Tap to Read ➤

হাতে দিয়ে বরফ ছুঁতে চান, তাহলে শীতে এই জায়গাগুলি ঘুরে আসুন

এই জায়গাগুলিতে গেলে কী কী করবেন জেনে নিন আগেভাগে
paramita das
প্রকৃতি প্রেমীরা ভ্রমণের টানে ঠিক বেরিয়ে পড়েন শীতকালে। কারণ শীতে ঘোরার মজাটাই আলাদা। তবে এই শীতে আপনি কোথায় যাবেন ভাবছেন, চিন্তা নেই আপনার জন্য রইল শীতের সেরা ঘোরার জায়গার ঠিকানা।
উত্তরখণ্ডের আউলি জায়গা সম্পর্কে সকলেই জানেন। যদি আপনি স্কি করতে ভালোবাসেন বা চান তাহলে অবশ্যই শীতকালের আউলিতে ঘুরে আসুন। এখানে চারিদিকে স্নোফল হয়। পাহাড়, গাছ, ঘরবাড়িতে বরফ পরে থাকতে দেখা যায়।
অরুণাচল প্রদেশের তাওয়াং , গ্রীষ্মকালে এখানে গেলে আপনি সবুজ চারনভূমি দেখতে পাবেন। যেটি খুব সুন্দর। তবে শীতকালে গেলে এখানে তুষারপাত দেখা যায়। চারদিক ভরে থাকে বরফে।
কাশ্মীরের গুলমার্গ ভারতের অত্যন্ত সুন্দর জায়গা। এখানে গেলে স্কি করা যায়। এখানে শীতকালে চারিদিক বরফে ঢাকা থাকে। মাঝেমধ্যে বরফে ঢাকা থাকার দরুন এখানে স্কুল-কলেজে বন্ধ থাকে।
হিমাচল প্রদেশের মানালি, আপনি মানালিতে শীতকালে ঘুরতে যান। রাস্তার দুপাশে দেখতে পাবেন বরফ। শুধু তাই নয় এখানকার প্রাকৃতিক পরিবেশ দেখে আপনার মন মুগ্ধ হয়ে যাবে।
সিকিমের জিরো পয়েন্ট, শীতকালে এখানে প্রচন্ড ঠান্ডা পড়ে। এমনকি তুষারপাতও হয় বটে। ইয়াঙ্থাং ভ্যালি থেকে একটু সামনেই এই সিকিমের জিরো পয়েন্ট।  তবে এখানে গেলে অবশ্যই ট্রেকিং করবেন কিন্তু।
উত্তরাখণ্ডের মুসৌরি, সাধারণত এই মুসৌরি জায়গায় ভ্রমণপ্রেমীরা নভেম্বর থেকে মার্চ মাসের মধ্যেই ঘুরতে যান। কারণ এই সময় এখানে তুষারপাত হয়। আর এই তুষারপাতের কারণে পুরো ল্যান্ডস্কেপ আপনি খুব ভালোভাবে দেখতে পাবেন।
উত্তরাখণ্ডের ডালহৌসি, শীতকালে ঘুরতে গেলে অবশ্যই উত্তরাখণ্ডের ডালহৌসি ঘুরতে যাবেন। এবার শীতে আপনার হানিমুনের গন্তব্যস্থল হোক এই জায়গা। এখানকার সৌন্দর্য খুব সুন্দর।
হিমাচল প্রদেশের সিমলা, শীতকালে এখানে তুষারপাত হয়। তাই এটি দেখার জন্য অনেকেই এখানে আসেন। শীতকালে এখানে গেলে আপনি চড়তে পারেন টয়ট্রেন
কাশ্মীরের পহেলগাঁও, শীতকালে বরফে ঢাকা পেহেলগাঁও যেন আরোও রোমান্টিক হয়ে ওঠে। তাই এই শীতেই নিজের জীবনসঙ্গিনীকে নিয়ে ঘুরে আসুন।