• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

তৃণমূলের বিধায়ক-মন্ত্রীদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছে বিজেপি, ২০২১-এর আগে পুরো তালিকা তৈরি

তৃণমূল কংগ্রেসের বিধায়কদের সঙ্গে যোগাযোগ রেখে চলছে বিজেপি। শুধু বিধায়ক নয়, তৃণমূলের অনেক নেতার দিকে তাদের নজর রয়েছে। বঙ্গ বিজেপির নেতারাই শুধু নন, কেন্দ্রীয় নেতারাও তৃণমূলের বিধায়কদের সঙ্গে আলোচনা চালাচ্ছে। এরই মধ্যে গুঞ্জন শুরু হয়েছে অনেকের ভূমিকা নিয়ে। ২০২১-এর লক্ষ্যে বিজেপি এরই মধ্যে নেমে পড়েছে ময়দানে।

তালিকায় রয়েছে বাঘা বাঘা নাম

তালিকায় রয়েছে বাঘা বাঘা নাম

কলকাতার রাজনৈতিক মহলে গুঞ্জন শুরু হয়েছে তৃণমূলের অনেক হেভিওয়েট নেতাকে নিয়ে। অমিত শাহ নিজে ঘাঁটি গেড়েছেন রাজ্যে তৃণমূলকে ভাঙতে। তাঁর তৈরি করা তালিকায় রয়েছে বাঘা বাঘা নাম। এই তালিকায় তৃণমূল কংগ্রেসের এমন নাম রয়েছে, যা শুনলে তৃণমূল কংগ্রেস চমকে উঠবে, এমনটাই বলছে বিজেপি।

২০২১-এর আগে ফের পুরনো খেলা

২০২১-এর আগে ফের পুরনো খেলা

অতীতে বেশ কয়েকজন তৃণমূল নেতা বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন। বিশেষ করে ২০১৯-এর আগে ও পরে বহু নেতা তৃণমূল ভেঙে বিজেপিতে নাম লিখিয়েছিলেন। তাঁদের অনেককেই লোকসভা নির্বাচনে প্রার্থী করা হয়েছিল। তাঁদের বেশিরভাগই আজ সাংসদ। বাকিরাও পদ পেয়েছেন দলে। এই পরিস্থিতিতে ২০২১-এর আগে সেই খেলা শুরু করতে চলেছে বিজেপি।

তৃণমূল কংগ্রেসের কোমর ভেঙে দিতে

তৃণমূল কংগ্রেসের কোমর ভেঙে দিতে

২০২১-এ তৃণমূলকে জবরদস্ত ঝটকা দিতে বিজেপি এখন শসাক দলের বেশিরভাগ বিধায়কদের সঙ্গে যোগাযোগ রেখে চলেছে। তাঁদের গেরুয়া পার্টিতে আসার পথ প্রশস্ত করে্ চলেছে। বিধানসভা নির্বাচনের আর ১০ মাস বাকি। এই সময়ে তৃণমূল কংগ্রেসের কোমর ভেঙে দিতে পারলে আর উঠে দাঁড়াতে পারবে না। সেই লক্ষ্যই স্থির করেছে বিজেপি।

বিজেপির টার্গেটের প্রথম নাম কার

বিজেপির টার্গেটের প্রথম নাম কার

সবথেকে অবাক করার মতো বিষয় হ'ল বিজেপি রাজ্যের শাসকদলের কয়েকজন মন্ত্রীর উপর নজর রাখছে। তাঁদের মধ্যে বিজেপির টার্গেটের প্রথম নাম শুভেন্দু অধিকারী। অনেকদিন ধরেই তৃণমূলের হেভিওয়েট নেতা শুভেন্দু অধিকারীর দিকেই লক্ষ্য বিজেপির। বহুবার শুভেন্দু অধিকারীর বিজেপি যোগদান নিয়ে জল্পনা শুরু হয়েছে। প্রতিবারই শুভেন্দু অধিকারী তা প্রত্যাখ্যান করেছেন।

তৃণমূলের অনেক নেতার সঙ্গে যোগাযোগ

তৃণমূলের অনেক নেতার সঙ্গে যোগাযোগ

শুভেন্দু অধিকারীকে দলে নেওয়ার ব্যাপারে বিজেপি আগ্রহ প্রকাশ করেছে বলে বহুবার খবরও হয়েছে। এ বিষয়ে বঙ্গ বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, এ ব্যাপারে তাঁর কোনও ধারণা নেই, তিনি এ ব্যাপারে কিছুই জানেন না। তবে বিজেপি যে তৃণমূলের অনেক নেতার সঙ্গে যোগাযোগ রাখছে, তা সত্য। তৃণমূল নেতারাও তাঁদের সঙ্গে যোগাযোগ রেখে চলেন।

বিজেপি এত লোভী নয় যে তৃণমূল ভাঙাবে

বিজেপি এত লোভী নয় যে তৃণমূল ভাঙাবে

বিজেপি কেন অন্য দল ভাঙানোর দিকেই দৃষ্টি দিচ্ছে। এ ব্যাপারে দিলীপ ঘোষ বলেন, বিজেপি এত লোভী নয় যে, অন্য দলের রাজনীতিবিদদের দিকে নজর দেবে। তাঁদের দলে নেওয়ার জন্য উন্মুখ হয়ে থাকে। বিজেপি শুধু তাঁদেরই দলে নিয়েছে বা নিতে চাইছে, যে সব তৃণমূল নেতারা গেরুয়া শিবিরে যোগ দিতে আগ্রহী।

শাহ-মুকুলের জন্য পৃথক অফিস

শাহ-মুকুলের জন্য পৃথক অফিস

বিজেপি সূত্রে জানা গিয়েছে, মুকুল রায়কে এই ধরনের রাজনৈতিক ‘অভ্যুত্থান' তদারকি করার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। কলকাতার নিউ টাউন বা সল্টলেকে পৃথক অফিস হচ্ছ তার জন্য। বিজেপির প্রাক্তন সর্বভারতীয় সভাপতি তথা কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের জন্যও একটি অফিস তৈরি করা হচ্ছে। কারণ শাহ এবার বিধানসভা নির্বাচনের জন্য পশ্চিমবঙ্গে অনেক বেশি সময় দেবেন।

তৃণমূল ভেঙে গেরুয়া শিবিরের শক্তি বৃদ্ধির দায়িত্ব

তৃণমূল ভেঙে গেরুয়া শিবিরের শক্তি বৃদ্ধির দায়িত্ব

বিজেপির পক্ষ থেকে থেকে মুকুল রায়কে মূলত দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে তৃণমূল ভেঙে গেরুয়া শিবিরের শক্তি বৃদ্ধি করার। যে সমস্ত তৃণমূল নেতা বিজেপিতে আসতে চান তাঁদেরকে যোগদান করানো ছাড়াও যাঁরা দলে যোগ দিতে শর্তও রেখেছেন, তাঁদের বিজেপিতে অন্তর্ভুক্ত করাও মুকুল রায়ের কাজ হবে।

বিয়ে বাড়িতে ৫০ জন জমায়েত হওয়া যাবে, জানালেন মুখ্যমন্ত্রী

তৃণমূলের থেকে সিপিএম ভালো! ভার্চুয়াল সমাবেশে জানাল বিজেপি, শুরু জোর তরজা

English summary
BJP contracts with TMC MLAs and ministers also before 2021 Assembly Election. Many heavyweight ministers name in list of BJP,
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X