• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

শান্তিনিকেতনে বন্ধ বসন্তোৎসব, মন খারাপ পড়ুয়া থেকে দোকানি, পর্যটকদের

  • |

শান্তিনিকেতনের বসন্ত উত্সব অনুষ্ঠান বাতিল করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয় নেওয়ার পর একদিকে যেমন হতাশ ছাত্র ছাত্রী ও পর্যটকরা, তেমনই বিপুল পরিমাণ ক্ষতির সম্মুখীন এলাকার ব্যবসায়ীরাও।

শান্তিনিকেতনে বন্ধ বসন্তোৎসব, মন খারাপ পড়ুয়া থেকে দোকানি, পর্যটকদের

এলাকার ব্যবসায়ী সংগঠনের সদস্যরা জানান যে এই বসন্ত উত্সব অনুষ্ঠান বাতিল করে দেওয়ার কারণে যেমন হোটেল ও পরিবহন ব্যবসার ক্ষতি হবে, তেমনই ক্ষতির মুখে পড়তে চলেছেন কাপড়, আবীর ব্যবসায়ীরা ও হস্তশিল্পী এবং ছোট ছোট হস্তশিল্প ব্যবসায়ীরা।

এলাকার ব্যবসায়ী সংগঠনের সম্পাদক সুনীল সিংহ বলেন যে এর ফলে কয়েক লক্ষ টাকা ক্ষতি হবে।

বসন্ত উত্সবে সামিল হতে দেশ বিদেশ থেকে আসেন অনেকেই। বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের যে সব অনুষ্ঠান হয় তার মধ্যে সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয় এই বসন্ত উত্সব অনুষ্ঠান। নাচ গান হবার পর হয় আবীর নিয়ে একে অপরের রাঙিয়ে দেওয়া। আর একে অপরকে আবীরের রঙে রাঙিয়ে দিতে হাজির হন কয়েক হাজার মানুষ।

এই সময় আগে থেকে ' বুক ' না করলে পাওয়া যায় না হোটেলের ঘর। এই সময় শুধু হোটেলের ভাড়া বাড়তিনেওয়া হয় তাই না, বেশির ভাগ হোটেল দুই বা তিন দিনের প্যাকেজ চালু করে।

কিন্তু এই বার করোনা আতঙ্কের জেরে ইউ জি সি র নির্দেশ মেনে বাতিল করা হয়েছে এই বসন্ত উত্সব অনুষ্ঠান। শুক্রবার এই বাতিল করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

যার ফলে হতাশ ছাত্র ছাত্রী থেকে শুরু করে সকলেই। বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী অনিন্দিতা দাস, প্রাক্তন ছাত্রী সাবিনা ইয়াসমিন সকলের বক্তব্য এক। " এই দিনটার জন্য সারা বছর অপেক্ষা করে থাকে সকলেই। এতো শুধুমাত্র আবীর নিয়ে খেলা নয়, এটা বিশ্বভারতীর ঐতিহ্য। খুব খারাপ লাগছে এই বছর এই বসন্ত উত্সব অনুষ্ঠান বাতিল করে দেওয়ার কারণে।"

এই কারণে একদিকে যেমন ছাত্রছাত্রীরা হতাশ, তেমনই হতাশ তারা যারা এই সময় শান্তিনিকেতন এসে বসন্ত উত্সব অনুষ্ঠান দেখা ও অংশ নেওয়ার পরিকল্পনা করে আগে থেকে বেশি টাকা দিয়ে হোটেলের ঘর বুক করেছেন।

এলাকার এক হোটেলের মালিক সজল ঘোষ বলেন যারা হোটেলে রুম বুক করেছেন তাদের টাকা ফেরত দেওয়া সম্ভব নয়। তারা এখন এমনি ঘুরতে আসতে পারেন। না এলে পরবর্তী সময়ে যখন আসবেন তখন বাড়তি কিছু সুবিধা তাদের দেওয়া হবে।"

বসন্ত উত্সব অনুষ্ঠানে যারা আসেন তারা যেমন সোনাঝুরি, কঙ্কালীতলা, আমার কুটির, শ্রীনিকেতন ঘুরে দেখেন তেমনই এখানের অনেক হস্তশিল্প কিনে নিয়ে যান। বসন্ত উত্সব অনুষ্ঠানে না এলে তাদের এই সময় যে বাড়তি ব্যবসা হয় তা হবে না।

চিকিত্সক তথা এই বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিচালনা কমিটির সদস্য সুশোভন ব্যানার্জি বলেন, বিশেষ কারণেই এই বার এই বসন্ত উত্সব অনুষ্ঠান বাতিল করতে হচ্ছে। এই উত্সব উপলক্ষে কয়েক হাজার মানুষ আসেন। তারা না এলে তো ব্যবসায়িক ও আর্থিক একটি ক্ষতি হবেই।"

English summary
Holi celebration cancel in Shantiniketan, student to shopkeepers everyone is upset
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X