বিজেপি-বিরোধী ভোটকে একত্রিত করাটাই মূল লক্ষ্য কংগ্রেসের, কিন্তু প্রধানমন্ত্রী কে

  • Written By: Amartya Lahiri
Subscribe to Oneindia News
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS
For Daily Alerts

    বিজেপি-বিরোধী ভোট ভাগ হতে দেওয়া যাবে না। ২০১৯ লোকসভা ভোটে এটাই কংগ্রেসের মূল লক্ষ্য। তার জন্য একেক আঞ্চলিক দলের সঙ্গে একেক ভাবে জোটে যেতেও রাজি কংগ্রেস। এমনটাই জানিয়েছেন রংগ্রেস নেতা অভিষেক সিংভি। এর মধ্যে অখিলেশ যাদব প্রস্তাব দিয়েছেন নরেন্দ্র মোদীর বিরুদ্ধে যৌথ প্রার্থী দেওয়ার।

    বিজেপি-বিরোধী ভোটকে একত্রিত করাটাই মূল লক্ষ্য

    লোকসভা ও বিঝানসভার উপনির্বাচনগুলিতে দেখা গেছে বিজেপি-বিরোধী ভোটকে একত্রিত করতে পারলে বিজেপি অনেক পিছনে পড়া যাচ্ছে। সেই ফল বেরনোর পর বিজেপির মুখপাত্র অভিষেক মনু সিংভি জানিয়েছেন একের পর এক রাজ্যে অবিজেপি ভোট ভাগ হওয়ার সুযোগ নিয়েছে বিজেপি। আগামী লোকসভায় তা রুখতে সব অবিজেপি ভোটকে এক জায়গায় করাটাই কংগ্রেসের মূল লক্ষ্য।

    তিনি বলেন, কোন রাজ্যে দুই দলের সংঘাত থাকতে পারে, কোথআও তিনটি বড় দল আছে, কোথাও বা চারটি - সব জায়গাতেই সবাইকে এক জায়গায় করাটাই কংগ্রেসের লক্ষ্য।' কিন্তু একেক দলের তো একেক রকম চাহিদা থাকে। সবাই একভাবে জোটে আসতে নাও চাইতে পারে। অভিষেক জানিয়েছেন তাতেও সমস্যা নেই।

    বিজেপি-বিরোধী ভোটকে একত্রিত করাটাই মূল লক্ষ্য

    কংগ্রেস মুখপাত্র বলেন, 'সবার জন্য এক শর্ত থাকবে না। কোনও লুকনো শর্ত থাকবে না। কারোর সঙ্গে হয়তো আনুষ্ঠানিকভাবে জোট হবে। কারোর সঙ্গে হবে কৌশলগত আসন সমঝোতা। কারোর সঙ্গে সমঝোতা। যেভাবেই হোক দেশের সর্বত্র বিজেপি-বিরোধী ভোটকে এক জায়গায় আনবে কংগ্রেস।'

    এরমধ্যে সপা নেতা অখিলেশ যাদব প্রস্তাব দিয়েছেন বারানসীতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বিরুদ্ধে ফেডেরাল জোটের একজন প্রধানমন্ত্রী পদ প্রার্থী দেওয়ার। তাঁর প্রস্তাবটিকে সমর্থন জানান অভিষেক। কিন্তু সেই প্রার্থী কে হতে পারেন তা নিয়ে মন্তব্য করতে চাননি কংগ্রেসের এই আইনজীবি নেতা। রাহুল গান্ধী না অন্য কেউ? 'এখনই তা বলার সময় আসেনি' বলে এড়িয়ে গিয়েছেন।

    English summary
    Congress spokesperson Abhishek Singhvi said in working out alliances, the basic object would be to ensure consolidation of anti-BJP votes.

    Oneindia - এর ব্রেকিং নিউজের জন্য
    সারাদিন ব্যাপী চটজলদি নিউজ আপডেট পান.

    We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Oneindia sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Oneindia website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more