• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts
Oneindia App Download

উৎক্ষেপণের পরেই বিপত্তি, শেষ ধাপে পৌঁছেই ডেটা লস ক্ষুদ্রতম রকেটে

উৎক্ষেপণের পরেই বিপত্তি, শেষ ধাপে পৌঁছেই ডেটা লস ক্ষুদ্রতম রকেটে
Google Oneindia Bengali News

উৎক্ষেপনের পরেই বিপত্তি। শেষ পর্যায়ে গিয়েই পৌঁছেই ডেটা লস ইসরোর ক্ষুদ্রতম রকেটের। দুটি উপগ্রহ রয়েছে রকেটটিতে। এইমুহুর্তে বিজ্ঞানীরা পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার চেষ্টা করছেন। স্বাধীনতা দিবসের প্রাক্কালে ক্ষুদ্রতম রকেট মহাকাশে পাঠিয়ে রেকর্ড গড়েছে ইসরো।

উৎক্ষেপণের পরেই বিপত্তি, শেষ ধাপে পৌঁছেই ডেটা লস ক্ষুদ্রতম রকেটে

স্বাধীনতার ৭৫ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে বড় পদক্ষেপ করেছিল ইসরো। দেশের প্রথম ক্ষুদ্রতম রকেট উৎক্ষেপন করা হয় রবিবার সকালে। কিন্তু সেই আনন্দ বেশিক্ষণ স্থায়ী হল না। শেষ পর্যায়ে পৌঁছতেই রকেটে দেখা গিয়েছে গলদ। দুটি উপগ্রহ রয়েছে সেই রকেটে। সূত্রের খবর রকেটটিতে ডেটা লস দেখা দিয়েছে। ইসরোর বিজ্ঞানীরা ইতিমধ্যেই কাজ করতে শুরু করে দিয়েছেন। ১২০০ টনের এই রকেট লঞ্চারটি শেষ পর্যন্ত দুটি উপগ্রহ সফল ভাবে প্রতিস্থাপন করতে সক্ষম হবে তো।

যতক্ষণ না সেই সংকট মিটছে ততক্ষণ এই মিশন সফল বলা যাচ্ছে না। এদিকে আজ সকাল থেকেই এই নিয়ে উৎসাহের শেষ ছিল না গোটা দেশে। দেশের প্রথম ক্ষুদ্রতম রকেট সাফল্যের সঙ্গে উৎক্ষেপন করেছিল ইসরো। কিন্তু উৎক্ষেপনের শেষ পর্যায়ে গিয়ে বেশ কিছু তথ্য হারিয়ে যাওয়ায় বিপদের আভাস পাচ্ছেন বিজ্ঞানীরা।

শনিবার মধ্য রাত থেকে শুরু হয়েছিল কাউন্টডাউন। রাত ২টো থেকে ধাপে ধাপে শুরু হয় উৎক্ষেপন প্রক্রিয়া। দেশের এই ক্ষুদ্রতম স্যাটালাইট লঞ্চারে রয়েছে একটি স্টুডেন্ট স্যাটেলাইট ও একটি আর্থ অবজারভেশন স্যাটেলাইট। স্টুডেন্ট স্যাটেলাইটটি স্কুল পড়ুয়াদের তৈরি। স্পেস কিডজ় ইন্ডিয়া নামে একটি মহাকাশ গবেষণা সংস্থার উদ্যোগে ৭৫০ স্কুল পড়ুয়ারা মিলে এই স্টুডেন্ট স্যাটেলাইটটি তৈরি করেছে। আজাদিস্যাট নাম দেওয়া হয়েছে উপগ্রহটির। স্বাধীনতার ৭৫ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে এটি তৈরি করা হয়। রকেটটি উৎক্ষেপনের সময় সেই সব স্কুলপড়ুয়ারা উপস্থিত ছিলেন ইসরোতে।

শ্রীহরিকোটা উৎক্ষেপন কেন্দ্র থেকে এই রকেটটি উৎক্ষেপন করা হয়। ইসরোর চেয়ারম্যান জানিয়েছেন শেষ মুহুর্তে বেশ কিছু তথ্য হারিয়ে যাওয়ায় চাপ রয়েছে। কাজেই এই উৎক্ষেপনকে এখনই সফল বলতে নারাজ তিনি। কাজেই এই উৎক্ষেপনকে এখনই সফল বলতে নারাজ তিনি। এর আগে চন্দ্রযান বিফলে গিয়েছে ইসরোর। সফল উৎক্ষেপনের পরেও ঠিক চাঁদের দক্ষিণ পিঠে অবতরণের শেষ মুহুর্তে কক্ষপথ থেকে ছিটকে বেরিয়ে গিয়েছিল চন্দ্রযান। তারপরে আর তার হদিশ মেলেনি। এখনও মহাকাশে ঘোরাফেরা করছে হয়তো। কিন্তু শেষ পর্যায়ের এই ব্যর্থতা সামলে উঠকে বেশ সময় লেগেছিল ইসরোর। ফের আরেকটি রকেট এই গলদ ধরা পড়ায় রীতিময় সংশয় তৈরি হয়েছে।

দেশের শীর্ষ বিজ্ঞান সংস্থা CSIR-র প্রধান হলেন মহিলা বিজ্ঞানী দেশের শীর্ষ বিজ্ঞান সংস্থা CSIR-র প্রধান হলেন মহিলা বিজ্ঞানী

English summary
Smalest Rocket of ISRO face Data loss in final Phase
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X