• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

মোদীর ওপর ভরসা আছে, 'বহিরাগত' তত্ত্বে জবাব! তৃণমূলের দম বন্ধ হয়ে যাচ্ছে, কটাক্ষ দিলীপের

  • |

বাংলার লোক না হলেও, বাংলার মানুষের ভরসা আছে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর (narendra modi) ওপরে। এদিন প্রাতর্ভ্রমণে বেড়িয়ে ইকোপার্কে এমনটাই মন্তব্য করলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ(dilip ghosh)। একইসঙ্গে তিনি এদিন ছটপুজো নিয়ে রাজ্য সরকারের ভূমিকার সমালোচনাও করেন।

 ছট পুজো নিয়ে রাজ্যের ভূমিকার সমালোচনা

ছট পুজো নিয়ে রাজ্যের ভূমিকার সমালোচনা

এদিন প্রাতর্ভ্রমণে বেড়িয়ে ছটপুজো নিয়ে রাজ্য সরকারের ভূমিকার সমালোচনা করেন দিলীপ ঘোষ। তিনি বলেন, হিন্দিভাষীদের বড় উৎসবব ছটপুজো। পশ্চিমবঙ্গ, বিহার, উত্তর প্রদেশ সব জায়গাতেই। এতদিন ছটপুজো নিয়ে সরকারের কোনও চিন্তা না থাকলেও, আদালতের রায়ের কারণে সরকার সক্রিয়তা দেখাচ্ছে। প্রসঙ্গত হাইকোর্ট রায় দিয়েছে রবীন্দ্র সরোবরে ছটপুজোর কোনও অনুষ্ঠান করা যাবে না। দিলীপ ঘোষ কটাক্ষ করে বলেন, হিন্দিভাষী ভোটের জন্য সরকার সক্রিয়তা দেখাচ্ছে। তিনি আরও বলেন, যাঁরা ছটপুজো করেন, তাঁরা বহুবছর ধরেই পুজো করে আসছেন। সামাজিক ভাবেই সাধারণ মানুষ এর জন্য ব্যবস্থা করে বলেও মন্তব্য করেছেন তিনি।

 ঠেলার নাম বাবাজি

ঠেলার নাম বাবাজি

দিলীপ ঘোষ এদিন তৃণমূল সরকারকে কটাক্ষ করে বলেন, ঠেলার নাম বাবাজি। ভোটের জন্যই সরকার সক্রিয় হয়েছে। তিনি প্রশ্ন করেন, আজ কেন সরকারের মাথা ব্যথা। তিনি বলেন, হিন্দিভাষীদের ভোটের দরকার রয়েছে। এতদিন তাঁদেরকে বাইরের লোক বলে চালিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। এবার তাঁদের কথা মনে পড়েছে।

 রবীন্দ্র সরোবরে বিশৃঙ্খলা নিয়ে কটাক্ষ

রবীন্দ্র সরোবরে বিশৃঙ্খলা নিয়ে কটাক্ষ

প্রসঙ্গত গতবছরেও ছিল আদালতের রায়। কিন্তু সেই রায় পালন করতে গিয়ে বিশৃঙ্খলা তৈরি হয়। যা নিয়ে সমালোচনার ঝড় তুলেছিলেন পরিবেশকর্মীরা। এব্যাপারে দিলীপ ঘোষ বলেন, সরকারের ধারনা থাকা উচিত কত মানুষ সেখানে আসতে পারেন। ধর্মীয় ভাবাবেগে যাতে কোনও আঘাত না লাগে তা দেখা উচিত বলেও এদিন মন্তব্য করেন দিলীপ ঘোষ। জলাশয় পরিষ্কার করে সেখানেই পুজোর রীতি পালনের বন্দোবস্ত করা উচিত বলেও মন্তব্য করেন তিনি। দিলীপ ঘোষ বলেন, তারা চান, যাঁরা এই পুজো করেন, তাঁরা যেন নিঠার সঙ্গে তা করতে পারেন।

মোদীর ওপর ভরসা আছে বাংলার মানুষের

মোদীর ওপর ভরসা আছে বাংলার মানুষের

রাজ্য বিজেপির সংগঠন দেখভালের জন্য অনেকদিন থেকেই দায়িত্বে রয়েছেন, কৈলাশ বিজয়বর্গীয় এবং অরবিন্দ মেননরা। এবার তাঁদের সঙ্গে যুক্ত করা হয়েছে আইটি সেলার প্রধান অমিত মালব্যকে। এছাড়াও বিজেপির সাংগঠিক পাঁচটি জোনের দায়িত্ব অমিত শাহ ঘনিষ্ঠ পাঁচ নেতার হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। তাঁরা সবাই উত্তর প্রদেশ, হরিয়ানা কিংবা দিল্লির বাসিন্দা। যা নিয়ে তৃণমূল তাঁদেরকে বহিরাগত তকমা দিয়ে, কটাক্ষ করতে শুরু করেছে। রাজ্যের শাসকদল বলছে, রাজ্যের বিজেপি নেতাদের ওপরে ভরসা নেই কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের। এব্যাপারে প্রশ্ন করা হলে, দিলীপ ঘোষ বলেন, পশ্চিমবঙ্গের বাসিন্দাদের ভরসা আছে মোদীর ওপরে। মোদীও তো বাংলার লোক নন। দিলীপ ঘোষ বলেন, বিজেপি সর্বভারতীয় দল, তাদের নিয়ম অনুযায়ী চলে। তিনি বলেন, বাংলার বিজেপির সঙ্গে সারা দেশের বিজেপি আছে। বাংলায় পরিবর্তন হচ্ছে।

দমবন্ধ হয়ে যাচ্ছে তৃণমূলের

দমবন্ধ হয়ে যাচ্ছে তৃণমূলের

দিলীপ ঘোষ বলেন, বিজেপি যেভাবে লড়াই করছে, তাতে তৃণমূলের দমবন্ধ হয়ে যাচ্ছে। বাংলায় ১২০ জনের বেশি বিজেপি কর্মী প্রাণ দিয়েছেন। তিনি পাল্টা কটাক্ষ করে বলেন, তাদের কোনও মুখ নেই। সব মুখে কালি লেগে গিয়েছে।

বর্ধমান : পশ্চিমবঙ্গে বোমা বারুদের কারখায় পরিণত হয়েছে বলেন দিলীপ ঘোষ

'ঠেলার নাম বাবাজি'! হিন্দিভাষী ভোটব্যাঙ্ক ইস্যুতে ছটপুজোর আবহে দিলীপের খোঁচা মমতাকে

English summary
People of Bengal have faith in PM Modi, says Dilip Ghosh
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X