• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

রাজ্যপাল মুখ্যমন্ত্রীকে ডাকবেন আস্থা ভোটে! কবে তৃণমূল সংখ্যাগরিষ্ঠতা হারাবে, দিনক্ষণ জানালেন সায়ন্তন

  • |

ডিসেম্বরের শুরু থেকেই কেন্দ্র বিরোধী আন্দোলনের ডাক দিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (mamata banerjee)। তৃণমূলের সেই কর্মসূচিকেই কটাক্ষ করলেন বিজেপি নেতা সায়ন্তন বসু ( sayantan basu)। উত্তর দিনাজপুরের রায়গঞ্জ শহরে এদিন সকালে এক চা চক্রে তিনি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কতদিন মুখ্যমন্ত্রী থাকবেন, তা নিয়েই প্রশ্ন তোলেন।

১ ডিসেম্বর থেকে তৃণমূলের কর্মসূচি, ৭ ডিসেম্বরে রাস্তায় মমতা

১ ডিসেম্বর থেকে তৃণমূলের কর্মসূচি, ৭ ডিসেম্বরে রাস্তায় মমতা

শুক্রবার শুভেন্দু অধিকারীর পদত্যাগের পর সন্ধেয় মুখ্যমন্ত্রীর কালীঘাটের বাড়িতে উদ্ভুত পরিস্থিতি নিয়ে বৈঠক করেন মমতা বন্দ্যোরপাধ্যায়। সূত্রের খবর অনুযায়ী, সেখানে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় ছাড়াও, পার্থ চট্টোপাধ্যায়, সুব্রত বক্সি, ফিরহাদ হাকিম, অরূপ বিশ্বাসের সঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় স্ট্র্যাটেজি নিয়ে আলোচনা করেন বলে জানি গিয়েছে। পয়লা ডিসেম্বর থেকে ব্লকে ব্লকে আন্দোলনের কর্মসূচি গ্রহণ করতে তৃণমূলের জেলা সভাপতিদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি ৭ ডিসেম্বর থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নিজেই রাস্তায় নামতে চলেছেন। শুভেন্দু অধিকারীর হাতে থাকা মালদহ, মুর্শিদাবাদ, পশ্চিম মেদিনীপুর, পুরুলিয়া দিয়ে জেলা সফর শুরু করতে চলেছেন।

৭ ডিসেম্বরের আগেই সংখ্যাগরিষ্ঠতা হারাবে তৃণমূল

৭ ডিসেম্বরের আগেই সংখ্যাগরিষ্ঠতা হারাবে তৃণমূল

এব্যাপারে প্রশ্নের উত্তর দিতে গিয়ে বিজেপি নেতা সায়ন্তন বসু বলেন, ৭ ডিসেম্বরের আগেই সংখ্যাগরিষ্ঠতা হারাবে তৃণমূলের নেতৃত্বাধীন রাজ্য সরকার। পিসি, ভাইপো ছাড়া তৃণমূলে আর কেউ থাকবেন না বলেও কটাক্ষ করেন তিনি। সেই কারণে ৭ ডিসেম্বরের পর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মুখ্য মন্ত্রী থাকবেন কিনা তা নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেন তিনি। তিনি বলেন, এরপরেই রাজ্যপালের নির্দেশে মুখ্যমন্ত্রীকে আস্থা ভোট ডাকতে হবে। কেননা মুখ্যমন্ত্রী নিজে আস্থা ভোট ডাকবেন না।

 ২৪ জন বিধায়ক যোগাযোগ রাখছেন

২৪ জন বিধায়ক যোগাযোগ রাখছেন

দিন দুয়েক আগে ব্যারাকপুরের বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিং বলেছিলেন তৃণমূলের ৫ জন সাংসদ বিজেপির সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন। অন্যদিকে সায়ন্তন বসু বলেছিলেন, অন্তত ২৪ জন বিধায়ক বিজেপির সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন। সেই সময়ই তিনি বলেছিলেন, পরিস্থিতি যেদিকে যাচ্ছে তাতে, ১৫ দিনের মধ্যেই তৃণমূল সরকার সংখ্যালঘু হয়ে পড়বে। ফলে তৃণমূলের পায়ের তলার মাটি সরতে শুরু করেছে বলেও দাবি করেছিলেন তিনি। এরপরে শুক্রবার পদত্যাগ করেন শুভেন্দু অধিকারী। অন্যদিকে দিল্লিতে গিয়ে বিজেপিতে যোগ দেন দীর্ঘদিনের তৃণমূল সাংসদ মিহির গোস্বামী।

রাজ্যের প্রকল্প নিয়ে কটাক্ষ করেছিলেন সায়ন্তন

রাজ্যের প্রকল্প নিয়ে কটাক্ষ করেছিলেন সায়ন্তন

দিন কয়েক আগে বাঁকুড়ায় গিয়ে মুখ্যমন্ত্রী ঘোষণা করেছিলেন রাজ্যের নতুন প্রকল্প দুয়ারে দুয়ারে সরকার-এর কথা। পয়লা ডিসেম্বর থেকে যা শুরু হওয়ার কথা। যা নিয়ে কটাক্ষ করে সায়ন্তন বসু বলেছিলেন, মরণকালে হরিনাম। তাঁর প্রশ্ন ছিল, এতদিন কি সরকার আকাশে ছিল। তিনি বলেছিলেন, আকাশ থেকে নেমে দুয়ারে যেতে যেতে নির্বাচন ঘোষণা হয়ে যাবে। সায়ন্তন বসু বলেছিলেন, সরকার দুয়ারে গেলে সাধারণ মানুষ কাটমানির হিসেব চাইবেন, আইনশৃঙ্খলার হিসেব চাইবেন।

কলকাতাঃ করোনা টিকাকরণের জন্য রাজ্য কতটা প্রস্তুত, ট্রপিকলের সঙ্গে নবান্নের বৈঠক

শুভেন্দুর পদত্যাগেই নড়ে গেল তৃণমূলের ভিত! মিলল ভাঙনের রেখা স্পষ্ট হওয়ার আভাস

English summary
Trinamool COngress will lose its majority before 7th December, claims Sayantan Basu
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X