• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

বাম-কংগ্রেস সমঝোতার প্রশ্নে জট, আসনরফা নিয়ে যুক্তি-পাল্টা যুক্তিতেই আটকে নেতারা

বামেদের সঙ্গে সমঝোতা নিয়ে ফের সম্মুখ সমরে অবতীর্ণ কংগ্রেস। যে দৃশ্য দেখা গিয়েছিল লোকসভা ভোটে, এবারও তার অন্যথা হচ্ছে না। সেই দু-পক্ষের গোঁ ধরে বসে থাকার জেরে এখনও জোট পাকা হল না। পুরসভা ভোট কড়া নাড়ছে দুয়ারে, তারপরেও বাম-কংগ্রেসের ব্যর্থতা, বিজেপিকে অতিরিক্ত জায়গা করে দিচ্ছে।

বাম-কংগ্রেসের আসন রফায় জট

বাম-কংগ্রেসের আসন রফায় জট

লোকসভা পরবর্তী তিন কেন্দ্রের উপনির্বাচনে বাম ও কংগ্রেস হাত মিলিয়ে লড়াই করেছিল। সেই লড়াই সেভাবে রাজ্য রাজনীতিতে প্রভাব ফেলতে পারেনি ঠিক কথাই, কিন্তু বাম-কংগ্রেসের সম্মিলিত লড়াই আসন নির্বাচনের প্রাক্কালে একতার বার্তা দিয়েছিল।

তিন ঘণ্টা টানা বৈঠকেও মেলেনি সমাধান

তিন ঘণ্টা টানা বৈঠকেও মেলেনি সমাধান

কিন্তু পুরসভা নির্বাচনের প্রাক্কালে উভয় নেতৃত্বের মধ্যে সেই মন কষাকষি। আসন নিয়ে বায়না জুড়ে জোটকে বিলম্বিত করার অভিযোগ কংগ্রেসের বিরুদ্ধে। কংগ্রেস ও বামেদের মধ্যে তিন ঘণ্টা টানা বৈঠকের পরও মেলেনি সমাধান সূত্র। বুধবার ফের বৈঠকে বসে সমাধানের রাস্তা বের করতে।

৪৫টি আসন দাবি করছে কংগ্রেস

৪৫টি আসন দাবি করছে কংগ্রেস

কলকাতা পুরভোটে ৪৫টি আসন দাবি করছে কংগ্রেস। কিন্তু সিপিএম তা দিতে রাজি নয়। সিপিএম তথা বামেদের দাবি, কলকাতায় সে অর্থে কোনও সংগঠন নেই কংগ্রেসের। কংগ্রেস তা সত্বেও ৪৫টি আসন দাবি করছে, এই দাবি মানা সম্ভব নয় বলে জানিয়ে দিয়েছে বাম নেতৃত্ব

শরিকের আসন দাবি কংগ্রেসের

শরিকের আসন দাবি কংগ্রেসের

কংগ্রেস তাঁদের সংগঠনের অস্তিত্ব জানিয়েই সিপিএমের কাছে বামেদের জেতা একটি আসন দাবি করেছে। কংগ্রেসের দাবি, ওই ওয়ার্ডে সিপিআইয়ের কোনও সংগঠন নেই। ওই ওয়ার্ডে কংগ্রেস জিততে পারে। সেই কারণেই ওয়ার্ডটি দাবি করেছে কংগ্রেস।

কংগ্রেসের ৪৫ আসনের যুক্তি

কংগ্রেসের ৪৫ আসনের যুক্তি

কংগ্রেস মনে করছে, তারা যদি ৪৫টির কম আসন পায়, তবে কর্মীদের মনোবল ভেঙে যাবে। সম্মানজনক আসন না পেলে কংগ্রেসের ভোট বামেদের দিকে যাবে কি না তা নিয়েও প্রশ্নচিহ্ন রয়েছে। কিন্তু সিপিএম বা বামেরা সেই যুক্তি মানছে না।

৩০ থেকে ৩৫টি আসন ছাড়বে সিপিএম

৩০ থেকে ৩৫টি আসন ছাড়বে সিপিএম

সিপিএম বা বামেদের তরফে কংগ্রেসকে ৩০ থেকে ৩৫টি আসন ছাড়া হতে পারে। আর শরিকদের জেতা আসনও তারা ছাড়বে না। সিপিএম শর্ত দিয়েছে, বিগত পুরসভা নির্বাচনে যে যেখানে প্রথম বা দ্বিতীয় হয়েছে, সেই আসনগুলি তাদের ছাড়া হবে। এই যুক্তি মানতে নারাজ কংগ্রেস।

যার যেখানে ক্ষমতা বেশি

যার যেখানে ক্ষমতা বেশি

কংগ্রেসের যুক্তি, বর্তমানে যার যেখানে ক্ষমতা বেশি, সে সেখানে লড়ুক। তাহলে জোটের জয়ের সম্ভাবনা বেশি থাকবে। অন্যথায় সঠিক দল ও সঠিক প্রার্থী বেছে না নেওয়ার কারণে ওয়ার্ডে হারতে হবে। সেটা সমীচিন হবে না।

সিপিএমের রফাসূত্র

সিপিএমের রফাসূত্র

সিপিএম অঙ্ক, কংগ্রেসকে তারা ৩০ থেকে ৩৫টি আসন ছাড়বে, নিজেরা লড়বে ৭০টি আসনে। সিপিআইকে ১০টি এবং ফরওয়ার্ড ব্লককে ৭টি আসন ছাড়বে তারা। বাকি আসনগুলি ভাগ করে দেওয়া হবে অন্য শরিকদের মধ্যে। এখন দেখার কোন অঙ্কে ফয়সালা হয় এই বিতর্কের।

'কংগ্রেস আর আগের মতো নেই'! ৩ শক্তিশেলে হাত শিবিরকে বিঁধলেন জ্যোতিরাদিত্য

English summary
CPM and Congress don’t get salvation to agree on seat sharing in KMC election.
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X