• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

সাইক্লোন ইয়াসের ক্ষয়ক্ষতি খতিয়ে দেখতে সাত সদস্যের কেন্দ্রীয় টিম, রাজ্যের প্রতিনিধি থাকা ঘিরে সংশয়

আছড়ে পড়েছে ইয়াস। প্রায় ঘন্টায় ১৫০ কিমি বেগে আছড়ে পড়েছে এই ঝড়। বরাত জোড়ে বেঁচে গিয়েছে বাংলা। যদিও উপকূল এলাকাতে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। দিঘা, শঙ্করপুর, মন্দারমণি ধূলিসাৎ হয়ে গিয়েছে বলে দাবি সেখাকার মানুষজনের। শুধু তাই অয় সুন্দরবনের বিশাল অংশ ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। এরপরেও ওডিশা হয়ে বাংলায় আসেন প্রধানমন্ত্রী মোদী।

সরজমিনে খতিয়ে দেখেন পরিস্থিতি। প্রধানমন্ত্রীর কাছে ইয়াসের ক্ষয়ক্ষতি ছাড়াও দিঘা ও সুন্দরবনের উন্নয়নের জন্য পৃথকভাবে ২০ হাজার কোটি টাকার প্যাকেজ দাবি করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

১ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ করে কেন্দ্রীয় সরকার

১ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ করে কেন্দ্রীয় সরকার

ইয়াসে ক্ষতিগ্রস্ত ওড়িশা, পশ্চিমবঙ্গ ও ঝাড়খণ্ডের জন্য ১ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ করে কেন্দ্রীয় সরকার। ৫০০ কোটি টাকা সঙ্গে সঙ্গে দেওয়া হয় ওড়িশাকে। ক্ষয়ক্ষতি খতিয়ে দেখার পর বাকি ৫০০ কোটি টাকা দেওয়া হবে বাংলা ও ঝাড়খণ্ডকে। ইয়াস-পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে এমনটাই ঘোষণা করেণ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। শুধু তাই নয়, বাংলার প্রয়োজনে আরও সাহায্য করা হবে বলে জানিয়ে ছিলেন প্রধানমন্ত্রী। তবে সেই ক্ষয়ক্ষতি কেন্দ্রীয় টিম খতিয়ে দেখার পরেই দেওয়া হবে বলে জানিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী।

আসছে কেন্দ্রীয় টিম

আসছে কেন্দ্রীয় টিম

সেই মতো ইয়াস দাপটে বিধ্বস্ত এলাকা পরিদর্শনে রাজ্যে আসছে কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দল। আগামী রবিবার থেকে বুধবার ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন করবেন কেন্দ্রীয় প্রতিনিধিরা। জানা গিয়েছে, কেন্দ্রীয় দলটিতে থাকছেন সাতজন সদস্য। ঘূর্ণিঝড়ের দাপটে বিধ্বস্ত পাথরপ্রতিমা, দীঘা, গোসাবা, মন্দারমণি যাবেন কেন্দ্রীয় প্রতিনিধিরা। জায়গাগুলি পরিদর্শন শেষে দিল্লিতে রিপোর্ট পাঠাবেন তাঁরা। এই বিষয় ইতিমধ্যে নবান্নের কাছে খবর পাঠিয়েছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক। যদিও সেই টিমের সঙ্গে রাজ্যের তরফে কেউ থাকবে কিনা তা এখনও জানানো হয়নি।

মোদী-মমতা বৈঠক ঘিরে বিতর্ক

মোদী-মমতা বৈঠক ঘিরে বিতর্ক

সাইক্লোন ইয়াস আছড়ে পড়ার ৪৮ ঘন্টার মধ্যেই জেলা সফর করেছেন প্রধানমন্ত্রী এবং মুখ্যমন্ত্রী। বিপর্য মোকাবিলায় একান্তে বৈঠকের কথা থাকলেও, একাধিক জটিলতা তা হতে পারেনি। শুধুমাত্র ঘূর্ণিঝড়ের ক্ষয়ক্ষতির হিসেব প্রধানমন্ত্রীর হাতে তুলে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। আর তা নিয়ে জাতীয় রাজনীতিতে শুরু হয়েছে নতুন তরজা। কীভাবে প্রধানমন্ত্রী মোদীর বৈঠক এড়িয়ে গেলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী? তা নিয়ে কম বিতর্ক হয়নি। পালটা বক্তব্য দিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যদিও রাজ্যপাল ধনখড় জানিয়েছেন, ওই বৈঠকে শুভেন্দু থাকাতেই নাকি মমতা আসবেন না বলেই আগেই জানিয়েছিলেন। এই নিয়ে তরজা চলছেই।

বাংলাকে ৪০০ কোটি!

বাংলাকে ৪০০ কোটি!

মমতা জানিয়েছেন, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে জানানো হয়েছে ইয়াসের প্রাক্কালে অগ্রিম বরাদ্দ হিসেবে অন্ধ্রপ্রদেশকে ৬০০ কোটি ও ওডিশাকে ৬০০ কোটি টাকা দেওয়া হবে। আর বাংলাকে দেওয়া হবে ৪০০ কোটি। এ কথা শুনে মমতা প্রশ্ন করেন, ‘আকারে বড় রাজ্য ও বেশি জনসংখ্যা থাকা সত্ত্বেও কেন বাংলার ক্ষেত্রে কম টাকা বরাদ্দ করা হল?' উত্তরে অমিত শাহ জানিয়েছেন, ‘এর পিছনে সায়েন্স আছে।' সাংবাদিক বৈঠকে মমতা সেই জবাব প্রসঙ্গে বলেন, ‘আমি একটু-আধটু পলিটিক্যাল সায়েন্স বুঝি, সায়েন্স টা ঠিক বুঝি না।'

English summary
cyclone yaas central team to visit west bengal
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X