Tap to Read ➤

ব্ল্যাক হোল রয়েছে পৃথিবীর ছায়াপথেও, কেমন সেই ছবি

ব্ল্যাকহোল এবং আকাশগঙ্গার সেই মায়াবী রহস্য মনমোহক নিঃসন্দেহে
সূর্যের ভরের ১০০ গুণেরও বেশি অন্ধকার বা শূন্যতা ধরা পড়েছিল ২০১৯-এ।
ইভেন্ট হরাইজন টেলিস্কোপে উজ্জ্বল আলোকিত অঞ্চলের কেন্দ্রে ব্ল্যাক হোলের ছবি।
প্রতিটি ছায়াপথে উপস্থিত সবচেয়ে বড় এবং সবচেয়ে খারাপ এক ব্ল্যাক হোল।
ব্ল্যাকহোল ২৭ হাজার আলোকবর্ষ দূরে মিল্কিওয়ে গ্যালাক্সির কেন্দ্রে অবস্থিত।
ব্ল্যাক হোল হল মহাকাশের এমন একটি জায়গা যেখানে মাধ্যাকর্ষণ অতি শক্তিশালী।
ব্ল্যাক হোলের মাধ্যাকর্ষণ অতি শক্তিশালী হওয়ায় আলোও প্রবেশ করতে পারে না।
ইভেন্ট হরাইজন টেলিস্কোপ হল সারা বিশ্বের রেডিও টেলিস্কোপগুলির যৌথ নেটওয়ার্ক।
ব্ল্যাক হোলের আশেপাশে থাকা গ্যাসের কারণে, তা আলোর মতো দ্রুত গতিতে চলে।
বিশ্বের ৮০টি প্রতিষ্ঠানের ৩০০ জন গবেষকের সহযোগিতা ব্ল্যাক হোল আবিষ্কার।
দুটি ব্ল্যাক হোল একটি বৃহৎ প্রান্তে, একটি মহাবিশ্বের সুপারম্যাসিভ ব্ল্যাক হোলের ছোট প্রান্তে।
ব্ল্যাক হোলের শক্তিশালী মাধ্যাকর্ষণ, আমাদের সূর্যের চেয়ে চার মিলিয়ন গুণ বেশি।