• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের লেখা চিঠি উদ্ধার হল খড়গপুরে মুখোপাধ্যায় বাড়ির ভগ্নস্তূপ থেকে

  • |

পশ্চিম মেদিনীপুরের খড়্গপুর শহরে একটি পরিত্যক্ত বাড়ি ভাঙার সময়, একটি বাক্সর মধ্যে থেকে পাওয়া গেল রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের লেখা একটি চিঠি । এই চিঠিটি লেখা হয়েছিল ১৯৩৫ সালের মার্চ মাসে । অর্থাৎ ৮৫ বছর আগে। যে চিঠিটি পাওয়া যায় তাতে কাকে উদ্দেশ্য করে তা লেখা হয়েছিল তা উল্লেখ করা হয় নি । চিঠিতে ' কল্যাণীয়েসু ' বলে সম্বোধন করে লেখা হয়েছিল । তবে, চিঠিতে একটি বইয়ের নাম উল্লেখ করা হয়েছে । তা দেখে অনেকেই মনে করছেন যে এই চিঠিটি লেখা হয়েছিল খড়্গপুর কলেজের প্রতিষ্ঠাতা তথা প্রাক্তন অধ্যক্ষ হিমাংশু সরকারকে । কারণ চিঠিতে ' Indian influence of literate of Java and Bali' নামক যে বইয়ের উল্লেখ করা হয়েছে তার লেখক ছিলেন ওই হিমাংশু সরকার ।

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের লেখা চিঠি উদ্ধার হল খড়গপুরে মুখোপাধ্যায় বাড়ির ভগ্নস্তূপ থেকে

খড়্গপুর শহরে শ্রীকৃষ্ণপুর এলাকায় সুরেন্দ্রনাথ মুখোপাধ্যায় ও জ্যোৎস্না মুখোপাধ্যায় মারা যাওয়ার পর তাদের বাড়িটি কেনেন রাজা সরকার নামে এক ব্যক্তি । জায়গাটি দীর্ঘ দিন ধরে এমনি পড়ে ছিল । মাটির বাড়িটি ভাঙার কাজ শুরু করে সেখানে দুটি বাক্স পাওয়া যায় । একটিতে ছিল লেপ তোষক ইত্যাদি । সেটা এলাকায় বিলি করে দেওয়া হয়েছে । অন্য বাক্সটি ছোট । সেটা খুলে পাওয়া যায় কিছু বই, খাতা ও আরও কিছু জিনিস । রাজা সরকার গানের খাতা খুলে দেখেন তাতে লেখা আছে অনেকগুলো রবীন্দ্র সংগীত ।খাতাটিতে জ্যোৎস্না মুখোপাধ্যায়ের নাম লেখা । সেই খাতার মধ্যেই পাওয়া যায় চিঠি টি । তাতে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের সাক্ষর দেখে অবাক হয়ে পড়েন রাজা সরকার । বিভিন্ন বইয়ে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের সাক্ষর দেখেছেন তিনি । দেখেছেন হাতের লেখা । যে চিঠি পাওয়া যায় তার হাতের লেখা, লেখার ভাষা ও সই যে স্বয়ং বিশ্বকবির । তা দেখে চমকে উঠেন তিনি । রাজা সরকার বলেন, এত মূল্যবান জিনিস । আমি সযত্ন করে রেখেছি । এই অমূল্য জিনিস ঘরে রাখার সাধ্য আমার নেই । রাজ্য সরকার, পুরাতত্ত্ব বিভাগ বা কোনও মিউজিয়াম যদি এটা রাখতে চায় আমি তা সঙ্গে সঙ্গে দিয়ে দেব ।

জেলার তথ্য ও সংস্কৃতি আধিকারিক অনন্যা মজুমদার জানিয়েছেন যে এই চিঠিটির সম্পর্কে জানার পর রাজা সরকারকে ওই চিঠি ও বাক্সর মধ্যে পাওয়া সব কিছু নিয়ে আসতে বলা হয়েছে । তার পর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে ও চিঠি আসল হলে কোথায় রাখা হবে তা নিয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে । ১৯৩৫ সালের ১১মার্চ তারিখে লেখা যে চিঠিটি পাওয়া গিয়েছে তাতে ওই পুস্তকের উল্লেখ করে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর লিখেছেন যে এমন একটি বইয়ের জন্য তিনি অপেক্ষা করেছিলেন ।

বিভিন্ন জনকে বিভিন্ন সময়ে অসংখ্য চিঠি লিখেছেন রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর । তার লেখা চিঠি যেমন অনেক প্রকাশিতহয়েছে ও অনেক চিঠি সংরক্ষণ করা আছে শান্তিনিকেতনে বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের হেফাজতে, তেমনই এখনও প্রকাশিত হয় নি এমন চিঠির সংখ্যাও কম নয় । " এত দিন পরে একটি বাক্সর মধ্যে থেকে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের লেখা চিঠির মূল্য অপরিসীম । তার মূল্য তো কোনও আর্থিক ভাবে নির্ণয় করা সম্ভব নয় । এখনও কবিগুরুর লেখা অনেক চিঠি হয়ত নানা জায়গাতে এই রকম ভাবে পাওয়া যাবে । এই ধরণের চিঠি ও লেখা পাওয়া গেলে তার উপযুক্ত সংরক্ষণ করা জরুরি " বলে মত প্রকাশ করেছেন শান্তিনিকেতন এলাকার বাসিন্দা সুরজিৎ ঘোষ হাজরা ।

English summary
Rabindranath Tegor written leter recover fron Kharagpur
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X