• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

এটা ওনার ব্যক্তিগত সমস্যা! সবাই এক আছে, মুকুলের তৃণমূল যোগ নিয়ে প্রথম প্রতিক্রিয়া দিলীপের

সব জল্পনার অবসান ঘটিয়ে বিজেপি ছেড়ে 'ঘর ওয়াপসি' হচ্ছে মুকুল রায়ের। আর কিছুক্ষণের মধ্যেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়-সহ তৃণমূলের প্রথম সারির নেতাদের উপস্থিতিতে মুকুল এবং শুভ্রাংশুর রায়ে তৃণমূলে যোগ দেওয়ার কথা।

মুকুলের তৃণমূল যোগ নিয়ে First Reaction দিলীপের

সেখান থেকেই ঘোষণা হবে তাঁর 'ঘর ওয়াপসি'র কথা। মুকুল রায়ের সঙ্গেই বিজেপিতে নাম লেখাবেন একাধিক বিজেপি নেতা। প্রথমে সব্যসাচী দত্ত, রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের নাম উঠে আসছে। তবে মনে করা হচ্ছে, এখানেই শেষ নয়, তালিকাটা আরও বড় বলেই মনে করা হচ্ছে।

তবে মুকুল রায়ের বিজেপি যোগ ছিন্ন হতেই মুখ খুলেছেন দিলীপ ঘোষ। তিনি জানিয়েছেণ, ভোটের পর থেকেই ঘর ছাড়া বহু বিজেপি নেতা-কর্মী। তাঁরাই মুল সম্পদ। এখণ তাঁদের পাশে দাঁড়ানোটা প্রয়োজন। এখানেই শেষ নয়, বিজেপির রাজ্য সভাপতির মতে, অনেকেই ভেবেছিলেন বিজেপি জিতবে।

আর সে লক্ষ্যেই দলে এসেছিলেন। এখন মনে হচ্ছে ফিরে যাচ্ছেন। তবে মুকুল রায় প্রসঙ্গে দিলীপের দাবি, এটা ওনার ব্যক্তিগত সমস্যা। সবাই এক আছে। আগামিদিনে সবাই মিলে দলকে ফের ক্ষমতায় নিয়ে আসব। ফের একআর দাবি দিলীপ ঘোষের।

উল্লেখ্য, এদিন সকালেই বেসুরোদের বার্তা দিয়ে দিলীপ ঘোষ বলেন, দলের সঙ্গে যাঁরা সুর মেলাতে পারছেন না সেটা তাঁদের সমস্যা। বিজেপির উত্থানের সঙ্গে যাঁদের সম্পর্ক নেই সেই সব নেতারাই মন খারাপ করে বসে আছেন। নাম না করে রাজীব-মুকুলদের নিশানা করলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি। অন্যদিকে মুকুলের তৃণমূলে যোগের পরেই তীব্র আক্রমণ শানিয়েছেন সৌমিত্র খাঁ এবং অর্জুন সিং। বিজেপি সাংসদ মুকুল রায়কে চাণক্য নয়, মীরাজাফর বলে তীব্র তোপ দেগেছেন। তাঁর দাবি, যে নিজের ছেলেকে জেতাতে পারে না। সে দলকে জেতাবে কি করে! শুধু সৌমিত্র একা নয়, মুকুল রায়কে তীব্র আক্রমণ করেছেন বারাকপুরের সাংসদ। অর্জুন সিংয়ের তোপ, আমি সব সময় বলতাম ওই লোকটা দলে ক্ষতি করছে। যে দলে থাকে সে দলের ক্ষতি করে। বিজেপিতে থেকেও ক্ষতি করেছেন উনি।

উল্লেখ্য, শুক্রবার সল্টলেকের বাড়ি থেকে বের হওয়ার সময়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে জানান, তৃণমূল ভবণে যাচ্ছি। আর তাঁর আগে অবশ্যই এদিন সকাল থেকে দফায় দফায় বৈঠক করেন মুকুল রায়। তাঁর অনুগামীদের সঙ্গে বৈঠক করেন তিনি। আর এর মধ্যেই মুকুল রায়ের সল্টলেকের বাড়িতে চলে আসেণ শুভ্রাংশুও। জানা যাচ্ছে, মুকুল রায়ের হাত ধরেই বিজেপিতে যোগ দেবেন শুভ্রাংশু। মুকুল রায় তৃণমূলে যোগ দিচ্ছেন এই খবর ছড়িয়ে পড়তেই ভবনের বাইরে ক্রমশ ভিড় বাড়ছে। ইতিমধ্যে কয়েক হাজার মানুষ ভিড় জমিয়েছেন ভবনের বাইরে। বিধানসভা ভোটের পর থেকেই বিজেপির সর্বভারতীয় সহ সভাপতি মুকুল রায়ের সঙ্গে দূরত্ব তৈরি হতে শুরু করেছিল দিলীপ ঘোষের। সেই ফাটল সময়ের সঙ্গে সঙ্গে চওড়া হয়েছে। মুকুল রায়কে ছাড়াই একাধিক বৈঠক করেছেন দিলীপ ঘোষ। এমনকী মুুকুল রায়ের স্ত্রীকে হাসপাতালে দেখতে যাওয়া নিয়েও দিলীপ ঘোষের সঙ্গে মুকুলের একাধিক বিষয়ে মতবিরোধ তৈরি হয়। প্রকাশ্যে মুকুল রায় অভিযোগ করেছিলেন তাঁকে না জানিয়েই হাসপাতালে গিয়েছিলেন দিলীপ। কাকে দেখতে গিয়েছিলেন তিনি জানেন না। বিজেপির হয়ে বীজপুর কেন্দ্র থেকে ভোটে দাঁড়িয়েছিলেন শুভ্রাংশু রায়। কিন্তু জিততে পারেননি। তারপরেই সুর বদল করেন শুভ্রাংশু রায়। ফেসবুকে সরকারের সমালোচনা করা নিয়ে বিজেপিকে নিশানা করেছিলেন শুভ্রাংশু। তারপর থেকেই তাঁর তৃণমূলে ফেরার জল্পনা শুরু হয়ে গিয়েছিল। তারপরেই অভিষেক মুকুল রায়ের স্ত্রীকে হাসপাতালে দেখতে গেলে সেই জল্পনা আর পারদ চড়তে শুরু করে। হাসপাতালে মুকুল রােয়র পত্নিকে দেখতে যাওয়ার ঘটনা নিয়ে শোরগোল ফেলে দিয়েছিলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। তারপরেই শুভ্রাংশু প্রকাশ্যে বলেছিলেন বিপদের সময় বোঝা যায় কে ভুল কে ঠিক। তৃণমূল ছেড়ে ভুল করেছিলাম। সেটা স্বীকার করে নিয়েছেন তিনি।

English summary
dilIp ghosh reaction after mukul roy reach tmc bhaban
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X