• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

ভ্যাকসিন তৈরির কারখানার জন্য জমি দিতে প্রস্তুত পশ্চিমবঙ্গ সরকার, মোদীকে চিঠিতে জানালেন মমতা

বাড়ছে করোনার সংক্রমণ! ইতিমধ্যে বাংলায় দৈনিক সংক্রমণের হার ২০ হাজার ছুঁইছুঁই। এই অবস্থায় দ্রুত ভ্যাক্সিনেশনের কাজ শেষ করার পরামর্শ দিচ্ছেন চিকিৎসকরা। কিন্তু কোথায় ভ্যাকসিন? কেউ মাঝ রাত তো কেউ আবার সকাল থেকে ভ্যাকসিনের জন্যে দাঁড়িয়ে খালি হাতেই ফিরছেন।

ভ্যাকসিন নিয়ে প্রধানমন্ত্রী কে আবার চিঠি মুখ্যমন্ত্রীর, ভ্যাকসিন উৎপাদন অপ্রতুল চিঠিতে উল্লেখ মমতার

এই অবস্থায় টিকা চেয়ে একাধিকবার নরেন্দ্র মোদীকে চিঠি দিয়েছেন মমতা। কিন্তু ভ্যাকসিন না পেয়ে বারবার ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন কেন্দ্রের বিরুদ্ধে। এবার ফের একবার চিটা চেয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে চিঠি দিলেন মমতা।

জমি দিয়ে সাহায্য করতে প্রস্তুত রাজ্য

জমি দিয়ে সাহায্য করতে প্রস্তুত রাজ্য

একদিকে কেন্দ্রের কাছে ভ্যাকসিন চাইলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। অন্যদিকে রাজ্যে ভ্যাকসিন উৎপাদনের জন্য আহ্বান জানালেন তিনি। পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, ভ্যাকসিনের বিপুল চাহিদা মেটাতে বিদেশি সংস্থাগুলিকে দিয়ে টিকা উৎপাদন করানো যেতে পারে। দেশে তাদের শাখা খোলার ব্যবস্থাও করা যেতে পারে। মমতা বলেছেন, কেন্দ্র যদি চায়, তবে টিকা তৈরির কারখানার জন্য জমিও দিতে পারে পশ্চিমবঙ্গ সরকার। শুধু তাই নয়, আজ বুধবার প্রধানমন্ত্রী মোদীকে লেখা চিঠিতে বেশ কিছু পরামর্শও দিয়েছেন মমতা। যেমন তিনি বলেছেন যে, বর্তমান পরিস্থিতর কথা ভেবে বিদেশ থেকে টিকা আমদানি করা যেতে পারে। তিনি লিখেছেন, ‘‘দেশের বিজ্ঞানী এবং বিশেষজ্ঞদের সাহায্য নিয়ে আমরা এখন যাচাই করে নিতেই পারি কোন বিদেশি সংস্থার তৈরি টিকা ভারতে সবচেয়ে বেশি কার্যকরী? সেই অনুযায়ী দ্রুত বিদেশ থেকে টিকা আমদানির ব্যবস্থাও করা যেতে পারে।''

প্রচুর পরিমাণ ভ্যাকসিন প্রয়োজন

প্রচুর পরিমাণ ভ্যাকসিন প্রয়োজন

এদিন প্রধানমন্ত্রী মোদীকে ভ্যাকসিন নিয়ে বিস্তারিত একটি চিঠি দেওয়া হয়েছে। মমতা প্রধানমন্ত্রীকে জানিয়েছেন যে, ভারতে যা ভ্যাকসিনের ডোজ রয়েছে, তা পর্যাপ্ত নয়। আর এই মুহূর্তে দেশের বিপুল জনসংখ্যাকে টিকা দিতে গেলে প্রচুর পরিমাণ ভ্যাকসিন প্রয়োজন। পশ্চিমবঙ্গের ১০ কোটি ও সারা দেশের ১৪০ কোটি মানুষের টিকাকরণ প্রয়োজন। অথচ এখনও পর্যন্ত যা টিকাকরণ হয়েছে, জনসংখ্যার তুলনায় তা নগণ্য। তাই ভ্যাকসিন উৎপাদনের পরিমাণ বাড়ানোর ক্ষেত্রে জোর দেওয়ার কথা বলেছেন তিনি।

ভ্যাকসিন নিয়ে একাধিক চিঠি প্রধানমন্ত্রীকে

ভ্যাকসিন নিয়ে একাধিক চিঠি প্রধানমন্ত্রীকে

গোটা দেশের মানুষকে বিনামূল্যে ভ্যাকসিন দিতে হবে। এই নিয়ে একাধিকবার প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি দিয়েছেন। শুধু চিঠিই নয়, প্রকাশ্যেও একাধিকবার এই দাবি করেছিলেন। এমনকি ভ্যাকসিনের দামের বৈষম্য নিয়েও প্রশ্ন তুলে মোদীকে চিঠি দিয়েছেন। শুধু তাই নয়, কয়েক দিন আগেই কেন্দ্রকে বিদেশে থেকে ভ্যাকসিন আনার পরামর্শ দিয়েছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেছিলেন, ‘সব ভ্যাকসিন যদি দেশের বাইরে চলে গিয়ে থাকে তাহলে, দেশের বাইরে থেকে ভ্যাকসিন আনতে হবে। ভ্যাকসিন কী ভাবে আনা হবে তা নিয়ে ভাবনা-চিন্তা করুন।'এদিনও অবশ্যই প্রধানমন্ত্রী কাছে ফের ভ্যাকসিনের দাবি করেছেন।

মমতাকে এড়িয়ে জেলা আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠক নিয়ে বিতর্ক

মমতাকে এড়িয়ে জেলা আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠক নিয়ে বিতর্ক

করোনা নিয়ে এসরাসরি রাজ্যে জেলা অফিসারদের সঙ্গে কথা বলবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। আর তা নিয়ে তৈরি হয়েছে বিতর্ক। আগামী ২০ মে সকাল ১১টায় ভার্চুয়াল বৈঠক করবেন তিনি। সিএমও-কে এড়িয়ে কেন সরাসরি বৈঠক প্রধানমন্ত্রীর? সরাসরি বৈঠক নিয়ে পিএমও-র সিদ্ধান্তে ক্ষুব্ধ রাজ্য সরকার। করোনা নিয়ে রাজ্য-জেলা অফিসারদের সঙ্গে ভার্চুয়াল বৈঠক করবেন তিনি। এই প্রসঙ্গে সৌগত রায় জানিয়েছেন, যুক্তরাষ্ট্র কাঠামোকে এভাবে অপমান করতে পারেন না প্রধানমন্ত্রী। এই বিষয়ে নিশ্চয় তাঁকে বার্তা দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

English summary
cm mamata banerjee writes letter to pm modi offers land for manufacture corona vaccine company
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X