Oneindia থেকে ব্রেকিং নিউজের আপডেট পেতে

সারাদিন ধরে চটজলটি নিউজ আপডেট পান

You can manage them any time in browser settings

Demonetisation এর জের : ২৪০০টি ব্যাঙ্ক দিল সন্দেহজনক লেনদেনের রিপোর্ট

  • Posted By:
Subscribe to Oneindia News

নয়াদিল্লি, ৮ মার্চ : নোট বাতিলের পর অনেক বেশি টাকার সন্দেহজনক লেনদেন হয়েছে, এই মর্মে ২৪০০টি ব্যাঙ্ক নিজেদের রিপোর্ট জমা দিল। নোট বাতিলের ঘোষণার পরবর্তী সময় থেকে ডিসেম্বরের ৩০ তারিখ পর্যন্ত ৫০০ ও ১ হাজারের পুরনো নোটে এই সন্দেহজনক লেনদেন হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।[৩১ মার্চ পর্যন্ত বাতিল নোট জমা নেওয়ার কথা কেন রাখা হল না, কেন্দ্র ও RBIকে প্রশ্ন শীর্ষ আদালতের]

কেন্দ্র সরকারের তরফে ব্যাঙ্কগুলিকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল লেনদেন সংক্রান্ত তথ্য জানাতে। সেইমতো রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কগুলির ২৪০০ শাখা এই বিষয়ে অসঙ্গতির রিপোর্ট জমা করেছে।[এসবিআই অ্যাকাউন্টে ন্যূনতম টাকা নেই? ১ এপ্রিল থেকে জরিমানা দেওয়ার জন্য প্রস্তুত হোন!]

Demonetisation এর জের : ২৪০০টি ব্যাঙ্ক দিল সন্দেহজনক লেনদেনের রিপোর্ট

আধিকারিকেরা জানিয়েছেন, উত্তরপ্রদেশ, মধ্যপ্রদেশ, রাজস্থান, পশ্চিমবঙ্গের মতো রাজ্যে সন্দেহজনক লেনদেনের রিপোর্ট রয়েছে। অভিযোগ, আর্থিক তছরুপের ঘটনায় আমজনতার পাশাপাশি ব্যাঙ্কের কর্মীদের একাংশও জড়িত রয়েছে।[নোট বাতিলের প্রভাব পড়েনি , ভারতের আর্থিক বৃদ্ধি সবচেয়ে দ্রুত, চিন দ্বিতীয় স্থানে]

আয়করের তরফে বলা হয়েছিল, ২.৫ লক্ষ টাকার বেশি নগদে লেনদেন হলেই তাকে 'হাই ভ্যালু ট্রানজাকশন' বলে ধরে নেওয়া হবে। এর বেশি নগদে লেনদেন করলেই তাদের কাছে আয়করের চিঠি যাবে।

এক উচ্চপদস্থ সরকারি আধিকারিকের বক্তব্য, সমস্ত ব্যাঙ্ক মিলিয়ে ৭০ শতাংশের বেশি নগদ জমাকারী ২.৫ লক্ষ টাকার বেশি ব্যাঙ্কে জমা করেছেন। ফলে এদের সকলের বিষয়েই রিপোর্ট ব্যাঙ্কের ডেটাবেসে জমা হয়েছে।[Demonetisation এর জের শেষ, এবার নগদে লেনদেনে লেভি বসাবে ব্যাঙ্ক]

এর পাশাপাশি কেন্দ্রীয় ভিজিল্যান্স কমিশন ও ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাঙ্কও সরকারি-বেসরকারি সমস্ত ব্যাঙ্কগুলির উপরে নিজেদের নজরদারি বজায় রেখেছে। এর পাশাপাশি আয়কর দফতরও নিজেদের অনুসন্ধান জারি রেখেছে।

English summary
As many as 2,400 public sector bank branches have reported suspicious high-value transactions after the government announced demonetisation of 500 and 1000-rupee bills, officials have said.
Please Wait while comments are loading...