• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

এবারের বর্ষায় ইলিশে রসনা তৃপ্তি! টন টন ইলিশ কেবল সময়ের অপেক্ষা

  • |

করোনা আবহে বাঙালির পাতে পড়তে পারে বড় মাপের ইলিশ। যেসময়ে ইলিশের বেড়ে ওঠার সময় সেই সময় ছিল লকডাউন। ফলে খোকা ইলিশ বাজারজাত করা যায়। এরপর গিয়েছে আম্ফান। হিসেব কষে মৎস্যজীবীরা বলছেন প্রায় ১০০ দিন পরে তাঁরা বেরোবেন মাছ ধরতে। সঙ্গে পাবেন অনুকূল আবহাওয়া।

রয়েছে দূষণমুক্ত পরিবেশ

রয়েছে দূষণমুক্ত পরিবেশ

লকডাউনের জেরে মানুষের আর্থিক ক্ষতি বেশি মাত্রাও হলেও, তার প্রভাব পড়েছে পরিবেশে। বাতাসে দূষণের মাত্রা কমেছে। সেই প্রভাব পড়েছে ইলিশের ওপরে। লকডাউনের জেরে খোকা ইলিশের চোরা শিকার বন্ধ থাকায় ইলিশের বংশবৃদ্ধি হয়েছে। পাশাপাশি বেড়ে ওঠার সময়ও পেয়েছে।

বংশবৃদ্ধিতে সাহায্য

বংশবৃদ্ধিতে সাহায্য

দেশ জুড়ে যেসময়টা লকডাউন ছিল, সেই সময়টাই সাধারণভাবে ইলিশের বংশবৃদ্ধির সময়। অনেক মৎস্যজীবী বলছেন, এপ্রিল থেকে জুন ইলিশের প্রজননের সময়কাল। এর পরবর্তী সময় ইলিশ মাছের বেড়ে ওঠার সময়। এবছর প্রজননের সময়ে সেরকমভাবে বেশি ইলিশ মাছ বাজারে আসেনি। পাশাপাশি মোহনায় থাকা ৫০০ থেকে ১ কেজি ওজনের ইলিশ বড়ও হয়েছে।

মৎস্যজীবীরা বেরোলেই জালে পড়বে ইলিশ

মৎস্যজীবীরা বেরোলেই জালে পড়বে ইলিশ

ডায়মন্ডহারবার হোক কিংবা দিঘা সব জায়গাতেই জোয়ারের জলে ইলিশের হদিশ মিলছে বলে জানাচ্ছেন মৎস্যজীবীরা। ফলে এই দফায় মৎস্যজীবীরে সমুদ্রে গেলেই জালে পড়বে অন্ত ১ থেকে দেড় কেজির ইলিশ।

দামে হবে সস্তা

দামে হবে সস্তা

এখন তো রফতানির সুযোগ নেই। তাই রাজ্যের বাজারে ইলিশের দাম সস্তা হবে বলেই জানাচ্ছেন মৎস্যজীবীরা। এখন শুধু সমুদ্রে বেরনোর অপেক্ষা। সম নির্দেশিকা মেনে তারা ১৫ জুন বের হবেন বলে জানা গিয়েছে।

ঘুপঘাপ বডি নিয়ে এসে পুড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে কেন ? সুজন চক্রবর্তী

সোনার দাম পুরনো ফর্মের দিকে যাচ্ছে! কলকাতায় আজ দর কত

English summary
Fishermen will get lots of hilsa this year due to no pollution situation. Due to Covid 19 lockdown pollution level also decreases.
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X