• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

রাহুল সিনহাকে ফোন তৃণমূল কংগ্রেসের দুই ‘সম্মানীয়’ নেতার! কী কথা হল জানালেন নিজেই

বিজেপিতে ব্রাত্য হয়েই জল্পনা বাড়িয়েছিলেন প্রাক্তন কেন্দ্রীয় সম্পাদক রাহুল সিনহা। ১০-১২ দিনের মধ্যেই সিদ্ধান্ত জানানোর কথা ছিল তাঁর। অবশেষে তিনি ধামাকা দিয়েই দিলেন। রাহুল নিজেই জানালেন, তৃণমূলের দুই নেতা তাঁকে ফোন করেছিলেন। দুজনকেই সম্মানীয় নেতা বলে সম্বোধন করে তিনি জানালেন কী কথা হল তাঁদের মধ্যে।

অবশেষে চরম পন্থা গ্রহণ করলেন রাহুল সিনহা

অবশেষে চরম পন্থা গ্রহণ করলেন রাহুল সিনহা

বিজেপিতে সদ্য কেন্দ্রীয় সম্পাদকের পদ হারিয়ে্ছেন রাহুল সিনহা। মুকুল ঘনিষ্ঠ অনুপম হাজরা সেই পদে বসেছেন। তারপরই বিস্ফোরক মন্তব্যে জবাব দিয়েছিলেন বিজেপিকে। নিয়েছিলেন সময়ও। বিজেপি নেতৃত্বের ডাকে সাড়া দিয়ে এরপর বৈঠকে গিয়েও ফল না মেলায় চরম পন্থা গ্রহণ করলেন ৪০ বছর বিজেপির সেবা করা এই নেতা।

আগামী দিনে আপনার কী ভাবনা? ফোন রাহুলকে

আগামী দিনে আপনার কী ভাবনা? ফোন রাহুলকে

রাহুল সিনহা জানান, ‘তৃণমূলের দুই সম্মানীয় নেতা তাঁকে ফোন করেছিলেন। তাঁদের সঙ্গে আমার কথা হয়েছে। তৃণমূলের দুই নেতা তাঁর কাছে জানতে চেয়েছিলেন, কেন্দ্রীয় সম্পাদকের পদ হারানোর পর আগামী দিনে আপনার কী ভাবনা? নিছকই সৌজন্য ফোন। অনেকেই ফোন করেছিলেন। কথা হয়েছে।'

বিজেপিতে মোক্ষম ধাক্কা খেয়ে পাল্টা রাহুলের

বিজেপিতে মোক্ষম ধাক্কা খেয়ে পাল্টা রাহুলের

রাহুল সিনহা তাঁর এই স্বীকারোক্তিতেই জল্পনা বাড়িয়ে দিলেন। তবে কি তিনি একুশের নির্বাচনের আগে তৃণমূল-মুখী হচ্ছেন, সেই আলোচনা ইতিমধ্যে শুরু হয়ে গিয়েছে। বিজেপিতে মোক্ষম ধাক্কা খেয়ে তিনি যে পাল্টা দিতে পারেন, তা বুঝিয়ে দিলেন রাহুল। সেই সঙ্গে বিতর্ক এড়াতে তিনি বলেলে, অন্য দলের নেতারাও তাঁকে ফোন করেছিলেন।

রাহুলের নিঃসংকোচ স্বীকারোক্তি, বার্তা বিজেপিকে

রাহুলের নিঃসংকোচ স্বীকারোক্তি, বার্তা বিজেপিকে

বিজেপি রাহুল নিঃসংকোচেই বলেন, তৃণমূলের দুই সম্মানীয় নেতা তাঁকে ফোন করেছিলেন। পৃথক-পৃথকভাবে এই ফোন এসেছিল। কেন্দ্রীয় সম্পাদকের পাদ হারিয়ে আগামী দিনের দিকে চেয়ে আমি কী ভাবছি জানতে চান তাঁরা। সৌজন্যমূলক কথাবার্তা হয়েছে তাঁদের সঙ্গে। এর বেশি কিছু নয়। রাহুলের এই বার্তা বিজেপিকে চাপে রাখবে।

বি্জেপিতে ব্রাত্য হয়ে ধামাকা রাহুল সিনহার

বি্জেপিতে ব্রাত্য হয়ে ধামাকা রাহুল সিনহার

উল্লেখ্য, রাহুল সিনহা সম্প্রতি বিজেপির রদবদলে কেন্দ্রীয় সম্পাদকের পদ থেকে বাদ পড়েন। মুকুল রায়কে গুরুত্ব দিয়ে বসানো হয় কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতির পদে। তারপর মুকুল-ঘনিষ্ঠ নেতা অনুপম হাজরাকে রাহুলের স্থলাভিষিক্ত করা হয়। তাতেই ক্ষুব্ধ হয়ে রাহুল বলেন, ৪০ বছর বিজেপি করার পুরস্কার পেলাম। জবাব দেব ১০-১২ দিনের মধ্যেই। তার একটু বেশিদিন পরেই ধামাকা দিলেন।

প্রশান্ত টোটকায় তিন যুযুধান এক মঞ্চে, একুশে তৃণমূল কি পারবে ম্যাজিক দেখাতে

কলকাতাঃ করোনা আবহে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ, সেখানে পুজোর অনুমতি কিভাবে? রাজ্যকে প্রশ্ন হাইকোর্টের

English summary
Two TMC leaders phone to BJP leader Rahul Sinha after expelling from central post
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X