একা ‘রাম’-এ রক্ষা নেই, নির্দল দোসর! সব আসনেই বেশি প্রার্থী, তৃণমূল করবে কী

Subscribe to Oneindia News

একা 'রাম'-এ রক্ষা নেই, নির্দল দোসর! বিজেপিকে সামলাতেই গ্রামে গ্রামে হাঁপাই-সাফাই উঠেছে তৃণমূলের, তার উপর বিক্ষুব্ধদের বাড়বাড়ন্তে তৃণমূল এখন বিপাকে পড়েছে। ২০১৮-র পঞ্চায়েত নির্বাচনের মনোনয়ন পর্ব মেটার পর যে চিত্র সামনে উঠে এসেছে তাতে দেখা যাচ্ছে, প্রায় প্রতিটি ক্ষেত্রেই আসনের থেকে প্রার্থীর সংখ্যা বেশি।

এই অবস্থায় তৃণমূল এখন কী করবে? তৃণমূল কংগ্রেস মনে করছে, এক আসনে এক প্রার্থীই থাকবে তাঁদের। বাকিদের বুঝিয়ে মনোনয়ন প্রত্যাহার করা সম্ভব হবে। কিন্তু তা কতদূর সম্ভবপর হবে, তা নিয়ে সন্দেহ রয়েই যায়। এক্ষেত্রে প্রশ্ন উঠেছে বিরোধীদের ভয় দেখিয়ে দমিয়ে রাখা গেলেও নিজেদের দলের নেতা-কর্মীদের জমাতে পারেনি তৃণমূল। ফলে অনেক আসনেই নিজেদের মধ্যেই লড়াইয়ের সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে আসন্ন পঞ্চায়েত নির্বাচনে।

গ্রাম পঞ্চায়েত ১১ হাজার খাঁড়া

গ্রাম পঞ্চায়েত ১১ হাজার খাঁড়া

রাজ্যে গ্রাম পঞ্চায়েতের আসন সংখ্যা ৪৮ হাজার ৬৫০টি। সেখানে তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী সংখ্যা ৫৯ হাজার ৪৭৫। এই হিসেবের নিরিখে প্রায় ১১ হাজার জন প্রার্থীর মনোনয়ন আসনের তুলনায় বেশি। বিজেপি ২৭ হাজার ৭৮৯টি আসনে প্রার্থী দিতে পেরেছে। বামফ্রন্ট দিয়েছে ১৯ হাজার ৭১৪টি আসনে, আর কংগ্রেসের প্রার্থী ৭ হাজার ২৩৯টি আসনে। এ ক্ষেত্রে অভিযোগ উঠেছে বিরোধীদের ভয় দেখিয়ে সমস্ত আসনে প্রার্থী দেওয়া হয়নি। প্রার্থী দিলে অন্যরকম চিত্র হত। শাসকদল বলছে, বিরোধীদের সংগঠন নেই। সেই কারণেই প্রার্থী দিতে পারেনি। শাসকদল যদি বাধা দিত অত আসনে কি প্রার্থী দিতে পারত বিরোধীরা? প্রশ্ন বিরোধীদের। তবে রাজনৈতিক মহলের একাংশের ধারণা, অনেক ক্ষেত্রেই বিরোধীদের বোঝাপড়াও রয়েছে।

সমিতিতে বিক্ষুব্ধ তিন হাজার

সমিতিতে বিক্ষুব্ধ তিন হাজার

রাজ্যের পঞ্চায়েত সমিতির আসন সংখ্যা ৯ হাজার ২৭১টি। সেখানে তৃণমূল কংগ্রেসের তরফে প্রার্থীর মনোনয়ন জমা পড়েছে ১২ হাজার ৩৪৩টি। এই হিসেবেই স্পষ্ট তিন হাজারেরও বেশি বিক্ষুব্ধ প্রার্থী রয়েছে তৃণমূলের। সেখানে বিজেপি মনোনয়ন দিয়েছে ৫ হাজার ৯৫২টি আসনে। আর বামফ্রন্টের প্রার্থীর সংখ্যা ৪ হাজার ৮০৩টি। কংগ্রেস মাত্র ১ হাজার ৬৪৬টি আসনে প্রার্থী দিয়েছে। এক্ষেত্রে তৃণমূলের যেমন তিন হাজার বিক্ষুব্ধের খাড়া ঝুলছে, অনেক ক্ষেত্রেই বিরোধীরা গোপনে বোঝাপড়া করে এককাট্টা হয়েছে শাসক দলের বিরুদ্ধে। তৃণমূল বিরোধীদের প্রার্থী দিতে না দেওয়ার তত্ত্ব উড়িয়ে দিচ্ছে এ ক্ষেত্রেও।

জেলা পরিষদেও শাসকের গোষ্ঠীবাজি প্রকট

জেলা পরিষদেও শাসকের গোষ্ঠীবাজি প্রকট

গ্রাম পঞ্চায়েত বা সমিতি না হয় একেবারেই নিচুতলায়। সেখানে অনেক সমস্যা, অনেক মত থাকতে পারে। কিন্তু জেলা পরিষদেও বিক্ষুব্ধ প্রার্থীর খাঁড়া থেকে মুক্ত হতে পারল না তৃণমূল কংগ্রেস। জেলা পরিষদের ৮২৫টি আসনে হাজারটিরও বেশি মনোনয়ন জমা দিয়েছে। বিজেপি দিয়েছে ৭২৬টি মনোনয়ন। আর বামফ্রন্ট ৬৬৫টি মনোনয়ন। কংগ্রেস সেখানে দিয়েছে ৩৭৭টি মনোনয়ন। এক্ষেত্রেও বিরোধীরা সমস্ত আসনে মনোনয়ন দিতে পারেনি। শাসক দল তাই প্রশ্ন তুলেছে জেলা পরিষদে কেন মনোনয়ন দিতে পারল না বিরোধীরা। এটাই প্রমাণ করছে সংগঠন নেই বিরোধীদের। আর তা ঢাকতেই সন্ত্রাসের বাতাবরণ তৈরি করে পিঠ বাঁচাচ্ছে বিরোধী দলগুলি।

মনোনয়ন শেষেই বিজয়ী

মনোনয়ন শেষেই বিজয়ী

বীরভূম জেলা পরিষদে ৪২টি আসনের মধ্যে ৪১টি আসেন প্রার্থী দিতে পারেনি বিরোধীরা। মাত্র একটি আসনে প্রার্থী দিয়েছে বিজেপি। এই অবস্থায় ভোটের আগেই একপ্রকাশ জেলা পরিষদ দখল করে নিয়েছে তৃণমূল। স্রেফ বিজয়ী হিসেবে ঘোষণাটা বাকি। একইভাবে বাঁকুড়া জেলা পরিষদেও ২০টি আসন বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী হয়েছেন শাসক দলের প্রার্থীরা। ৪৬টি আসনের মধ্যে মাত্র ২৬টি আসনে বিরোধীরা প্রার্থী দিতে পেরেছে। ফলে ভোট হবে ওই ২৬টি আসনে। মাত্র চারটিতে জিতলেই বাঁকুড়াও তৃণমূলের। আর দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলা পরিষদেও ৮১ আসনের মধ্যে ২৩টি বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী তৃণমূল কংগ্রেস। পূর্ব বর্ধমানে ৫৮টির মধ্যে জয়ী ১৩টিতে।

সন্ত্রাস তো বিরোধীরা এত মনোনয়ন দিল কী করে

সন্ত্রাস তো বিরোধীরা এত মনোনয়ন দিল কী করে

গ্রাম পঞ্চায়েত ৪৮ হাজার ৬৫০টির মধ্যে বিজেপি ২৭ হাজার ৭৮৯টি আসনে প্রার্থী দিতে পেরেছে। বামফ্রন্ট দিয়েছে ১৯ হাজার ৭১৪টি আসনে, আর কংগ্রেসের প্রার্থী ৭ হাজার ২৩৯টি আসনে। পঞ্চায়েত সমিতিতে মোট আসন ৯ হাজার ২৭১টির মধ্যে বিজেপি মনোনয়ন দিয়েছে ৫ হাজার ৯৫২টি আসনে। আর বামফ্রন্টের প্রার্থীর সংখ্যা ৪ হাজার ৮০৩টি। কংগ্রেস মাত্র ১ হাজার ৬৪৬টি আসনে প্রার্থী দিয়েছে। জেলা পরিষদের ৮২৫টি আসনের বিজেপি দিয়েছে ৭২৬টি মনোনয়ন। আর বামফ্রন্ট ৬৬৫টি ও কংগ্রেস দিয়েছে ৩৭৭টি মনোনয়ন। শাসক দল তাই প্রশ্ন তুলেছে সন্ত্রাস তো এত আসনে প্রার্থী দিল কী করে বিরোধীরা? বাকি জায়গায় সংগঠন নেই বলেই প্রার্থী দিতে পারেনি।

English summary
Trinamool Congress files nomination very much than seat. This picture is shown in all stage of Panchayat Election

Oneindia - এর ব্রেকিং নিউজের জন্য
সারাদিন ব্যাপী চটজলদি নিউজ আপডেট পান.