• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

'বাংলার দরজা খোলা'! দিল্লি হিংসায় ঘরছাড়াদের প্রতি বার্তা দিয়ে তৃণমূলকে কোন নির্দেশ জননেত্রী মমতার

  • |

'আমি নিজে দু'মুঠো ভাত খেতে পেলে , তাঁদের একমুঠো ভাত নিশ্চয়ই দেব'.. এমন বার্তাই উঠে এসেছে জননেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মুখ থেকে। এদিন 'বাংলার গর্ব মমতা' কর্মসূচির উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে এভাবেই বক্তব্য রাখেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। দিল্লির হিংসায় যাঁরা আতঙ্কের জেরে ঘর ছাড়া হয়েছেন , তাঁদের জন্য বাংলার দরজা খোলা বলে দাবি করেন মমতা। আর এই প্রেক্ষিতে তৃণমূল নেতা ডেরেক 'ও ব্রায়ানকে মঞ্চ থেকেই একাধিক নির্দেশ দেন তিনি।

জননেত্রীর বার্তা

জননেত্রীর বার্তা

দিল্লি হিংসায় যাঁরা গৃহহীন , সন্তান হীন, আতঙ্কে যাঁদের দিন কাটছে, তাঁদের জন্য বাংলার দরজা খোলা বলে এদিন বার্তা দেন জননেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন, 'দিল্লির যাঁরা বিতাড়িত হয়েছেন, ঘরবাড়ি ছেড়ে পালিয়ে গিয়েছেন হাজার হাজর মাানুষ..আজ তাঁরা গৃহহারা, সন্তান হারা, খাদ্য হারা, সন্ত্বান হারা, তাঁদের জন্য আমাদের কিছু করবার প্রয়োজন রয়েছে।'

তহবিল গঠনের নির্দেশ ডেরেকদের

তহবিল গঠনের নির্দেশ ডেরেকদের

এদিন সভা মঞ্চ ছেকেই বাংলার তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানান যে , তৃণমূল কংগ্রেস এবার দিল্লি হিংসার দুঃস্থদের সাহায্যের জন্য তহবিল গঠন করছে। এর দায়িত্ব তিনি ডেরেক ও ব্রায়নকে দেন। ডেরেক যাতে দিল্লি ফিরে গিয়ে এই মর্মে দায়িত্ব নিতে পারেন, তার বার্তা দেন মমতা।

'পাঁচ পয়সা দিতে পারলেও দেব..'

'পাঁচ পয়সা দিতে পারলেও দেব..'

এদিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, 'পাঁচ পয়সা দিতে পারলেও দেব, পঞ্চাশ পয়সা দিতে পারলেও দেব...আমি ভিক্ষা চাইনা কারো কাছে। আমি নিজে দু'মুঠো ভাত খেতে পেলে , আমি এক মুঠো ভাত তাঁদের দেব। নিশ্চয়ই দেব। '

'আমাদের দরজা খোলা'

'আমাদের দরজা খোলা'

এদিন কেন্দ্রের বিরুদ্ধে সুর চড়া করে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, যাঁরা আতঙ্কে দিল্লি ছাড়ছেন 'তাঁদের বলি.. আমাদের দরজা খোলা রয়েছে'। মমতা বলেন, 'যাঁরা মানুষকে আশ্রয়হীন করতে পারেন,তাঁরা মানুষকে আশ্রয় দিতে পারেন না.. সেক্ষমতা নেই। 'তিনি বলেন, 'এই বাংলা সেই বাংলা যাঁরা মায়ের আঁচল দিয়ে সকলকে ভালোবাসে, চোখের জল মুছিয়ে দেয়..।'

বাঙালিদের তাড়িয়ে দেওয়ার প্রসঙ্গ

বাঙালিদের তাড়িয়ে দেওয়ার প্রসঙ্গ

এদিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অভিযোগ তোলেন যে , বিভিন্ন বিজেপি শাসিত রাজ্যে বাঙালিদের তাড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে। মালদা বা মুর্শিদাবাদ থেকে ভিন রাজ্যে যাঁরা কর্মরত ,তাঁদের বহুজনরেই 'রক্তমাখা মৃতদেহ' বাংলায় এসেছে। এবিষয়ে তিনি বলেন,'যোগীভাই তো অনেককে (উত্তরপ্রদেশ) নিয়ে গিয়ে গড়বড় করেছেন। সেখানে তো একটি তদন্ত হতে হবে।.. ' তিনি বলেন , বিহারীদেরও একইভাবে তাঁড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে।

'কেন গণহত্যা বলছি.. কারণ এটা...'

'কেন গণহত্যা বলছি.. কারণ এটা...'

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এদিন দাবি করেন যে, দিল্লির ঘটনা আসলে একটি সুপরিকল্পিত গণহত্যা। আর তার প্রেক্ষিতে মমতার বার্তা 'আমি কেন গণহত্যা বলছি?.. কারণ এটা রাষ্ট্রের তরফে করানো হয়েছে।' তিনি অভিযোগ তেলেন যে 'পুলিশ দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে দেখল ..' এরপরই মমতার বার্তা , এক পুলিশ অফিসার ও এক আইবি অফিসারের মৃত্যুতে তিনিও শোকস্তব্ধ।

'কোথায় দাঁড়িয়ে আছি আমরা?'

'কোথায় দাঁড়িয়ে আছি আমরা?'

মমতা বলেন, দিল্লিতে যে চেহারা দেখা দিয়েছে তা বিজেপিকে ভোট দানের ফসল। ত্রিপুরা থেকে অসম যেখানেই বিজেপি সরকার রয়েছে সেখানেই এমন অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতি উপহার দিয়েছে বিজেপি। বিভিন্ন রাজ্যেই এমনটাই উঠে আসছে । পুরভোটকে নজরে রেখে দিল্লি হিংসা নিয়ে এমনভাবেই বিজেপির বিরুদ্ধে সোচ্চার হন মমতা।

'গুজরাত মডেল নিয়ে এসেছে'

'গুজরাত মডেল নিয়ে এসেছে'

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এদিন বিজেপির বিরুদ্ধে সুর চড়িয়ে অভিযোগ তোলেন , ' ওঁরা গুজরাত মডেল নিয়ে এসেছে। ' তাঁর দাবি, 'দিল্লিতে করে এরা যদি পার পেয়ে যায়..' আর তারপরই তিনি গুজরাত দাঙ্গার প্রসঙ্গ উত্থাপন করেন। মমতা বলেন, ওই গুজরাত মডেলই উত্তরপ্রদেশ ও দিল্লিতে লাগু হয়েছে বলে দাবি করেন মমতা।

লোকসভার মতোই বিধানসভাতেও তৃণমূলের টার্গেট ফিক্স, মমতা জানালেন চোখে চোখ রেখে লড়াইয়ের কথা

English summary
West Bengal welcomes who suffered in Delhi violence , says Mamata .
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X