• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

কে কোথায় এগিয়ে, একুশের নির্বাচনের আগে কোচবিহারের সাত কেন্দ্রের হালহকিকৎ

একুশের বিধানসভা ভোট শুধু মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হ্যাটট্রিকের ভোট নয়, এবারের ভোট প্রেস্টিজ ফাইটও। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের তৃণমূল কংগ্রেস এবং মোদী-শাহের বিজেপির মধ্যে এবার লড়াই বাংলার বুকে ভিন্ন মাত্রা পেয়েছে। বিশেষ করে ২০১৯-এর নির্বাচনে বিজেপির কাছে তৃণমূল ধাক্কা খাওয়ার পর একুশের বিধানসভা নির্বাচনের তাৎপর্য বেড়ে গিয়েছে অনেকটাই।

সর্বশক্তি নিয়ে ডায়মন্ড হারবারে থাবা বসাতে উদ্যত বিজেপি, দুর্গ রক্ষার চ্যালেঞ্জ অভিষেকের

তৃণমূলের প্রাক্তনী মুকুলই বিজেপির প্রধান স্থপতি, মমতার চিন্তা কমাতে পারছেন না পিকেও

এবার কে জিতবে? পরিবর্তন বনাম প্রত্যাবর্তন

এবার কে জিতবে? পরিবর্তন বনাম প্রত্যাবর্তন

এবার কে জিতবে? তৃণমূলই বাংলায় সরকার গড়বে? নাকি ১০ বছর পর ফের হবে পরিবর্তন! বিজেপি বাংলায় প্রকৃত পরিবর্তনের দাবি নিয়ে ময়দানে হাজির। তৃণমূলের লক্ষ্য মমতার প্রত্যাবর্তন এবং হ্যাটট্রিক। এই অবস্থায় দেখে নেওয়া যাক কোচবিহার লোকসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত সাতটি বিধানসভা কেন্দ্রের হালহকিকৎ কী!

সিঙ্গুরের কংক্রিটের জঙ্গলে ফেরেনি সবুজ! শিল্প বনাম কৃষি একুশের ভোট-বাজারে

কোচবিহারের অন্তর্গত সাত কেন্দ্র ২০১৬-য়

কোচবিহারের অন্তর্গত সাত কেন্দ্র ২০১৬-য়

কোচবিহার লোকসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত সাতটি বিধানসভা হল- মাথাভাঙা, কোচবিহার উত্তর, কোচবিহার দক্ষিণ, শীতলকুচি, সিতাই, দিনহাটা, নাটাবাড়ি। এই সাতটি কেন্দ্রের মধ্যে ২০১৬-য় ৬টি কেন্দ্র জয়ী হয়েছিল তৃণমূল কংগ্রেস। শুধুমাত্র কোচবিহার উত্তর গিয়েছিল ফরওয়ার্ড ব্লকের দখলে। কিন্তু ২০১৯-এ পাশা উল্টে গিয়েছিল।

পিকের কৌশলে এগিয়ে মমতা! একুশের ভোট প্রচারে হাতিয়ার যখন সোশ্যাল মিডিয়া

কোচবিহারের অন্তর্গত সাত কেন্দ্র ২০১৯-এর নিরিখে

কোচবিহারের অন্তর্গত সাত কেন্দ্র ২০১৯-এর নিরিখে

২০১৯-এর নির্বাচনে বিজেপি পাঁচটি কেন্দ্রে এগিয়েছিল। তৃণমূলকে টেক্কা দিয়ে বিজেপি লিড নিয়েছিল মাথাভাঙা, কোচবিহার উত্তর, কোচবিহার দক্ষিণ, দিনহাটা ও নাটাবাড়িতে। তৃণমূল এগিয়েছিল দুটি কেন্দ্রে। শীতলকুটি আর সিতাইয়ে তৃণমূল এগিয়েছিলেন বিজেপির থেকে। ফলে ২০১৯-এ নির্বাচনে কোচবিহারে পর্যাপ্ত প্রাধান্য নিয়ে জিতেছিলেন বিজেপির নিশীথ প্রামাণিক।

বিজেপির সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন শোভন-বৈশাখীর! একুশে ভোটের মুখে মহাধাক্কা পদ্মশিবিরে

কেন্দ্র : মাথাভাঙা

কেন্দ্র : মাথাভাঙা

২০১৬-য় মাথাভাঙা কেন্দ্রে তৃণমূলের বিনয়কৃষ্ণ বর্মন জয়ী হয়েছিলেন সিপিএমের খগেনচন্দ্র বর্মনকে ৩২ হাজার ভোটে হারিয়ে। কিন্তু ২০১৯-এ এই কেন্দ্রে ২০ হাজারেরও বেশি ভোটে এগিয়েছিলেন বিজেপির নিশীথ প্রামাণিক। তৃণমূল এই কেন্দ্রে পিছিয়ে পড়েছিল। তাই একুশের ভোটের লড়াইয়ে কে কাকে টেক্কা দিতে পারে, তার দিকে তাকিয়ে রাজনৈতিক মহল।

শুভেন্দু যা বলবে তা-ই করবেন তৃণমূলের শিশির! মোদীর সফরের আগে জল্পনা তুঙ্গে

কেন্দ্র : কোচবিহার উত্তর

কেন্দ্র : কোচবিহার উত্তর

কোচবিহার উত্তর কেন্দ্রে ২০১৬-র নির্বাচনে তৃণমূলের পরিমল বর্মনকে হারিয়ে জয়ী হয়েছিলেন ফরওয়ার্ড ব্লকের নগেন্দ্রনাথ রায়। ১২ হাজারেরও বেশি ভোটে জয়ী হয়েছিলেন বামপ্রার্থী। কিন্তু ২০১৯-এ এই কেন্দ্র থেকে ২৭ হাজারেরও বেশি ভোটের লিড নেন বিজেপির নিশীথ প্রামাণিক। তৃণমূল এই কেন্দ্রে পিছিয়ে পড়ে বিজেপির কাছে। একুশের ভোটের লড়াই তাই জোরদার।

মুকুল-শুভেন্দুদের বিরুদ্ধে জিততে মমতা-পিকের পঞ্চবাণ, একুশের ভোটে তৈরি রণকৌশল

কেন্দ্র : কোচবিহার দক্ষিণ

কেন্দ্র : কোচবিহার দক্ষিণ

২০১৬-র নির্বাচনে কোচবিহার দক্ষিণ কেন্দ্রে তৃণমূলের মিহির গোস্বামী ফরওয়ার্ড ব্লকের দেবাশিস বণিককে ১৮ হাজার ভোটে হারিয়ে দেন। তৃণমূলের বিধায়ক মিহির গোস্বামী বর্তমানে দলবদলে বিজেপিতে। তার আগে ২০১৯-এ এই কেন্দ্র থেকে ৬ হাজারেরও বেশি ভোটের লিড নিয়েছিলেন বিজেপির নিশীথ প্রামাণিক। তৃণমূল এই কেন্দ্রে পিছিয়ে পড়া বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ।

কেন্দ্র : শীতলকুচি

কেন্দ্র : শীতলকুচি

২০১৬-র নির্বাচনে শীতলকুচিতে জয়ী হন তৃণমূলের হিতেন বর্মন। তিনি সিপিএমের নমদীপ্তি অধিকারীকে ১৫ হাজারেরও বেশি ভোটে হারিয়ে দেন। এরপর ২০১৯-এ এই কেন্দ্র থেকে মাত্র ১ হাজার ভোটে লিড নিয়েছিলেন তৃণমূলের পরেশ অধিকারী। এই কেন্দ্রে তৃণমূলের ঘাড়ে বিজেপি নিশ্বাস ফেলছে। একুশেও লড়াই জোরদার এই কেন্দ্রে।

কেন্দ্র : শীতলকুচি

কেন্দ্র : শীতলকুচি

২০১৬-য় সিতাই কেন্দ্র থেকে জয়ী হন তৃণমূলের জগদীশচন্দ্র বর্মা বসুনিয়া। তিনি কংগ্রেসের কেশবচন্দ্র রায়কে ২৫ হাজারেরও বেশি ভোটে হারিয়ে দেন। এরপর ২০১৯-এ এই কেন্দ্র থেকে প্রায় ৩৫ হাজার ভোটে লিড নিয়েছিলেন তৃণমূলের পরেশ অধিকারী। এই কেন্দ্রে বিজেপির নিশীথ প্রামাণিক বেশ পিছিয়ে পড়েছিলেন। একুশের নির্বাচনে অগ্রগমন ধরে রাখতে বদ্ধপরিকর তৃণমূল।

কেন্দ্র : দিনহাটা

কেন্দ্র : দিনহাটা

দিনহাটা কেন্দ্র থেকে ২০১৬-র নির্বাচনে জয়ী হন তৃণমূলের উদয়ন গুহ। তিনি ফরওয়ার্ড ব্লকের অক্ষয় ঠাকুরকে ২১ হাজারেরও বেশি ভোটে হারিয়ে দেন। এরপর ২০১৯-এ এই কেন্দ্র থেকে প্রায় সাড়ে ১৫ হাজার ভোটে লিড নিয়েছিলেন বিজেপির নিশীথ প্রামাণিক। ফলে এই কেন্দ্রেও তৃণমূল-বিজেপির লড়াই তুল্যমূল্য হওয়ার সম্ভাবনা ২০২১-এ।

কেন্দ্র : নাটাবাড়ি

কেন্দ্র : নাটাবাড়ি

নাটাবাড়ি কেন্দ্র থেকে ২০১৬-র নির্বাচনে জয়ী হন তৃণমূলের রবীন্দ্রনাথ ঘোষ। তিনি সিপিএমের তমসের আলিকে ১৬ হাজারেরও বেশি ভোটে হারিয়ে দেন। এরপর ২০১৯-এ এই কেন্দ্র থেকে ১৮ হাজারেরও বেশি ভোটে লিড নেন বিজেপির নিশীথ প্রামাণিক। ফলে এই কেন্দ্রেও তৃণমূল-বিজেপির লড়াই তুল্যমূল্য হওয়ার সম্ভাবনা ২০২১-এ।

English summary
West Bengal Assembly Election 2021: TMC and BJP are in neck to neck fight in Coochbehar’s seven seats.
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X