• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

    (ছবি) অতীতের গ্ল্যামারাস ১৫ অভিনেত্রীর চেহারার আমুল পরিবর্তন!

    একসময় রূপোলি পর্দায় দাপিয়ে বেরিয়েছেন এই অভিনেত্রীরা। এখন সময় হয়েছে, বয়স হয়েছে, অভিনয়ের সঙ্গে সম্পর্কও অনেকটা ভেঙেছে।

    নিজেদের গ্ল্যামার ও রূপ ধরে রাখতে একসময়ে নিজেদের বেশ ভালভাবে রক্ষণাবেক্ষণ করতেন এই অভিনেত্রীরা। কিন্তু এখন বয়সের ভারে, চেহারাতেও এসেছে আমুল পরিবর্তন। [(ছবি) বয়সের সঙ্গে গ্ল্যামার বড়েছে যে বলি তারকাদের!]

    আসুন একঝলকে দেখে নেওয়া যাক বলিউডের অতীতের গ্ল্যামারাস ১৫ অভিনেত্রীদের ছবি বয়সের সঙ্গে যাদের চেহারায় এসেছে আমুল পরিবর্ত।

    সাধনা

    সাধনা

    ষাট-সত্তরের দশকের অভিনেত্রী সাধনা। চুলের সামনে ব্যাংগ কাটের ফ্যাশন প্রথম তিনিই এনেছিলেন। রাজ কাপুরের শ্রী ৪২০ ছবি দিয়ে অভিনয়ের জগতে পা রাখা। তার অভিনীত ছবি হাম দোনো, লাভ ইন শিমলা ছবি বিখ্যাত হয়েছিল।

    বৈজন্তী মালা

    বৈজন্তী মালা

    জনপ্রিয় নৃত্যশিল্পী তথা পঞ্চাশ-ষাটের দশকের অভিনেত্রী বৈজন্তী মালা। দক্ষিণী ছবি দিয়েই অভিনয়ে পা রাখা। দিলীপ কুমার, রাজ কাপুরের সঙ্গে একাধিক হিট ছবি দিয়েছিলেন বৈজন্তী মালা।

    ওয়াহিদা রহমান

    ওয়াহিদা রহমান

    ওয়াহিদা রহমান যিনি নিজের বার্ধক্যকেও অত্যন্ত গ্ল্যামারাস উপায়ে এগিয়ে নিয়ে চলেছেন। কাগজ কে ফুল, গাইড ছবিতে তাঁর অভিনয় আজও সবার মনে গেঁথে রয়েছে। যদিও এখনও টেলিভিশন বিজ্ঞাপন ও বলিউডের ছবিতে ছোটখাটো চরিত্রে অভিনয় করে অভিনয়ের শখটা জিইয়ে রেখেছেন।

    তনুজা

    তনুজা

    ১৯৬৬ সালে অভিনয় শুরু করেছিলেন অপরূপ সুন্দরী এই অভিনেত্রী। এরপর হিন্দি ছবির পাশাপাশি বহু বাংলা ছবিতে দাপিয়ে অভিনয় করেছেন তিনি। আপাতত বার্ধক্যজনিত অসুখে চলতে ফিরতে কষ্ট হয়।

    সায়রা বানু

    সায়রা বানু

    মাত্র ১৬ বছর বয়সে বলিউডে পা রাখেন সায়রা বানু। জংলী, পড়োশন, দিওয়ানার মতো হিট ছবি দিয়েছেন। দিলীপ কুমারকে বিয়ে করার পর অভিনয় থেকে অবসর নেন সায়রা বানু।

    রাখী গুলজার

    রাখী গুলজার

    রাখী গুলজার, ৬৯ বছরের এই অভিনেত্রী বহুদিন পর্যন্ত অভিনয় করে গিয়েছেন। ত্রিশূল, বর্ষাত কি এক রাত, শর্মিলির মতো হিন্দি ছবিতে অভিনয় করে সবার মন কেড়েছিলেন। পাশাপাশি বাংলায়, পরমা, শুভ মহরত-এর মতো ছবিতে অভিনয় করে প্রশংসা কুড়িয়েছিলেন। করণ অর্জুন, রাম লক্ষ্মণ ছবিতে তাঁর মায়ের চরিত্রে অভিনয় আজও আমাদের মনে আছে।

    আশা পারেখ

    আশা পারেখ

    অভিনয়ের পাশাপাশি প্রযোজনা, নির্দেশনা সব দায়িত্ব সমানভাবে পালন করেছেন আশা পারেখ। ১৯৫২ সালে আসমান ছবিতে শিশু অভিনেত্রী হিসাবে কাজ করা শুরু। দিল দেকে দেখো, তিসরি মঞ্জিল, লাভ ইন টোকিও,দো বদন, কোরা কাগজ-এর মতো ছবিতে অভিনয় করেছেন আশাজি।

    ববিতা কাপুর

    ববিতা কাপুর

    বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী করিশ্মা কাপুর ও করিনা কাপুরের মা ববিতা কাপুরও এখ সময়ের নামী অভিনেত্রী ছিলেন। কাল আজ অওর কাল, হাসিনা মান জায়েগি, ফর্জ- প্রমুখ ছবিতে অভিনয় করেথেন ববিতা। রণধীর কাপুরকে বিয়ে করার পর চলচ্চিত্র দুনিয়াকে বিদায় জানান ববিতা।

    জয়া বচ্চন

    জয়া বচ্চন

    জনপ্রিয় অভিনেত্রীর পাশাপাশি নামী রাজনীতিবিদও বটে জয়া বচ্চন। ১৯৫৫ সালে সিআইডি ছবিতে অভিনয় দিয়ে বলিউডে পা রাখা। এখনই মাঝে মধ্যেই সুযোগ পেলেই অভিনয় করেন।

    নীতু সিং

    নীতু সিং

    ঋষি কাপুরের স্ত্রী, রণবীর কাপুরের মা নীতু সিংয়ের পরিচয় পরিচয় শুধু এখানেই আটকে নয়। ষাটের দশকের জনপ্রিয় অভিনেত্রী ছিলেন নীতু সিং। তাঁর চোখের সৌন্দর্যে মাতোয়ারা ছিলেন অনেকেই। ঋষি কাপুরের সঙ্গে জুটি বেঁধে একের পর এক হিট ছবি উপহার দিয়েছেন নীতু। এখনও মাঝে মাঝে সময় পেলে ঋষি কাপুরের সঙ্গে জুটি বেঁধে অভিনয় করেন।

    জিনাত আমন

    জিনাত আমন

    নিজের সাহসী স্টাইল স্টেটমেন্টের জন্য চিরকাল জনপ্রিয় ছিলেন প্রাক্তন এই মিস ইন্ডিয়া। তাঁর অভিনীত হরে রাম হরে কৃষ্ণা, হীরা-পান্না, কুরবানি, সত্যম শিবম সুন্দরম, ডন, লাওয়ারিশ ছবি জনপ্রিয়।

    কিমি কাতকার

    কিমি কাতকার

    আশি-নব্বইয়ের দশকের সাহসী অভিনেত্রী ছিলেন কিমি কাতকার। তাঁকে রীতিমতো সেক্স সিম্বল হিসাবেই দেখা হত। টারজান ছবিতে খোলামেলা পোশাক ও সাহসী অভিনয়ের জেরে দর্শকদের চোখ কপালে উঠেছিল। কিন্তু হঠাৎই বলিউড থেকে হারিয়ে গেলেন কিমি কাতকার। আপাতত স্বামী ছেলেকে নিয়ে অস্ট্রেলিয়ার মেলবর্নে বসবাস করছেন।

    টিনা মুনিম

    টিনা মুনিম

    টিনা মুনিম নামেই বলিউডে খ্যাত ছিলেন এই সুন্দরী স্টাইলিশ অভিনেত্রী। পরে অনিল আম্বানীকে বিয়ে করে টিনা আম্বানি নামে পরিচিত হন। সত্তর আশির দশকে রূপোলি পর্দায় দাপিয়ে অভিনয় করেছেন তিনি।

    মীনাক্ষি সেশাদ্রী

    মীনাক্ষি সেশাদ্রী

    আশির দশরকের জনপ্রিয় এই অভিনেত্রী দুর্দান্ত নৃত্যশিল্পীও বটে। ১৯৮১ সালে জাপানের টোকিওতে মিস ইন্টারন্যাশনাল হিসাবে ভারতের প্রতিনিধিত্ব করেছিলেন তিনি। বিয়ের পর অভিনয় থেকে অবসর নেন মীনাক্ষী। তারপর প্রায় অন্তরালে। টেক্সাসে পরিবারের সঙ্গে থাকেন তিনি। অভিনয় ছাড়লেও নাচ এখনও চালিয়ে যাচ্ছেন মীনাক্ষী।

    অনু আগরওয়াল

    অনু আগরওয়াল

    আশিকি খ্যাত অভিনেত্রী অনু আগরওয়াল। প্রথম ছবিই বক্স অফিসে আকাশছোঁয়া জনপ্রিয়তা পায়। এর পরে কিং আঙ্কেল ছবিতে অভিনয় করেন অনু। ১৯৯৯ সালে দুর্ঘটনার কবলে পড়েন অনু। ২৯ দিন কোমায় থাকার পর ফের ধীরে ধীরে সুস্থ জীবনে ফিরে আসেন। মুঙ্গেরে বিহার স্কুল অফ যোগা যোগাসন করেন অনু। অনেকেই জানেন না অনু মনস্তত্ত্ব বিষয়ে দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সোনার পদক পেয়েছেন অনু।

    English summary
    Yesteryear Bollywood Actresses – Then and Now
    For Daily Alerts

    Oneindia - এর ব্রেকিং নিউজের জন্য
    সারাদিন ব্যাপী চটজলদি নিউজ আপডেট পান.

    Notification Settings X
    Time Settings
    Done
    Clear Notification X
    Do you want to clear all the notifications from your inbox?
    Settings X
    We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Oneindia sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Oneindia website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more