India
  • search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts
Oneindia App Download

কোন মুখে উদ্বাস্তু ভোট চাইব, ২০২৪-এর বিজেপি বিধায়কের হতাশায় নয়া জল্পনা

Google Oneindia Bengali News

২০১৯-এর লোকসভা নির্বাচন থেকে শুরু হয়েছিল প্রতিশ্রুতির বন্যা। তার কিয়দংশও পূর্ণ হয়নি এখনওষ মতুয়ারা তিতিবিরক্ত। সিএএ কার্যকর হয়নি, নাগরিকত্বের সার্টিফিকেটও পাওয়া হয়নি মতুয়া মহলের উদ্বাস্তুদের। তাহলে এবার কোন মুখে তাঁরা উদ্বাস্তু ভোট চাইবেন, হতাশা ঝরে পড়ল বিজেপি বিধায়কের কথায়, সেইসঙ্গে শুরু হল জল্পনা।

হতাশা ঝরে পড়ল খোদ বিধায়কের গলায়

হতাশা ঝরে পড়ল খোদ বিধায়কের গলায়

সিএএ অর্থাৎ নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন এখনও কার্যকর করতে পারেনি কেন্দ্রের বিজেপি সরকার। অথচ ২০১৯ ও ২০২১ দু-দুটি সাধারণ নির্বাচন কাটিয়ে দিয়েছে বিজেপি। শুধু প্রতিশ্রুতি দিয়ে আদায় করে নিয়েছে ভোট। এবার তারা কোন মুখে ভোটারদের পাশে গিয়ে দাঁড়াবেন, কী বলবেন ভোটারদের? এবার তো উল্টে তাদেপরই প্রশ্নের মুখে পড়তে হবে। হতাশা ঝরে পড়ল খোদ বিধায়কের গলায়।

উদ্বাস্তু ভোট চাইব কোন মুখে, প্রশ্ন বিধায়কের

উদ্বাস্তু ভোট চাইব কোন মুখে, প্রশ্ন বিধায়কের

বিজেপি বিধায়ক ২০২১ সালে প্রতিশ্রুতির বন্যা বইয়ে জিতেছিলেন। ২০১৯-এর পরও ২০২১-এ বিজেপির উপর আস্থা রেখেছিল মতুয়া মহলের মানুষজন। উদ্বাস্তুরা ঢেলে ভোট দিয়েছিলেন বিজেপিকে। তারই জেরে মতুয়া মহলের বেশ কিছু আসনে প্রভাব-প্রতিপত্তি ধরে রাখতে সমর্থ হয়েছিল বিজেপি। কিন্তু এবার আর তারা উদ্বাস্তু ভোট চাইতে পারবেন না, যদি না সিএএ কার্যকর হয়!

সিএএ নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য বিজেপি বিধায়কের

সিএএ নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য বিজেপি বিধায়কের

হরিণঘাটার বিজেপি বিধায়ক অসীম সরকার এবার সিএএ নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করে বসলেন। তিমি সম্প্রতি বলে বসেন, আগামী দিনে তাঁদের পক্ষে আরও কঠিন পরিস্থিতি আসছে। যদি সিএএ কার্যকর না হয়, তবে তাঁরা আর ভোটারদের কাছে মুখ দেখাতে পারবেন না। ২০১৯ সালে কেন্দ্রের বিজেপি সরকার নাগরিকত্ব অ্যামেন্ডমেন্ট বিল বা নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল পাস করেছিলেন। কিন্তু তা আইনে পরিণত হলেও, কার্যকর করতে পারেনি বিজেপি সরকার।

বিজেপি নেতাদের আর মুখ থাকবে না ভোট চাওয়ার

বিজেপি নেতাদের আর মুখ থাকবে না ভোট চাওয়ার

সিএএ কার্যক না হওয়ায় এবং নাগরিকত্বের তকমা না পাওয়ায় উদ্বাস্তুরা রীতিমতো ক্ষুব্ধ বিজেপির প্রতি। তাই বিজেপি বিধায়ক আশঙ্কা করেছেন, ২০২৪ সালে লোকসভা নির্বাচনের আগে সিএএ কার্যকর না হলে উদ্বাস্তুরা বিজেপির পাশে থাকবে না। মতুয়া সম্প্রদায়ের মানুষজন বিজেপির পাশ থেকে দূরে সরে যেতে শুরু করেছেন ইতিমধ্যেই। বিজেপি নেতাদের আর মুখ থাকবে না, তাঁদের কাছে ভোট চাওয়ার।

বিজেপিই একমাত্র দল, যাঁরা উদ্বাস্তুদের কথা ভেবেছে

বিজেপিই একমাত্র দল, যাঁরা উদ্বাস্তুদের কথা ভেবেছে

বিধানসভা থেকে বেরিয়ে বিজেপির বিধায়ক অসীম সরকার জানিয়েছেন, দেশের মধ্যে বিজেপিই একমাত্র দল, যাঁরা উদ্বাস্তুদের কথা ভেবেছে। সে কারণেই ২০১৯-এ জিতেই নাগরিকত্ব বিল পাস করেছে। তা আইনে রূপান্তরিত করেছে। যার ফলে উদ্বাস্তুরা আলো দেখতে শুরু করেছিল। কিন্তু তিন বছরেও তা রূপায়ণ করতে না পারায় উদ্বাস্তুরা আশাহত হয়েছে।

বিজেপির সঙ্গে তাঁর কোনও মতানৈক্য নেই, প্রশ্ন আছে

বিজেপির সঙ্গে তাঁর কোনও মতানৈক্য নেই, প্রশ্ন আছে

বিজেপি বিধায়ক অসীম সরকার বলেন, আমি উদ্বাস্তুদের প্রতিনিধি। আমিও তাঁদের ভোটে নির্বাচিত হয়েছি। আমিও চাই সিএএ কার্যকর হোক। উদ্বাস্তুরা নাগরিকত্ব পাক। কিন্তু এখনও যদি তা কার্যকর না হয়, উদ্বাস্তুদের দেওয়া প্রতিশ্রুতি যদি আমরা না রাখতে পারি, তাহলে কী করে আমরা ভোট চাইব আগামী দিনে। তিনি বলেন, বিজেপির সঙ্গে তাঁর কোনও মতানৈক্য নেই। কিন্তু প্রতিশ্রুতি পূরণ না হওয়া তাঁকে যন্ত্রণা দিচ্ছে। তা উদ্বাস্তুদের বিশ্বাসে আঘাত করার শামিল।

বাম-তৃণমূল আঁতাত দেখছে বিজেপি, রাজ্যে পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগে প্রচার সুকান্তদেরবাম-তৃণমূল আঁতাত দেখছে বিজেপি, রাজ্যে পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগে প্রচার সুকান্তদের

English summary
BJP MLA increases speculation with Matua vote in 2024 Lok sabha election due to CAA not applied
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X