• search

নামখানা স্কুলকাণ্ডে সরানো হল বিতর্কিত ডিআইকে, শিক্ষামন্ত্রীর কোপে বদলি বিকাশভবনে

Subscribe to Oneindia News
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS
For Daily Alerts

    নামখানাস্কুলকাণ্ডে অবশেষে সরানো হল বিতর্কিত ডিআই নজরুল হক সিপাহিকে। শিক্ষা দফতররে কোপে পড়ে তিনি বদলি হলেন বিকাশভবনে। স্কুলে হামলার ঘটনার জেরে এক বৈঠকে নজরুল হক সিপাহি আগাগোড়া রাজনৈতিক ভাষণ দিয়েছিলেন। সেই ভাষণে ডিআইয়ের আপত্তিজনক মন্তব্যের অডিও ক্লিপ 'ওয়ানইন্ডিয়া বেঙ্গলি' সোশাল মিডিয়ায় ফাঁস করে দেওয়ার পরই নড়েচড়ে বসল প্রশাসন।

    নামখানাস্কুলকাণ্ডে সরানো হল বিতর্কিত ডিআইকে, শিক্ষামন্ত্রীর কোপে বদলি বিকাশভবনে

    চলতি বছরের অগাস্ট মাসের শেষে দক্ষিণ ২৪ পরগনার নামখানার দক্ষিণ দুর্গাপুর চঞ্চলাময়ী আদর্শ বিদ্যামন্দিরে কিছু বহিরাগত হামলা চালায়। স্কুলের ছয় শিক্ষককে মারধর করে বহিরাগতরা। ঘটনায় নাম জড়ায় ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আশিস ভট্টাচার্যের। এই ঘটনার প্রেক্ষিতে সেপ্টেম্বেরের মাঝামাঝি স্কুলে বৈঠক করেন দক্ষিণ ২৪ পরগনার ডিআই নজরুল হক সিপাহি।

    সেই বৈঠকেই আগাগোড়া রাজনৈতিক ভাষণ দেন তিনি। এমনকী বৈঠকের কোনও কথা বা তথ্য বাইরে গেলে শিক্ষকদের পিঠের চামড়া তুলে দেবেন বলেও মন্তব্য করেন বিতর্কিত ডিআই। এরপর এই বৈঠকে ডিআইয়ের আপত্তিজনক মন্তব্যের অডিও ক্লিপ সোশাল মিডিয়ায় ফাঁস করে 'ওয়ানইন্ডিয়া বেঙ্গলি'। তাতেই রাজ্যের প্রশাসনিক মহলে আলোড়ন পড়ে যায়।

    অবশেষে নজরুল হক সিপাহির বিরুদ্ধে রাজ্য শিক্ষা দফতর বিশেষ ব্যবস্থা নিয়েছে বলে একটি সূত্রে দাবি করা হয়েছে। এই সূত্রের দাবি, দক্ষিণ ২৪ পরগনার ডিআই নজরুল হক সিপাহিকে আপাতত বিকাশ ভবনে বদলি করা হচ্ছে। তিনি কী ধরনের দায়িত্ব সেখানে পালন করবেন, তা এখনও ঠিক হয়নি। তবে এই সূত্রে দাবি করা হয়েছে, নজরুল হক সিপাহিকে আপাতত কোনও কাজ না দিয়ে বিকাশভবনে বসিয়ে রাখা হবে।

    ওই সূত্র আরও জানিয়েছে, দক্ষিণ ২৪ পরগনার নতুন ডিআই হচ্ছেন অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যায়। তিনি বর্তমানে নদিয়ার ডিআইয়ের দায়িত্ব আছেন। এই সূত্রের আরও দাবি, নামখানার দক্ষিণ দুর্গাপুর চঞ্চলাময়ী আদর্শ বিদ্যাপীঠের ঘটনার জেরেই নজরুল হক সিপহিকে দক্ষিণ ২৪ পরগনার ডিআই পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে।

    চঞ্চলাময়ী আদর্শ বিদ্যাপীঠে নজরুল হক সিপাহি যে আপত্তিজনক বক্তব্য পেশ করেছিলেন তার তীব্র বিরোধিতা করে সব মহল। রাজ্যের শিক্ষা প্রশাসনও যে নজরুলের এমন আচরণকে মান্যতা দিচ্ছে না, তাও তাঁকে বুঝিয়ে দেওয়া হয়। বিকাশভবন থেকেও তাঁকে ডেকে পাঠানো হয়। ইতিমধ্যে আত্মপক্ষ সমর্থনের জন্য একটি স্থানীয় পত্রিকাও তাঁর হয়ে কলম ধরে বলে অভিযোগ।

    সেই পত্রিকায় নজরুল হক সিপাহির দাবি, তার নিয়োগ দক্ষিণ ২৪ পরগনায় হয়েছে শুধুমাত্র শিক্ষামন্ত্রীর উদ্যোগে। দক্ষিণ ২৪ পরগনা শিক্ষা ব্যবস্থায় যে বিভিন্ন অনিয়ম হচ্ছে, তা নির্মূল করতেই বিশেষ দায়িত্ব দিয়ে তাঁকে আনা হয়েছে, এমন মন্তব্যও করেন নজরুল। এই সমস্ত তথ্যই শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের নজরে এসেছিল বলে বিশেষ সূত্রে দাবি।

    গোটা ঘটনায় যেভাবে নজরুল শিক্ষামন্ত্রীর নাম ব্যবহার করেছেন, তাতে বিকাশভবন যথেষ্ট ক্ষুব্ধ। পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের নির্দেশেই তাঁকে বিকাশভবনে ডেকে পাঠানো হয় বলে দাবি। এই ডেকে পাঠানো ও নজরুল হক সিপাহির জবাবদিহির পর ইতিমধ্যেই মাসখানেক সময় কেটে যায়। উৎসবের মরশুম শুরু হয়ে যাওয়ায় সিদ্ধান্ত নিতে দেরি হল বলে জানায় প্রশাসন। প্রশাসন চাইছে, কালীপুজোর পরই সমস্ত স্কুল খুলে যাওয়ার কথা। তাই বিতর্কিত ডিআইয়ের বদলি ছুটি কাটার পরই কার্যকর করে দিতে চাইছে বিকাশভবন।

    [আরও পড়ুন: বিজেপি নকল গেরুয়া! দক্ষিণেশ্বরে গর্বের স্কাইওয়াক উন্মোচনে 'বিবেক-বাণী' মমতার ]

    শুধু ঔদ্ধত্যপূর্ণ আচরণই নয়, নজরুল হক সিপাহির বিরুদ্ধে রয়েছে আরও একাধিক অভিযোগ রয়েছে। দক্ষিণ ২৪ পরগনায় বেশ কিছু স্কুলে জিমন্যাসিয়াম তৈরির জন্য তিন লক্ষ টাকা দেওয়া হয়েছিল রাজ্য যুব ও ক্রীড়া দফতর থেকে। বেশ কিছু স্কুল তিন লক্ষ টাকা নিলেও, জিমন্যসিয়াম তৈরি করেনি। সেই টাকা কোথায় গেল, তার হদিশ নেই। এই স্কুলের তালিকায় রয়েছে চঞ্চলাময়ী আদর্শ বিদ্যাপীঠও। এই স্কুলের ভারপ্রাপ্ত প্রধানশিক্ষক ও পরিচালন সমিতির প্রধানের বিরুদ্ধে একাধিক দুর্নীতি। এর আগে ডিআইয়ের কাছে বহু অভিযোগ জমা পড়লেও কোনও কাজই হয়নি। উল্টে তিনি যেভাবে অভিযুক্তদের হয়ে সওয়াল করতেন তাতে প্রতিবাদী প্রচুর শিক্ষক বিস্ময় প্রকাশ করেন।

    [আরও পড়ুন:ভোটের আগে বড় ধাক্কা! রাহুলের দল ছেড়ে ৭ বারের বিধায়কের যোগ মোদীর দলে]

    'সন্দেহ নেই নজরুল হক সিপাহিকে বদলি হওয়া প্রতিবাদী শিক্ষক মহলের কাছে নীতিগত জয়। চঞ্চলাময়ী আদর্শ বিদ্যাপীঠে প্রতিবাদী শিক্ষকদের উপরে বহিরাগত হামলা ও স্কুলের দুর্নীতি নিয়ে লাগাতার আন্দোলন চালিয়ে গিয়েছে শিক্ষক ঐক্য মুক্ত মঞ্চ। এমনকী ডিআইয়ের ঔদ্ধত্যপূর্ণ আচরণকেও তাঁরা সর্বসমক্ষে নিয়ে এসেছে। আশা করা যায় নতুন ডিআই শিক্ষাব্যবস্থায় জেলাজুড়ে যে অনিময় চলছে, তা সঠিকভাবে নির্মূল করতে সক্ষম হবেন।' এমনই প্রতিক্রিয়া শিক্ষক ঐক্য মুক্ত মঞ্চের আহ্বায়ক মইদুল ইসলাম।

    [আরও পড়ুন: লোকসভা ভোটে মুসলিম মহিলাদের অভিনব উপায়ে প্রচারে লাগাবে বিজেপি ]

    English summary
    Education department decides removal of DI due to Namkhana School controversy. He is transferred in Bikash Bhavan,

    Oneindia - এর ব্রেকিং নিউজের জন্য
    সারাদিন ব্যাপী চটজলদি নিউজ আপডেট পান.

    Notification Settings X
    Time Settings
    Done
    Clear Notification X
    Do you want to clear all the notifications from your inbox?
    Settings X
    We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Oneindia sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Oneindia website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more