• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

    প্রসঙ্গ নগ্নতা , অম্বুবাচী মেলায় কামাক্ষ্যায় ব্রাত্য নাগা সন্ন্যাসীরা

    আগামী ২২ তারিখে অম্বুবাচী। আর প্রতিবারের মতো এবারেও ঐতিহ্য মেনে সেদিন আসামেরে কামাক্ষ্যা মন্দিরে মেলা অনুষ্ঠিত হতে চলেছে। তবে প্রতিবারের মতো এবারে আর সেই মেলা চত্বরে থাকতে পারবেন না শিবের উপাসক নাগা সন্ন্যাসীরা।

    ৫ দিন ধরে চলা এই মেলা , মূলত দেবী কামাক্ষ্যার উপাসনাকে কেন্দ্র করে সংগঠিত হয় প্রতিবছর। শুধু ভারত নয়, বিশ্বের নানা জায়গা থেকে এই উৎসবে আসেন পর্যটকরা। তবে এবছর মেলার আগে থেকেই শুরু হয়ে গিয়েছে বিতর্ক। এবছরের বিতর্ক , নাগা সন্ন্যাসীদের নিয়ে।

    প্রসঙ্গ নগ্নতা , অম্বুবাচী মেলায় কামাক্ষ্যায় ব্রাত্য নাগা সন্ন্যাসীরা

    তবে কর্তৃপক্ষ এবছর, মন্দির চত্বরে নাগা সন্ন্যাসীদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। তার কারণ, নাগা সন্ন্যাসীদের নগ্নতা দৃষ্টিকটূ ঠেকতে পারে অনেক দর্শনার্থীর কাছে বলে দাবি মন্দির কর্তৃপক্ষের। তাছা়ড়াও , তা অস্বস্তির কারণও হতে পারে পর্যটকদের জন্য ।

    তাই নাগা সন্ন্যাসীদের জন্য মন্দির কর্তৃপক্ষ অন্যত্র আরেকটি স্থানের ব্যবস্থা করেছে। যা মন্দির চত্বর থেকে অনেক দূরে। যেখানে মন্দিরে আগত ভক্তরা বা পর্যটকরা তাদের দেখতে না পান। মন্দির কর্তৃপক্ষের এই সিদ্ধান্তে শিলমোহর দিয়েছে রাজ্য প্রশাসনও। ফলে কামাক্ষ্যা মন্দির চত্বরের অম্ববাচী পুজোতে নাগা সন্ন্যাসীদের মিছিল আর দেখা যাবে না। এছাড়াও নাগা সন্ন্যাসী বিভিন্ন মাদক সেবন করে থাকেন, যা নিয়ে আপত্তি তুলেছে প্রশাসন।

    English summary
    The world-famous Kamakhya temple--situated on the Nilachal hills in Guwahati, Assam--is gearing up for the annual Ambubachi Mela, scheduled to kick-start on June 22. The five-day-long Mela (fair), hosted to observe the annual menstrual cycle of goddess Kamakhya, attracts lakhs of devotees and tourists from various corners of the world. However, this time before the start of the colourful fair a controversy has erupted.
    For Daily Alerts

    Oneindia - এর ব্রেকিং নিউজের জন্য
    সারাদিন ব্যাপী চটজলদি নিউজ আপডেট পান.

    Notification Settings X
    Time Settings
    Done
    Clear Notification X
    Do you want to clear all the notifications from your inbox?
    Settings X
    We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Oneindia sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Oneindia website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more