• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

কাঁটে কা টক্করে এবার চার প্রার্থী, নির্বাচনের আগে ফিরে দেখা জঙ্গিপুরের ভোটের ইতিহাস

প্রথম দু-দফায় পাঁচটি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ হয়ে গিয়েছে। এবার ২০১৯-এর লোকসভা যুদ্ধে তৃতীয় দফার ভোটগ্রহণের অপেক্ষা। এই দফায় বাংলায় পাঁচটি কেন্দ্রে ভোট হচ্ছে। বালুরঘাট, উত্তর মালদহ, দক্ষিণ মালদহ, মুর্শিদাবাদ ও জঙ্গিপুরে ভোট হবে এই দফায়। তার আগে ৫ কেন্দ্রের ভোট ইতিহাসের দিকে ফিরে দেখা যাক। একঝলকে জঙ্গিপুরের ভোট ইতিহাস।

জঙ্গিপুর

জঙ্গিপুর

বাংলার ৪২ লোকসভার কেন্দ্রের মধ্যে ন-নম্বর লোকসভা কেন্দ্র হল এই জঙ্গিপুর। ৬৭ সাল থেকেই কংগ্রেস ও সিপিএম ভাগাভাগি করে নিয়েছে এই জঙ্গিপুর লোকসভা কেন্দ্রের দখল। শেষ চারবার কংগ্রেসই এখানে আধিপত্য বিস্তার করেছে। সিপিএমকে মাত দিয়েছে কংগ্রেস। এবার তৃণমূল-বিজেপির কড়া চ্যালেঞ্জের মুখে কংগ্রেস।

কোন কোন বিধানসভা

কোন কোন বিধানসভা

জঙ্গিপুর লোকসভা কেন্দ্রের মধ্যে সাতটি বিধানসভা কেন্দ্র হল- সুতি, জঙ্গিপুর, রঘুনাথগঞ্জ, সাগরদিঘি, লালগোলা, নবগ্রাম ও খড়গ্রাম। এই সাতটি বিধানসভা কেন্দ্রের সব কটিই মুর্শিদাবাদ জেলার অন্তর্গত।

১৯৬৭ ও ১৯৭১-এর নির্বাচন

১৯৬৭ ও ১৯৭১-এর নির্বাচন

১৯৬৭ ও ১৯৭১ সালের দুই নির্বাচনে এই কেন্দ্র থেকে বিজয়ী হয় কংগ্রেস। কংগ্রেসের লুৎফল হক সাংসদ নির্বাচিত হন মুর্শিদাবাদের জঙ্গিপুর কেন্দ্র থেকে। এরপর ১৯৭৭ সালে ঘটে পালাবদল। কংগ্রেসের হাত থেকে এই কেন্দ্রটি ছিনিয়ে নেয় সিপিএম।

১৯৭৭ সাল থেকে ১৯৯১

১৯৭৭ সাল থেকে ১৯৯১

১৯৭৭ সাল থেকে ১৯৯১ পর্যন্ত মোট পাঁচটি নির্বাচন হয়েছে জঙ্গিপুর কেন্দ্রে। ৭৭ সালে কংগ্রেসের কাছ থেকে এই আসনটি ছিনিয়ে নেয় সিপিএম। সিপিএমের শশাংকশেখর স্যান্যাল বিজয়ী হয়ে সংসদে যান। এরপর সিপিএমের জয়নাল আবেদিন জঙ্গিপুর কেন্দ্র থেকে পরপর চারবার সাংসদ নির্বাচিত হন।

১৯৯৬ থেকে ১৯৯৯

১৯৯৬ থেকে ১৯৯৯

১৯৯৬ থেকে ১৯৯৯ সাল পর্যন্ত তিনটি নির্বাচন হয়। ৯৬-এর নির্বাচনে সিপিএমকে হারিয়ে কংগ্রেস এই কেন্দ্রে জয়ী হয়। সাংসদ নির্বাচিত হন কংগ্রেসের মহম্মদ ইদ্রিশ আলি। তারপরের দুই নির্বাচনে অর্থাৎ ৯৮ ও ৯৯ সালে জঙ্গিপুর থেকে বিজয়ী হন সিপিএমের আবুল হাসনাত খান।

২০০৪ থেকে ২০১৪

২০০৪ থেকে ২০১৪

২০০৪ থেকে ২০১৪ পর্যন্ত মোট চারটি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ২০০৪ সালে এই কেন্দ্র থেক বিজয়ী হন কংগ্রেসের প্রণব মুখোপাধ্যায়। পরেরবার অর্থাৎ ২০০৯ সালেও জয়ী হন প্রণববাবু। ২০১২ সালে তিনি রাষ্ট্রপতি মনোনীত হওয়ার পর ফের ভোট হয় এই কেন্দ্রে। সাংসদ নির্বাচিত হল প্রণব-পুত্র অভিজিৎ মুখোপাধ্যায়। ২০১৪ সালেও তিনি বিজয়ী হন।

২০১৪ নির্বাচনের ফল

২০১৪ নির্বাচনের ফল

২০১৪ সালে জঙ্গিপুর কেন্দ্র থেকে বিজয়ী হন কংগ্রেসের অভিজিৎ মুখোপাধ্যায়। তিনি মাত্র ৮ হাজার ১৬১ ভোটে জয়ী হন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন সিপিএমের মোজাফ্ফর হোসেন। তৃতীয় হন তৃণমূলের শেখ নুরুল ইসলাম। বিজেপির সম্রাট ঘোষ চতুর্থ হন এই নির্বাচনে।

২০১৪ সালে কার কত ভোট

২০১৪ সালে কার কত ভোট

২০১৪ সালে কংগ্রেস পেয়েছিল ৩,৭৮,২০১ ভোট। সিপিএম পেয়েছিল ৩,৭০,০৪০ ভোট। তৃতীয় স্থানে তৃণমূল পেয়েছিল ২,০৭,৪৫৫ ভোট। আর বিজেপির প্রার্থী ভোট পান ৯৬,৭৫১। এছাড়া এসডিপিআই, নির্দল ও নোটায় ১০ হাজারেরও উপর ভোট পড়ে।

২০১৯-এ কারা প্রার্থী

২০১৯-এ কারা প্রার্থী

কংগ্রেসের তাদের সিটিং এমপি অভিজিৎ মুখোপাধ্যায়কেই প্রার্থী করেছে এবারও। সিপিএমের প্রার্থী হয়েছেন জুলফিকার আলি। বিজেপির প্রার্থী মাফুজা খাতুন। আর তৃণমূল কংগ্রেস এই কেন্দ্রে প্রার্থী করেছে খলিলুর রহমানকে।

[আরও পড়ুন: বিজেপির আসন কমতে পারে প্রত্যাশার থেকে! দু-দফার ভোট দেখে সমীক্ষকদের মত ]

[আরও পড়ুন:২০১৯ লোকসভা ভোটে ব্যারাকপুর আসন থেকে অর্জুন-দীনেশের লড়াইয়ে এগিয়ে কে? জ্যোতিষশাস্ত্র কী বলছে ]

lok-sabha-home
English summary
At a glance Jangipur Lok Sabha seats before 2019 Election. In 2019 Lok Sabha election of Jangipur South four parties are in fight
For Daily Alerts

Oneindia - এর ব্রেকিং নিউজের জন্য
সারাদিন ব্যাপী চটজলদি নিউজ আপডেট পান.

Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X

Loksabha Results

PartyLWT
BJP+3400340
CONG+88088
OTH1100110

Arunachal Pradesh

PartyLWT
BJP14014
CONG000
OTH202

Sikkim

PartyLWT
SDF606
SKM505
OTH000

Odisha

PartyLWT
BJD82082
BJP23023
OTH10010

Andhra Pradesh

PartyLWT
YSRCP1500150
TDP24024
OTH101

AWAITING

Nandamuri Balakrishna - TDP
Hindupur
AWAITING
We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Oneindia sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Oneindia website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more