপর বাবার দেহটি ২২টি টুকরো করা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। দিল্লি পুলিশ ইতিমধ্যে মা ও ছেলেকে গ্রেফতার করেছে।

হত্যার পর দেহ ২২টি টুকরো করল ছেলে

হত্যার পর দেহ ২২টি টুকরো করল ছেলে

সোমবার দিল্লি পুলিশ জানিয়েছে, পূর্ব দিল্লির পাণ্ডব নগরে স্বামীকে হত্যা করে তাঁর দেহ ২২টি টুকরো করার অভিযোগে এক মহিলা ও তাঁর ছেলেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে, পুনম ও দীপক প্রথমে অঞ্জন দাসকে খুন করে। তারপর তাঁর দেহ ২২টি টুকরো করে ফ্রিজে রাখেন। তাঁরা অঞ্জন দাসের দেহের টুকরোগুলো পূর্ব দিল্লির বিভিন্ন জায়গায় ফেলার পরিকল্পনা করেছিলেন। একটি সিসিটিভি ফুটেজে দীপককে সন্দেহজনকভাবে কিছু ফেলতে দেখা যায়। এরপরেই পুলিশের সন্দেহ হয়। পুলিশ দীপক ও পুনমকে জিজ্ঞাসাবাদ করে। জেরার মুখে তাঁরা অঞ্জন দাসকে হত্যা করার কথা স্বীকার করেন। তাঁরা জানিয়েছেন, অঞ্জন দাসের একটি অবৈধ সম্পর্ক ছিল। সেই কারণেই তাঁকে হত্যা করা হয়েছে।

শ্রদ্ধা ওয়াকারকে হত্যার ঘটনা থেকে অনুপ্রাণিত!

শ্রদ্ধা ওয়াকারকে হত্যার ঘটনা থেকে অনুপ্রাণিত!

সম্প্রতি শ্রদ্ধা ওয়াকারকে নির্মমভাবে খুনের ঘটনা প্রকাশ্যে এসেছে। শ্রদ্ধা ওয়াকারকে তাঁর লিভ ইন পার্টনার আবতাফ পুনওয়ালা খুন করে। মে মাসে আফতাব শ্রদ্ধাকে শ্বাসরোধ করে প্রথমে খুন করে। তারপর তাঁক দেহ ৩৫টি টুকরো করে। সেই টুকরোগুলোকে রাখার জন্য একটি ৩০০ লিটারের ফ্রিজ কেনে। ১৮দিন ধরে জঙ্গলে দক্ষিণ দিল্লি ও গুরগাঁয়ের বিভিন্ন জঙ্গলে ফেলে আসে শ্রদ্ধার দেহের টুকরোগুলো। শ্রদ্ধা পরিবারের অমতে গিয়ে আফতাবের সঙ্গে সম্পর্কে ছিলেন। তাঁরা মে মাসে মুম্বই থেকে দিল্লিতে গিয়েছিলেন। সেখানেই একটি বাড়িতে ভাড়া থাকতে শুরু করেন। বিয়ে করার জন্য শ্রদ্ধা জোর করতেন, সেই কারণেই তাঁদের মধ্যে প্রতিদিন অশান্তি হতো। অশান্তির সময় আফতাব শ্রদ্ধাকে শ্বাসরোধ করে খুন করে।

বারুইপুরেও বাবাকে হত্যা মা ও ছেলের

একই ধরনের ঘটনা বাংলায় কলকাতার পার্শ্ববর্তী এলাকা বারুইপুরে দেখা যায়। সেখানেও প্রাক্তন নৌসেনার কর্মীকে স্ত্রী ও ছেলে মিলে খুন করে। করাতের সাহায্যে নৌসেনার দেহ টুকরো টুকরো করে। এরপর ছেলে সাইকেলে করে তিন দিন ধরে প্রাক্তন নৌসেনার কর্মীর দেহের টুকরো পার্শ্ববর্তী জঙ্গলে ফেলে আসে। তারপর স্ত্রী নিখোঁজ ডায়েরি লেখান। পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে মা ও ছেলে জানিয়েছেন, শ্রদ্ধা ওয়াকারের খুনের ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই তাঁরা প্রাক্তন নৌসেনার দেহ টুকরো করে ফেলার পরিকল্পনা করেন। তবে দিল্লির ঘটনায় স্ত্রী ও ছেলে শ্রদ্ধা ওয়াকারকে খুনের ঘটনা থেকে খুন করার পর দেহ টুকরো করার পরিকল্পনা নিয়েছিল কি না, তা জানা যায়নি।

গরুপাচার কাণ্ডে এবার ইডির নজরে মুর্শিদাবাদ, হুমায়ুন কবীর সহ একাধিক পুলিশ অফিসারকে জেরার ইঙ্গিতগরুপাচার কাণ্ডে এবার ইডির নজরে মুর্শিদাবাদ, হুমায়ুন কবীর সহ একাধিক পুলিশ অফিসারকে জেরার ইঙ্গিত

English summary
Woman and her son arrested for killing husband and chopping body into 22 parts
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X