যুবভারতী-র 'দু-দিনের' জট কাটাতে ক্রীড়ামন্ত্রীর দ্বারস্থ লাল-হলুদ, বাগানেরও থাকছে অশনি সংকেত

  • Posted By: Debalina
Subscribe to Oneindia News

দু'দিনের জটিল জটে আটকে হাঁসফাঁস অবস্থা ইস্টবেঙ্গলের। ২৬ তারিখ যুবভারতীতে আইএসএলের ম্যাচ খেলবে এটিকে আর ২৮ তারিখে সেখানেই খেলার কথা ইস্টবেঙ্গলের। এই ৪৮ ঘন্টার ব্যবধানেই গোলযোগ বেধেছে। রাজ্য ক্রীড়া দফতরের নয়া নিয়ম অনুযায়ি দুই দিনের ব্যবধানে ম্যাচ করা যাবে না সল্টলেক স্টেডিয়ামে।

যুবভারতী-র 'দু-দিনের' জট কাটাতে ক্রীড়ামন্ত্রীর দ্বারস্থ লালহলুদ, বাগানেরও থাকছে অশনি সংকেত

[আরও পড়ুন:ঐতিহ্য ধুয়ে আর কত জল খাবে মোহন- ইস্ট , কুশল দাসের বোমা, পাল্টা দিল দুই প্রধান ]

আঠাশ তারিখ যুবভারতীতে ম্যাচ আয়োজনের জন্য এখনও সবুজ সংকেত আসেনি রাজ্য ক্রীড়া দফতরের থেকে । ফলে , টিকিট ছাপানোর প্রক্রিয়াও গেছে থমকে । ফেডারেশনকে আবেদন করা হয়েছিল ম্যাচ একদিন পিছিয়ে দেওয়ার জন্যে। কিন্তু সিদ্ধান্তে অনড় । ফলে ম্যাচ আয়োজনে বিপাকে লালহলুদ শিবির । এরপরেও যুবভারতীতে ম্যাচ আয়োজনের সন্মতি এলেও টিকিট ছাপানো ও বন্টন প্রক্রিয়া করার জন্য পর্যাপ্ত সময় পাওয়া যাবে না । মাঝে শনি ও রবিবার দুদিন ছুটিরদিনে টিকিট বন্টন প্রক্রিয়া থমকে যাবে । ফলে , হাতে মাত্র তিনদিন সময় নিয়ে পুরো প্রক্রিয়াটি কতটা সুষ্ঠভাবে সম্পূর্ণ করা যাবে , তা নিয়ে চিন্তিত লালহলুদ কর্তারা ।

অনুমতি না মিললে টিকিট নিয়ে কোনও বিজ্ঞপ্তিও দিতে পারছেনা ক্লাব।এখন,রাজ্যক্রীড়া দপ্তরের দিকে তাকিয়ে গোটা ইস্টবেঙ্গল ক্লাব।
এছাড়া ফেডারেশন অনুমতি দিলে, নিজেদের প্রথম ম্যাচে প্রিয়রঞ্জন দাশমুন্সির মৃত্যুতে একমিনিট নীরবতা পালন করবে ইস্টবেঙ্গল । এদিকে রাজ্যের ক্রীড়ামন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস এই মুহূর্তে শহরে নেই। ফলে সরাসরি কথা বলা যাচ্ছে না তাঁর সঙ্গে। তবে লালহলুদ আশা করছে অন্তত ওয়াকওভার দিতে হবে না গতবারের চ্যাম্পিয়ন আইজল এফ সি-র বিরুদ্ধে। কারণ রাজ্যের এই ক্লাবগুলির সম্মান রক্ষার বিষয়ে সদা উদ্যোগী মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়। তাই অরূপ বিশ্বাসও কিছু একটা সমাধানসূত্র বার করতে পারবেন।

তবে শুধু এই ম্যাচেই এই দু'দিনের গ্যাপের সমস্য়া রয়েছে তা নয়। এআইএফএফ যে ক্রীড়াসূচি প্রকাশ করেছে তাতে আরও বেশ কিছু ম্যাচে এই দু'দিনের গ্যাপের সমস্যা রয়েছে। এই এটিকে-র ম্যাচের দু দিন পরে ইস্টবেঙ্গলের ম্যাচের সমস্যার পর ফের সমস্যায় পড়বে মোহনবাগান। ৯ তারিখ ও ১০ তারিখ ম্যাচ রয়েছেন যুবভারতীতে। ৯ তারিখ খেলবে ইস্টবেঙ্গল, আর ১০ তারিখ খেলবে মোহনবাগান। যেখানে ৪৮ ঘন্টার পার্থক্যেই মাঠ পাওয়া যাওয়া নিয়ে অনিশ্চয়তা , সেখানে ২৪ ঘন্টার পার্থক্যে কীভাবে যুবভারতীতে দুটি ম্যাচ হবে সেটাও কিন্তু বড় প্রশ্ন।

যুবভারতী-র 'দু-দিনের' জট কাটাতে ক্রীড়ামন্ত্রীর দ্বারস্থ লালহলুদ, বাগানেরও থাকছে অশনি সংকেত
যুবভারতী-র 'দু-দিনের' জট কাটাতে ক্রীড়ামন্ত্রীর দ্বারস্থ লালহলুদ, বাগানেরও থাকছে অশনি সংকেত

এরপরেও ক্রীড়াসূচি ধরে এগোলে আরও কয়েকটি গলদ রয়েছে যেমন ১৪ ও ১৬ তারিখ ম্যাচ রয়েছে যথাক্রমে মোহনবাগান ও ইস্টবেঙ্গলের। ২৯ ডিসেম্বর, ৩১ ডিসেম্বর ও ২ জানুয়ারি পরপর দু'দিন করে পার্থক্যে একটি করে ম্যাচ রয়েছে। ফলে অবস্থা বেশ চাপের এরমধ্যে রাজ্য সরকারকে বড়োভাবে কোনও সমাধানসূত্র বার করতে হবে, নয়তো পুরো ফুটবল সিজনে বিভিন্ন সময়ে ভুগতে হবে বিভিন্ন দলকে।

[আরও পড়ুন:'রয়াল ' ফর্মে রিয়াল মাদ্রিদ, রোনাল্ডো- বেঞ্জিমার জুটি -তে লুটি ]

English summary
East Bengal has not get nod for using Yuvabharati but hopes Arup Biswas will intervein
Please Wait while comments are loading...

Oneindia - এর ব্রেকিং নিউজের জন্য
সারাদিন ব্যাপী চটজলদি নিউজ আপডেট পান.