Tap to Read ➤

বলিউডের অনস্ক্রিন হিট জুটি নীতু কাপুর ও ঋষি কাপুরের লাভস্টোরি কেমন ছিল

নীতু সিং ও ঋষি কাপুরের বড় পর্দায় রসায়নের পাশাপাশি তাঁদের বাস্তব জীবনের প্রেমও ছিল দুষ্টু–মিষ্টি। আসুন তাঁদের প্রেমের কাহিনী জেনে নেওয়া যাক।
নীতু সিংয়ের প্রতি ঋষি কাপুরের ভালোবাসার কথা প্রকাশ্যে আসতেই অভিনেতা বহু মেয়ের মন ভেঙে দিয়েছিলেন।
মাত্র ১৪ বছর বয়সেই নীতু ডেট করতে শুরু করেন ঋষি কাপুরের সঙ্গে। তাঁদের একসঙ্গে প্রথম সিনেমা ‘‌জহরিলা ইনসান’‌ (‌১৯৭৬)‌।
এই জুটির এক নজরে ভালোবাসা নয়। শুটিং সেটে সবচেয়ে বিরক্ত করত যে ছেলেটি নীতু তাঁর প্রেমেই পড়লেন।
নীতুর মা রাজি এই সম্পর্ক নিয়ে মোটেও খুশি ছিলেন না। যখনই ঋষি কাপুর নীতুকে নিয়ে ডেটে যেতেন তাঁর মা রাজিও যেতেন তাঁদের সঙ্গে।
যখন ঋষি কাপুর নীতু সিংকে প্রেমের প্রস্তাব দেন তখন নীতু খুব একটা খুশি হননি। তিনি তাঁর মাকে ছেড়ে যেতে রাজি ছিলেন না।
দিল্লিতে এক বিয়ের অনুষ্ঠানে কাপুর পরিবার ঋষি ও নীতুর বাগদান হওয়ার কথা ঘোষণা করেন
কাপুর পরিবারে বউ হয়ে আসার পর নীতু সিনেমা জগত থেকে দূরে চলে যান
নীতু তাঁর সই করা সমস্ত সিনেমার অর্থ ফেরত দিয়ে দেন এবং ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিকে বিদায় জানান
শোনা গিয়েছিল ১৯৯০ সালে ঋষি কাপুর মদ্যপ হয়ে যান এবং নীতু সিং গার্হস্থ্য হিসার অভিযোগ করেন, কিন্তু পরে সেটা গুজব বলে জানা যায়।
নীতু কাপুর ও ঋষি কাপুর জীবনের সব চড়াই–উৎরাই একসঙ্গে পেরিয়ে একে–অপরের পাশে দাঁড়িয়েছেন।
২০১৮ সালে ঋষি কাপুরের ক্যান্সার ধরা পড়ে এবং স্ত্রী নীতুকে নিয়ে তিনি আমেরিকায় চিকিৎ‌সার জন্য যান
ঋষির ক্যান্সারের সময় নীতু তাঁর পাশে শক্ত স্তম্ভের মতো দাঁড়িয়েছিলেন।
২০২০ সালের ২৯ এপ্রিল ঋষি কাপুর অসুস্থ বোধ করায় স্যার এইচএন রিল্যায়েন্স ফাউন্ডেশন হাসপাতালে ভর্তি হন
৩০ এপ্রিল ৬৭ বছর বয়সে স্ত্রী নীতু সিংকে একা রেখে চিরতরে হারিয়ে যান ঋষি কাপুর। শেষ হয় তাঁদের লাভস্টোরি।