• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

অফিস ভাঙার জন্য মূল্যবান সম্পত্তি নষ্ট, বিএমসির কাছে ২ কোটি টাকার ক্ষতিপূরণের দাবি কঙ্গনার

ফের আসরে নামলেন কঙ্গনা রানাওয়াত। নিজের অপমানের প্রতিশোধ নিতে তাঁর প্রযোজনা সংস্থার অফিস ভাঙার জন্য বিএমসির কাছে ২ কোটি ক্ষতিপূরণ চেয়ে বম্বে হাইকোর্টের দ্বারস্থ কঙ্গনা। প্রসঙ্গত, বৃহনমুম্বই মিউনিসিপ্যাল কর্পোরেশনের পক্ষ থেকে অভিনেত্রীর বান্দ্রার অফিসের অবৈধ পরিকাঠামো ভেঙে দেওয়া হয়।

অফিস ভাঙার জন্য মূল্যবান সম্পত্তি নষ্ট, বিএমসির কাছে ২ কোটি টাকার ক্ষতিপূরণের দাবি কঙ্গনার

বম্বে হাইকোর্টে জমা দেওয়া সংশোধিত আবেদনে বলা হয়েছে, বিএমসি অফিসের ৪০ শতাংশ ভেঙে দিয়েছে, যেখানে ঝাড়বাতি, সোফা ও বহু দুষ্প্রাপ্য শিল্পকর্ম সহ বহুমূল্যবান সম্পত্তি নষ্ট হয়েছে এবং পুনরায় ওই সম্পত্তি ব্যবহারের জন্য তা তৈরির পদক্ষেপ করতে অন্তর্বতীকালিন তহবিলও চেয়েছেন। সংশোধিত আবেদনে এও বলা হয়েছে বিএমসির নোটিস ৯ সেপ্টেম্বরই সকাল ১০টা ৩৫ নাগাদ অভিনেত্রী খারিজ করে দেন, কিন্তু বিএমসির চূড়ান্ত নির্দেশ পাওয়ার আগেই বিএমসি আধিকারিক ও পুলিশ তাঁর অফিসের বাইরে চলে এসেছিল, যার প্রমাণ পাওয়া যায় বুধবার সকাল ১০টা ১৯ মিনিটের টুইটে।

আবেদনে বলা হয়েছে, '‌টুইটে পোস্ট করা ছবিতে স্পষ্ট দেখা যাচ্ছে যে বিএমসি আধিকারিক সহ পুলিশ অফিসার এবং বাড়ি ভাঙার সমস্ত যন্ত্রপাতি নিয়ে ভাঙার জন্য প্রস্তুত হয়েছিল। এই বাংলোটি ভাঙার জন্য বিএমসির অন্য কোনও অভিপ্রায় ছিল এবং স্বতন্ত্র কোনও উদ্দেশ্যেই এই বাংলোটি ভাঙা হয়েছে।’‌ অভিনেত্রীর আইনজীবী মারফৎ হাইকোর্টে পেশ হওয়া এই আবেদনে এও বলা হয়েছে যে কঙ্গনার আইনজীবী রিজওয়ান সিদ্দিকি আবেদনের প্রতিলিপি নিয়ে ওয়ার্ড অফিসে যান এবং গোটা বিষয়টি সেখানে জানান। প্রসঙ্গত, ওইদিন (‌৯ সেপ্টেম্বর)‌ দুপুর সাড়ে বারোটা নাগাদ শুনানি ছিল হাইকোর্টে এ সংক্রান্ত। যদিও বিএমসি আধিকারিকরা ভেতর থেকে বাংলো বন্ধ করে দেন এবং আইনজীবীর বক্তব্যকে পাত্তা না দিয়ে বাড়ি ভাঙার কাজ চালিয়ে যেতে থাকেন। ওই আবেদনে বলা হয়েছে, 'বড় অংশের অবৈধ কাঠামো ভাঙার ফলে ২ কোটি টাকার সম্পত্তি নষ্ট হয়েছে’‌। আবেদনে কঙ্গনা রানাওয়াতকে ওই ক্ষতিপূরণ পাইয়ে দেওয়ার দাবি জানানো হয়েছে। ‌

প্রসঙ্গত, বিএমসি ১০ সেপ্টেম্বর হাইকোর্টকে জানিয়েছিল যে কঙ্গনা রানাওয়াত তাঁর বান্দ্রার সম্পত্তিতে যথেষ্ট পরিবর্তন করেছেন বিএমসি অনুমোদিত নকশা ভেঙে এবং কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়াই। তাই অফিস ভাঙচুরের বিষয়টি ন্যায় সঙ্গত ও কোনও আইন না ভেঙেই হয়েছে। বিএমসি এও জানিয়েছে যে কঙ্গনার হেনস্থা করার দাবি সম্পূর্ণ ভিত্তিহান ও মিথ্যা। যদিও হাইকোর্টের পক্ষ থেকে কঙ্গনার অফিস ভাঙার বিষয়টি ২২ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত স্থগিত রাখতে বলা হয়েছে।

Positive Story : বাঁকুড়ায় শুরু হল প্লাজমা সংগ্রহের কাজ

তৃণমূল কেন হেরেছে লোকসভায়, ২০২১-এর আগে 'ফাঁস’ করে দিলেন খোদ সভাপতিই

{quiz_357}

English summary
kangana ranawat seeks 2 crore rs from bmc for demolition her office
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X