• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

এবার জুয়ায় চলবে সরকার, মমতার সরকারের বিরুদ্ধে কেন এমন অভিযোগ দিলীপের, জেনে নিন

মেলা-খেলা-উৎসবে চলছিল সরকার। এবার যোগ হল জুয়া। রাজ্য সরকারের প্রতিদিনের লটারি নিয়ে এমনটাই কটাক্ষ করলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। সরকারি সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে পথে নামতে চলেছে বিজেপি, বাম, কংগ্রেস সবাই।

এবার জুয়ায় চলবে সরকার, মমতার সরকারের বিরুদ্ধে কেন এমন অভিযোগ দিলীপের, জেনে নিন

জানুয়ারি থেকে শুরু হচ্ছে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য লটারির প্রতিদিনের খেলা। এনিয়ে বিজ্ঞপ্তিও জারি হয়ে গিয়েছে। আর এই নিয়ে শুরু হয়েছে বিরোধীদের বিরোধিতা।

বিরোধী নেত্রী থাকাকালীন অবস্থায় অনলাইন 'সুপারলোটো'র বিরোধিতা করেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বিষয়টি নিয়ে বনধও ডেকেছিলেন তিনি। ক্ষমতায় আসার বছর দুয়েকের মধ্যেই তা বন্ধ করে দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই সরকারেরই মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমের সাফাই রাজ্যের অর্থনীতির স্বার্থেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তাঁর দাবি, রাজ্য থেকে লটারির টাকা অন্য রাজ্যে যাওয়া বন্ধ করতেই এই সিদ্ধান্ত রাজ্য সরকারের।

বিরোধীদের বক্তব্য, রাজ্যে শিল্প নেই, কর্মসংস্থান নেই। রাজ্যের এই নতুন সিদ্ধান্ত বেকার ও গরিব মানুষকে সর্বস্বান্ত করবে। বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের বক্তব্য, মেলা-খেলা-উৎসবে সরকার চলছিল। এবার জুড়ছে জুয়া।

এবার জুয়ায় চলবে সরকার, মমতার সরকারের বিরুদ্ধে কেন এমন অভিযোগ দিলীপের, জেনে নিন

সিপিএম সাংসদ মহম্মদ সেলিমের অভিযোগ, বড় শিল্প না হওয়ায় রাজ্য সরকার আবগারি লাইসেন্স, লটারি থেকে এখন রাজস্ব আদায় করছে। বিরোধী নেত্রী থাকাকালীন মদের দোকানের লাইসেন্স আর অনলাইন লটারির বিরুদ্ধে আন্দোলন নাটক ছিল বলেও কটাক্ষ করেন সেলিম। অন্যদিকে, প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরীর মন্তব্য, রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী যদি বিদেশ থেকে শিল্প আনতে পারতেন, তাহলে পশ্চিমবঙ্গে জুয়াশিল্পকে মদত দিতেন না

English summary
All the opposition parties of West Bengal opposing state's decision to begin everyday lottery. State minister Firhad Hakim says, due to financial condition, state has decided this.
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X