Oneindia থেকে ব্রেকিং নিউজের আপডেট পেতে

সারাদিন ধরে চটজলটি নিউজ আপডেট পান

You can manage them any time in browser settings

অসুস্থ লকেট হাসপাতালে, হঠাৎ এল ফোন, কী বার্তা দিলেন ‘অভিভাবক’ মুকুল

Subscribe to Oneindia News

হাজরা মোড়ে ডেঙ্গু নিয়ে বিক্ষোভের পরই বিজেপির মহিলা মোর্চা নেত্রী লকেট চট্টোপাধ্যায় অসুস্ত হয়ে পড়েছিলেন। নিজেও পড়েছিলেন জ্বরে। বেড়েছিল পেট ব্যথাও। তারই জেরে তাঁকে ভর্তি হতে হয় হাসপাতালে। এরপরই একেবারে অভিভাবকের মতো নেত্রীর খোঁজ খবর নিলেন মুকুল রায়। এখনও সরকারিভাবে বিজেপিতে নাম লেখাননি তিনি। তবু এখন থেকেই তিনি দলের অভিভাবকের ভূমিকা পালন করতে শুরু করে দিলেন।

অসুস্থ লকেট হাসপাতালে, হঠাৎ এল ফোন, কী বার্তা দিলেন ‘অভিভাবক’ মুকুল

বুধবার লকেটের অস্ত্রোপচার হয়। তারপর সাতদিন তাঁকে থাকতে হবে হাসপাতালে। তার আগেই মুকুল রায় ফোন করে লকেটের আরোগ্য কামনা করলেন। তাঁকে দ্রুত সুস্থ হয়ে নিজের কাজে ফিরে আসার বার্তা দিলেন মুকুল রায়। তিনি লকেটকে আরও বলেন, 'দারুন কাজ করছো। সামনে অনেক কাজ। তাই দ্রুত সুস্থ হয়ে ওঠ। নিজের কাজে ফিরে এসো। তোমাকে দলের প্রয়োজন।'

একেবারে দলের অভিভাবকের মতো আওয়াজ শোনা গেল মুকুলের কণ্ঠে। মুকুল রায়ের এই বার্তার পরই রাজনৈতিক মহলে ফের শুরু হয়েছে জল্পনা। তাহলে কি সবুজ সংকেত পেয়েই গিয়েছেন মুকুল রায়? শুধু আনুষ্ঠানিকভাবে বিজেপিতে যোগ দেওয়ার অপেক্ষা! সৌজন্যের মোড়কে তিনি যেভাবে অভিভাবকোচিত ভূমিকা পালন করলেন, তা নজর কেড়েছে বিজেপি কর্মীদেরও। বিজেপি কর্মীরাও এখন মুকুলকে নিয়ে আশাবাদী হয়ে উঠছেন।

মুকুল রায়কে নিয়ে দলের নেতারা কী ভাবছেন, তা গৌন হতে শুরু করেছে বিজেপি কর্মীদের কাছে। অধিকাংশ বিজেপিকর্মীরাই এখন চাইছেন মুকুল রায়ের মতো একজন নেতাকে দলের অভিভাবক হিসেবে। কিন্তু কেন্দ্রীয় নেতারা মুকুল রায়কে নেওয়ার ব্যাপারে একমত হলেও, রাজ্য নেতৃত্বের মধ্যে দুটি পরস্পরবিরোধী মত উঠে এসেছে।

এখন মুকুলের রায়ের বিজেপি-ভাগ্য নির্ধারণের জন্য ফের আসরে নেমেছেন বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতা তথা রাজ্যের পর্ষবেক্ষকের দায়িত্ব থাকা কৈলাশ বিজয়বর্গীয়। তিনি রাজ্য নেতাদের বোঝাতে শুরু করেছেন মুকুল রায়কে দলে নিলে তাঁদের কী সুবিধা হতে পারে। পঞ্চায়েতের আগে মুকুল রায়কে দলের প্রয়োজনীয়তার কথা তুলে ধরছেন তিনি।

English summary
Mukul Roy calls locket chatterjee and well wishes for her. Locket Chatterjee is admitted in hospital
Please Wait while comments are loading...