• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

বিকেলেই বাংলায় আঘাত হানছে আম্ফান, ঘূর্ণিঝড় ঠেকাতে সরকারি পদক্ষেপ গুলি জেনে নিন

  • |

ক্রমেই শক্তি বাড়াচ্ছে সুপার সাইক্লোন আম্ফান। বুধবার দুপুরের মধ্যেই দীঘা ও হাতিয়া দ্বীপের কাছাকাছি জায়গা থেকেই স্থলভাগে ঢুকবে ওই ঝড়। আবহাওয়া দফতর সূত্রের খবর স্থলভাগে ১৫৫ থেকে ১৬৫ কিলোমিটার গতিবেগে স্থলভাগ দাপাবে ওই ঘূর্ণিঝড়।

লাল সতর্কতা জারি প্রতিটি উপকূলীয় জেলায়

লাল সতর্কতা জারি প্রতিটি উপকূলীয় জেলায়

এমনকী সর্বোচ্চ গতিবেগ পৌঁছাতে পারে ১৮৫ কিলোমিটার পর্যন্ত। দীঘা ও বাংলাদেশের হাতিয়া দ্বীপের মাঝে ১৫৫ কিলোমিটার এলাকা পর্যন্ত ব্যাপক ভূমি ধসের আশঙ্কা করা হচ্ছে। ইতিমধ্যেই বাংলাদেশ ও পশ্চিমঙ্গের সমস্ত উপকূলীয় জেলায় লাল সতর্কতা জারি কার হয়েছে। ইতিমধ্যেই পশ্চিমবঙ্গের উপকূলীয় এলাকা থেকে প্রায় তিন লক্ষ মানুষকে নিরাপদ জায়গায় সরিয়েছে পশ্চিমবঙ্গ সরকার। এর মধ্যে ৬৭ শতাংশ মানুষই উত্তর ২৪ পরগণা, দক্ষিণ ২৪ পরগণা, পূর্ব ও পশ্চিম মেদিনীপুরের বাসিন্দা।

২০ লক্ষ মানুষকে নিরাপদ জায়গায় সরিয়েছে বাংলাদেশ সরকার

২০ লক্ষ মানুষকে নিরাপদ জায়গায় সরিয়েছে বাংলাদেশ সরকার

পাশাপাশি দেশের উপকূলবর্তী এলাকা থেকে ইতিমধ্যেই প্রায় ২০ লক্ষ মানুষকে নিরাপদ জায়গায় সরানো হয়েছে বাংলাদেশ সরকারের তরফে। ক্ষয়ক্ষতি রোধে রাস্তায় নেমেছে আধাসেনা ও বিপর্যয় মোকাবিলা দল। এদিকে আম্ফানের কবলে পড়ে বিপর্যয় এড়াতে ভারতীয় রেলের তরফেও একাধিক সতর্কতা মূলক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। পরিযায়ী শ্রমিকদের জন্য বরাদ্দ একাধিক শ্রমিক স্পেশাল ট্রেনের রুট বদলও করা হয়েছে বলে জানা যাচ্ছে।

চার জেলায় তীব্র বেগে বইতে পারে ঝড়ো হাওয়া

চার জেলায় তীব্র বেগে বইতে পারে ঝড়ো হাওয়া

এদিকে ইতিমধ্যেই গোটা বাংলা জুড়ে আম্ফানের প্রভাব পড়তে শুরু করেছে। বুধবার দুপুরের পর ধ্বংসলীলা চালানোর কথা থাকলেও ইতিমধ্যেই উপকূলবর্তী জেলাগুলিতে বৃষ্টি শুরু হয়েছে বলে জানা যাচ্ছে। এই মহূর্তে কলকাতা থেকে মাত্র ৩০০ কিলোমিটার দূরে অবস্থান করছে আম্ফান। দুপুরের আগে থেকেই কলকাতা, হাওড়া, হুগলি পশ্চিম মেদিনীপুরে ঘণ্টায় ১১০-১৩০ কিলোমিটার ঝড়ো হাওয়া বইতে পারে বলে জানা যাচ্ছে।

রাজ্য সরকারের তরফ থেকে দু লক্ষ মাস্ক ও পিপিই কিট প্রদান

রাজ্য সরকারের তরফ থেকে দু লক্ষ মাস্ক ও পিপিই কিট প্রদান

পাশাপাশি আম্ফানের ক্ষয়ক্ষতি ঠেকাতে বিপর্যয় মোকাবিলা দলের তরফেও একাধিক ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। একযোগে কোমড় বেঁধে নেমেছে সরকারও। আম্পান বিপর্যয়ের মাঝে করোনা ভ্রুকুটিও পিছু ছাড়ছে না বামলার মানুষের। তাই এই সুযোগে নতুন করে সংক্রমণ ঠেকাতে ইতিমধ্যে ত্রাণের জন্য নিযুক্ত ও বিপর্যয় মোকাবিলা দলের সদস্যদের হাতে প্রায় দু লক্ষ মাস্ক ও পিপিই কিট তুলে দেওয়া হয়েছে সরকারের তরফে।

শহর থেকে গ্রামে ব্যাপক ক্ষতি : মুখ্যমন্ত্রী

আম্ফানের তাণ্ডব লীলার মাঝে ভূমিকম্পে কেঁপে উঠল বাংলা! প্রকৃতির রোষে রাজ্য

English summary
Cyclone Amphan is rushing towards Bengal with increasing strength
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X