• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

লিঙ্কন থেকে ট্রাম্প, রিপাবলিকানদের হয়ে লড়ে কারা মার্কিন রাষ্ট্রপতির চেয়ারে বসেছেন? সংক্ষিপ্ত ইতিহাস

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ৪৫ তম রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হলেন রিপাবলিকান প্রার্থী তথা ধনকুবের ব্যবসায়ী ডোনাল্ড ট্রাম্প। রিপাবলিকান হিসাবে ১৯ তম ব্যক্তি হিসাবে তিনি রাষ্ট্রপতি হিসাবে শপথ নেবেন। এদিন তিনি ম্যাজিক ফিগারের চেয়ে ৬ কদম বেশি দূরে গিয়ে থেমেছেন। পেয়েছেন মোট ২৭৬টি ইলেক্টরাল ভোট। [(ছবি) মার্কিন নির্বাচন নিয়ে এই মজার অথচ গুরুত্বপূর্ণ তথ্যগুলি আপনি নিশ্চিত জানেন না]

তিনি অন্যতম সেরা রিপাবলিকান রাষ্ট্রপতি হতে পারবেন কিনা তা সময়ই বলবে। তবে অন্যতম জনপ্রিয় হবেন, তাতে খুব একটা সন্দেহ নেই। [(ছবি) শেষ চারটি মার্কিন নির্বাচনের ফলাফল জেনে নিন একঝলকে]

রিপাবলিকানদের হয়ে কারা মার্কিন রাষ্ট্রপতির চেয়ারে বসেছেন?

এবার আসা যাক রিপাবলিকানদের মধ্যে কারা রাষ্ট্রপতির চেয়ারে বসেছেন সেই বিষয়ে। ১৮৬১ সালে প্রথমবার রিপাবলিকানদের হয়ে লড়ে রাষ্ট্রপতি হন এব্রাহাম লিঙ্কন। তিনি আমেরিকার ১৬তম রাষ্ট্রপতি ছিলেন। তিনি সেদেশে গৃহযুদ্ধের সময়ে যেমন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নেন, তেমনই দেশের প্রথম রাষ্ট্রপতি যাকে হত্যা করা হয়েছিল। [(ছবি) মার্কিন নির্বাচনে 'দেশি' হাওয়া, রেকর্ড গড়ে মার্কিন কংগ্রেসে যোগ দিতে চলেছেন ৫ ইন্দো-আমেরিকান]

লিঙ্কনের এমনই জনপ্রিয়তা পরবর্তীকালেও থেকেছে যে রিপাবলিকান পার্টিকে অনেকে লিঙ্কনের দল বলে ডেকে থাকেন।

এব্রাহাম লিঙ্কনের হাত ধরে যে পথ চলা শুরু করে রিপাবলিকানরা সেই পথকে এগিয়ে নিয়ে যাবেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। এবার দেখে নেওয়া যাক, রিপাবলিকান হিসাবে এর আগে কারা রাষ্ট্রপতির চেয়ার আলো করেছেন।

  • এব্রাহাম লিঙ্কন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ১৬তম রাষ্ট্রপতি ছিলেন। তাঁর কার্যকাল ছিল ১৮৬১ থেকে ১৮৬৫
  • উলিসেস এস গ্রান্ট, ১৮তম রাষ্ট্রপতি, কার্যকাল- ১৮৬৯-১৮৭৭
  • ১৯তম রাষ্ট্রপতি রাদারফোর্ড বি হায়েস, কার্যকাল - ১৮৭৭-১৮৮১
  • জেমস গারফিল্ড ছিলেন ২০তম রাষ্ট্রপতি, কার্যকাল ৪ মার্চ ১৮৮১- ১৯ সেপ্টেম্বর ১৮৮১
  • চেস্টার এ আর্থার, ২১তম মার্কিন রাষ্ট্রপতি, কার্যকাল- ১৮৮১-১৮৮৫
  • বেঞ্জামিন হ্যারিসন ছিলেন ২৩তম রাষ্ট্রপ্রধান, কার্যকাল- ১৮৮৯-১৮৯৩
  • উইলিয়াম ম্যাককিনলে হন দেশের ২৫তম রাষ্ট্রপতি। তাঁর কার্যকাল ছিল ১৮৯৭-১৯০১
  • থিওডোর রুজভেল্ট হলেন আর এক জনপ্রিয় মার্কিন রাষ্ট্রপতি। তিনি ২৬তম রাষ্ট্রপ্রধান ছিলেন। ১৯০১-১৯০৯ পর্যন্ত তিনি দেশ চালান।
  • উইলিয়াম এইচ টাফ্ট ২৭ তম মার্কিন রাষ্ট্রপতি। কার্যকাল ছিল ১৯০৯-১৯১৩ সাল পর্যন্ত।
  • ওয়ারেন এইচ হার্ডিং রিপাবলিকান হিসাবে দেশের ২৯তম রাষ্ট্রপ্রধান হন। ১৯২১-১৯২৩ তিনি দেশ চালান।
  • ক্যালভিন কুলিজ ৩০ তম রাষ্ট্রপতি ছিলেন। তিনি চেয়ারে আসীন ছিলেন ১৯২৩-১৯২৯ সাল পর্যন্ত।
  • হারবার্ট সি হুভার দেশের ৩১তম রাষ্ট্রপ্রধান হন। ১৯২৯-১৯৩৩ সাল পর্যন্ত ছিল তাঁর কার্যকালের মেয়াদ।
  • ডি আইসেনহাওয়ার ৩৪তম বারে গিয়ে রিপাবলিকানদের হয়ে জয়লাভ করেন। তিনি ১৯৫৩-১৯৬১ সাল পর্যন্ত মার্কিন রাষ্ট্রপতি ছিলেন।
  • রিচার্ড এম নিক্সন ৩৭তম মার্কিন রাষ্ট্রপতি। ১৯৬৯-১৯৭৪ পর্যন্ত তিনি চেয়ারে ছিলেন।
  • জেরাল্ড আর ফোর্ড দেশের ৩৮তম রাষ্ট্রপ্রধান নির্বাচিত হন। তিনি ১৯৭৪-১৯৭৭ পর্যন্ত গদিতে ছিলেন।
  • মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের আর এক জনপ্রিয় রাষ্ট্রপতি ছিলেন রোনাল্ড রেগন। তিনি ৪০তম রাষ্ট্রপতি হিসাবে ১৯৮১-১৯৮৯ পর্যন্ত ক্ষমতায় ছিলেন।
  • জর্জ এইচ ডব্লিউ বুশ মার্কিন রাষ্ট্রপতি হিসাবে ১৯৮৯-১৯৯৩ সাল পর্যন্ত দেশ সামলান।
  • পরে তাঁরই পুত্র জর্জ ডব্লিউ বুশ ২০০১-২০০৯ পর্যন্ত দেশের ৪৩তম রাষ্ট্রপ্রধান হিসাবে মার্কিন রাজ্যপাঠ সামলেছেন।
  • দেশের ৪৫তম রাষ্ট্রপতি হিসাবে শপথ নিতে চলেছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। হিলারি ক্লিন্টনকে হারিয়ে হোয়াইট হাউসের ক্ষমতায় এলেন তিনি।
lok-sabha-home
English summary
The first of the Republican Presidents was Abraham Lincoln who took office on May 4th, 1861. After that, Its Donald Trump, who won the elections 2016 and currently President-elect of the USA. This copy is dedicated to those Republican Presidents who have served USA in its highest office.
For Daily Alerts

Oneindia - এর ব্রেকিং নিউজের জন্য
সারাদিন ব্যাপী চটজলদি নিউজ আপডেট পান.

Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X
We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Oneindia sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Oneindia website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more