• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

চাপ বাড়াচ্ছে দিল্লি পুলিশ, টুলকিট মামলায় আগাম জামিনের আবেদনে আদালতের দ্বারস্থ নিকিতা-শান্তনু

  • |

কৃষক আন্দোলনের আবহেই টুলকিট কাণ্ডে নতুন করে বাড়ছে চাপানৌতর। এদিকে ইতিমধ্যেই দুই পরিবেশবিদ ও এক সমাজকর্মীর বিরুদ্ধে পদক্ষেপও নিতে শুরু করেছে দিল্লি পুলিশ। সমাজকর্মী-আইনজীবী নিকিতা জেকব ও ইঞ্জিনিয়র শান্তনু মুলুদের বিরুদ্ধে ইতিমধ্যেই জামিন অযোগ্য ধারায় দায়ের হয়েছে মামলাও। পাশাপাশি গ্রেফতার হয়েছেন বেঙ্গালুরুর পরিবেশ কর্মী দিশা রবি। এদিকে এবার গ্রেফাতরি এড়াতে বোম্বে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হতে দেখা গেল নিকিতা জ্যাকবকে।

আগাম জামিনের আবেদন

আগাম জামিনের আবেদন

সূত্রের খবর, ইতিমধ্যেই নিকিতা ও শান্তনু দুজনেই বোম্বে আইকোটে দুটি ভিন্ন পিটিশন দাখিল করেছেন। জামিন অযোগ্য ধারায় মামলার পর গ্রেফতারি এড়াতেই মূলত তাদের এই পদক্ষেপ বলে জানা যাচ্ছে। পুলিশি পদক্ষেপের বিরুদ্ধে অন্তর্বর্তী সুরক্ষার জন্যই বম্বে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছেন তারা। মঙ্গলবারই তাদের আবেদেনের ভিত্তিতে শুনানি শুরু হতে চলেছে বোম্বে হাইকোর্টে। এদিকে নিকিতা ও শান্তনু দুজনেই আদপে মুম্বইয়েরই বাসিন্দা বলে জানা যাচ্ছে।

বোম্বে হাইকোর্টের আওরঙ্গবাদ বেঞ্চে দাখিল পিটিশ

বোম্বে হাইকোর্টের আওরঙ্গবাদ বেঞ্চে দাখিল পিটিশ

সোমবারই নিকিতা ও শান্তনু তাদের দাখিল করা পিটিশনে আগাম জামিনের আবেদন করেছেন বলে জানা যাচ্ছে। বোম্বে হাইকোর্টের আওরঙ্গবাদ বেঞ্চেই দাখিল হয়েছে এই পিটিশন। সূত্রের খবর, আজ বিচারপতি পি ডি নায়েকের বেঞ্চের সামনেই নিকিতা জ্যাকবের আবেদনের শুনানি হবে। অন্যদিকে শান্তনুর আবেদনের শুনানি হবে আওরঙ্গবাদ বেঞ্চের বিচারপতি বিভা কাঁকনবাদীর কাছে।

 বাড়ছে চাপানৌতর

বাড়ছে চাপানৌতর

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, কৃষক আন্দোলনের প্রতিবাদে বিশ্বখ্যাত পরিবেশবিদ গ্রেটা থানবার্গের টুলকিট শেয়ারের অভিযোই এই দুই পরিবেশবিদ-সমাজকর্মীর বিরুদ্ধে খড়গহস্ত হয় দিল্লি পুলিশ। সূত্রের দাবি, জামিন অযোগ্য ধারায় ওয়ারেন্ট ইস্যু করা হয়েছে দিল্লির একটি আদালতের তরফে। দিল্লি পুলিশের অনুরোধে এই গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে বলে জানা যাচ্ছে। এমনকী পুলিশের তরফেও ইতিমধ্যেই নিকিতা ও শান্তনুকে পলাতকও ঘোষণা করা হয়েছে।

 কী দাবি করছে দিল্লি পুলিশ ?

কী দাবি করছে দিল্লি পুলিশ ?

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, দিল্লি সীমান্তে গত প্রায় তিন মাসের বেশি সময় ধরে চলা কৃষক আন্দোলনের সমর্থন কয়েকদিন আগেই একটি টুইট করেছিলেন সুইডিশ পরিবেশ কর্মী গ্রেটা থুনবার্গ। তারপর থেকেই তা নিয়ে আন্তর্জাতিক মহলে শুরু হয় চাপানৌতর। দিল্লি পুলিশের দাবি গ্রেটার শেয়ার করা টুলকিট তৈরি, এডিটে সাহায্য করেছিলেন দিশা, নিকিতা, শান্তনু। এমনকী একাধিক হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ তৈরি করে তা ছড়িয়েও দিয়েছিলেন তারা। ওই গ্রুপেই খালিস্তানি যোগ রয়েছে বলেও দাবি পুলিশের।

বিজেপিকে রোখার ফর্মুলায় তৃণমূলের বার্তাকে জোর 'ঝটকা' অধীরের! মমতার প্রসঙ্গ তুলে নিলেন কোন স্টান্স

English summary
Nikita-Shantanu at the Bombay High Court on an interim bail application to avoid arrest
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X