Tap to Read ➤

অবসাদ থেকে মুক্তি পাবেন কী করে?

কীভাবে মনকে শক্ত করে অবসাদের বিরুদ্ধে লড়াই করবেন জানুন
Autri Sengupta
করোনা মহামারীর পর অনেকেই অবসাদে ভুগছেন। তবে মন খারাপ মানেই অবসাদ নয়।
মন খারাপ যখন দীর্ঘদিন ধরে থাকে, মনের মধ্যে অপরাধ বোধ জন্ম নেয়, পছন্দের কাজে মন বসে না, বুঝবেন ডিপ্রেশনে আছেন।
 শুরুতেই ডিপ্রেশন বুঝতে পারলে, চিকিৎসকের প্রয়োজন হয় না।
দীর্ঘদিন ধরে একটানা মন খারাপ হলে, কাছের বন্ধুদের সঙ্গে কথা বলুন। নিজের সমস্যার কথা তুলে ধরুন।
 ডিপ্রেশনের জন্য অনেক সময় প্যানিক অ্যাটাক হয়, এক্ষেত্রে দিনের কোনও একটা সময় হাঁটা প্যানিক অ্যাটাক বা ডিপ্রেশনের জন্য অত্যন্ত উপকারী।
অবসাদের সময় পছন্দের কাজ করতে ভালো লাগে না। জোর করে একটু সময়ের জন্য হলেও পছন্দের কাজগুলো করতে হবে।
অনেক সময় জীবনযাত্রার প্রভাবের জেরে ডিপ্রেশন আসে। সেই ক্ষেত্রে সকালে ঘুম থেকে ওঠা, ব্যায়াম করার অভ্যাস তৈরি করতে হবে।
কম ঘুম অবসাদের মাত্রা বাড়িয়ে দেয়। দিনে কমপক্ষে ৭ ঘণ্টা ঘুম নিশ্চিত করতে হবে।
অবসাদের সময় ধুমপান বা মদ্য পান বা কফি পানের থেকে নিজেকে বিরত রাখতে হবে। এগুলো অবসাদকে আরও বাড়িয়ে দেয়।
অবসাদের সময় ঘন ঘন প্যানিক অ্যাটাক হতে পারে, অবসাদের মাত্রা বেড়ে গেলে নার্ভাস ব্রেক ডাউনের সম্ভাবনা থাকে।
অবসাদের সময় মৃত্যু চিন্তা অস্থির করে দেয়। এই ধরনের উপসর্গ দেখা দিলে দ্রুত চিকিৎসকের শরনাপন্ন হতে হবে।
অবসাদে থাকা কোনও ব্যক্তিকে সহানুভূতি দেখানো প্রয়োজন, পাশে থাকার প্রয়োজন।
 অবসাদে থাকা মানুষের মধ্যে একাকীত্ব বেড়ে যায়, তাই প্রিয় কোনও জন অবসাদে ভুগলে পাশে থাকুন। তাঁকে সময় দিন।