• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

হোটেল বিলাস, মাসাজ, ওয়াটার স্কি-তে মজে এআইএডিএমকে বিধায়করা

চেন্নাই, ৯ ফেব্রুয়ারি : তামিলনাড়ুর মুখ্যমন্ত্রী পদে কে বসবেন তা এখনও ঠিক হয়নি। বলা যায় চূড়ান্ত দড়ি টানাটানি চলছে। তার মধ্যেই শশীকলা ঘনিষ্ঠ বিধায়করা বিলাসী জীবন কাটাচ্ছেন। বলা চলে কাটাতে বাধ্য হচ্ছেন।[জয়ার পয়েজ গার্ডেন হবে মেমোরিয়াল, শশীকে পাল্টা চাপ পন্নিরসেলবমের]

গত দু'দিনে বলা যায় বিনিদ্র রজনী কাটিয়েছেন বিধায়কেরা। শশীর বিশ্বস্ত ১৩১ জম বিধায়ককে যাতে বিপক্ষ ভাঙিয়ে না যেতে পারে সেজন্য তাদের কয়েকটি দলে ভাগ করে বাসে চাপিয়ে বিলাসবহুল হোটেলে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে।[শশীকলার যোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তুললেন দক্ষিণী নায়ক কামাল হাসান]

হোটেল বিলাস, মাসাজ, ওয়াটার স্কি-তে মজে এআইএডিএমকে বিধায়করা

এর মধ্যে একটি দল গিয়েছে, চেন্নাই থেকে ৮০ কিলোমিটার দূরে মহাবলীপুরমে। সেখানে সমুদ্র সৈকতের ধারে বিলাসবহুল হোটেলে মাসাজ, ওয়াটার স্কি পরিষেবা সহযোগে বিধায়কদের খাতির করা হয়েছে।[শশীকলাকে মুখ্যমন্ত্রী হতে না দেওয়ার ষড়যন্ত্রে শামিল তামিলনাড়ুর রাজ্যপালও!]

তবে চেন্নাই থেকে বাসে মহাবলীপুরম যাওয়ার পথে এক বিধায়ক বাস থেকে নেমে বাথরুমে যাওয়ার নাম করে পালিয়ে যান। এসপি শনমুগানাথন নামে সেই বিধায়ক চেন্নাই ফিরে ও পন্নিরসেলবমের দলে নাম লিখিয়েছেন বলে খবর।

এদিকে গত রবিবার থেকে শশীকলা মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে শপথ নিতে চেয়ে রাজ্যপাল সি বিদ্যাসাগর রাওয়ের পথ চেয়ে বসে রয়েছেন। অবশেষে এদিন মুম্বই থেকে চেন্নাই ফেরার কথা তাঁর। এসে তিনি প্রথমে পন্নিরসেলবম ও পরে শশীকলার সঙ্গে কথা বলবেন।

lok-sabha-home
English summary
In the tussle between VK Sasikala and O Panneerselvam, the man she is prepping to replace as Tamil Nadu's Chief Minister, a cat-and-mouse game involving 131 AIADMK lawmakers meant a sleepless night for many. Last evening, the lawmakers were split into different groups, herded in luxury buses and taken to various hotels and resorts so they cannot be found and "poached".
For Daily Alerts

Oneindia - এর ব্রেকিং নিউজের জন্য
সারাদিন ব্যাপী চটজলদি নিউজ আপডেট পান.

Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X
We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Oneindia sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Oneindia website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more