• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts
Oneindia App Download

টোকিও প্যারালিম্পিকে নারীশক্তির জয়গান অবনীর, জোড়া পদকজয়ীর কিংবদন্তি হওয়ার পথ দৃষ্টান্ত

Google Oneindia Bengali News

আপন ভাগ্য জয় করে আজ অদ্বিতীয়া হয়ে গেলেন অবনী লেখরা। জয়পুরের ১৯ বছরের এই কন্যা আজ কিংবদন্তি। টোকিও প্যারালিম্পিকে ভারতকে প্রথম সোনাটি এনে দিয়েছিলেন তিনিই। আজ জিতলেন ব্রোঞ্জ। এর আগে কোনও ভারতীয় মহিলা একই প্যারালিম্পিকে দুটি পদক জিততে পারেননি। টোকিওয় সর্বকনিষ্ঠ মহিলা ভারতীয় হিসেবে সোনা জেতার পর অবনীর আজকের ব্রোঞ্জ দেশকে এনে দিল দ্বাদশ পদক। ১৯৬৮ সাল থেকে ২০১৬ পর্যন্ত প্যারালিম্পিকে ভারত ১২টি পদক জিতেছিল। টোকিও প্যারালিম্পিকেই ভারতের সংখ্যা সেই সংখ্যা স্পর্শ করল অবনীর আরও এক ইতিহাস গড়ার সঙ্গে সঙ্গেই। অবনীর অদ্বিতীয়া হয়ে ওঠার পথ অবশ্য মোটেই মসৃণ ছিল না।

অদ্বিতীয়া অবনী

অবনী লেখরা ভারতকে এবারের প্যারালিম্পিকে প্রথম সোনাটি এনে দিয়েছিলেন ১০ মিটার এয়ার রাইফেল স্ট্যান্ডিং এসএইচ ওয়ান বিভাগে। এদিন তিনি নেমেছিলেন ৫০ মিটার রাইফেল থ্রি পজিশন এসএইচ ওয়ান বিভাগের ফাইনালে। তার আগে ৫১ ইনার ১০এস-সহ ১১৭৬ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে থেকে ফাইনালে ওঠার ছাড়পত্র আদায় করে নেন। তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ফাইনালে অবনীর স্কোর ছিল ৪৪৫.৯। এই পারফরম্যান্সের সুবাদেই তাঁর ব্রোঞ্জ পদক নিশ্চিত হয়। প্রথম ভারতীয় মহিলা হিসেবে একই প্যারালিম্পিকে জোড়া পদক জিতে মাত্র ১৯ বছরেই কিংবদন্তি হয়ে গেলেন অবনী। অবনীর আগে একজন ভারতীয়ই প্যারালিম্পিকে একাধিক পদক জিতেছিলেন। যোগীন্দর সিং সোধি ১৯৮৪ সালের প্যারালিম্পিকে শট পুটে রুপো এবং ডিসকাস ও জ্যাভলিনে ব্রোঞ্জ জিতেছিলেন। ৪৫৭.৯-এর গেমস রেকর্ড গড়ে অবনীর এই বিভাগে সোনা জেতেন চিনের প্রতিযোগী।

মনোবল অটুট দুর্ঘটনার পরেও

অবনীর জীবন বদলে দিয়েছিল ২০১২ সালের এক পথ দুর্ঘটনা। তখন অবনীর বয়স ১১। অবনীর পিতা প্রবীণ লেখরা ঢোলপুরের এডিএম পদে কর্মরত ছিলেন। এখন তিনি রাজস্থানের শ্রীগঙ্গানগর জেলার রেভিনিউ অ্যাপিলেট অথরিটির পদে রয়েছেন। ঢোলপুর থেকে জয়পুরের বাড়িতে ফেরার সময় দুর্ঘটনার কবলে পড়েছিল অবনীদের গাড়ি। সকলেরই কম-বেশি চোট লাগে। তবে স্পাইনাল কর্ডের চোট অবনীর কোমর থেকে নীচের অংশ অবধি অসাড় করে দেয়। দেহের নীচের অংশ প্যারালাইসড হয়ে যাওয়ায় কিংকর্তব্যবিমূঢ় হয়ে পড়েছিলেন অবনী। তবে মনের জোরকে সম্বল করে এখান থেকেই ঘুরে দাঁড়ান। ছোট থেকেই খুব বুদ্ধিমতী ও মেধাবী ছাত্রী অবনী। অভিনব বিন্দ্রার আত্মজীবনী তাঁকে খেলাধুলোর প্রতি আকৃষ্ট করে। ২০১২ সাল থেকে শুটিং অনুশীলনের পাশাপাশি তিরন্দাজিতেও হাত পাকাতে থাকেন। যদিও পরে বাবার পরামর্শে ২০১৫ সাল থেকে পাকাপাকিভাবে অবনী বেছে নেন শুটিংকেই। শুটিংয়ের পাশাপাশি গান শুনতে, মুভি ও টিভি দেখতে ভালোবাসেন অবনী। ভালোবাসেন রান্না করতে এবং অবশ্যই পরিবারের সঙ্গে সময় কাটাতে।

কঠোর অনুশীলনেই সাফল্য

জয়পুরের জগৎপুরা শুটিং রেঞ্চে দিনে সাত-আট ঘণ্টা করে অনুশীলন করতেন। অবনীর বাবা তখন থেকেই নিশ্চিত ছিলেন মেয়ে ঠিক একদিন পদক জিতবেন। অভিনব বিন্দ্রার আত্মজীবনী পড়ার পর থেকে তাঁকেই আইডল মেনে এগোতে থাকেন অবনী। রাজস্থান বিশ্ববিদ্যালয়ের আইনের ছাত্রী অবনী আন্তর্জাতিক আঙিনায় অংশ নেন ২০১৭ সালে। টোকিও প্যারালিম্পিকে তাঁর এই সাফল্যের পিছনে বড় অবদান রয়েছে ভারতীয় রাইফেল দলের জাতীয় হাই পারফরম্যান্স কোচ সুমা শিরুরের। সুমা ছাত্রীর সাফল্যে গর্বিত। প্যারা শুটিংয়ে আগের বিশ্বরেকর্ড ১১৭৫-কে ছাপিয়ে ১১৭৬ স্কোর করে দ্বিতীয় হয়ে অবনী যেভাবে এদিন ফাইনালে ওঠেন তাতে উচ্ছ্বসিত সুমা।

করোনা-বাধা কাটিয়ে কিংবদন্তি

করোনা পরিস্থিতি অবশ্য বাকি সকলের মতো অবনীকেও সমস্যায় ফেলেছিল টোকিও প্যারালিম্পিকের জন্য প্রস্তুত হতে। যেহেতু অবনীর কোমড় থেকে পা পর্যন্ত অসাড় তাই তাঁকে প্রতিদিনই ফিজিওথেরাপি করাতে হয়। পায়ের এক্সারসাইজ না হলে অনুশীলনেও সমস্যা হয়। এক মহিলা ফিজিও নিয়মিত অবনীর বাড়ি গিয়ে তাঁর এক্সারসাইজে সহায়তা করতেন। কিন্তু করোনা লকডাউনের সময় সেই ফিজিওর আসা বন্ধ হয়। সে সময় মেয়ের এই সমস্যা সমাধানে এগিয়ে আসেন তাঁর বাবা-মা। তাঁরাই ফিজিওর ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়ে অবনীকে টোকিওর জন্য প্রস্তুত হতে সহায়তা করেন। শুটিং রেঞ্জ বন্ধ ছিল। বাড়িতেই ড্রাই ফায়ারিং-সহ নানাভাবে শুটিং অনুশীলন চালিয়ে গিয়েছেন। সোনা জয়ের পর অবনী আপ্লুত হয়েছিলেন আইডল অভিনব বিন্দ্রার শুভেচ্ছা-বার্তা পেয়ে। মানসিক দৃঢ়তা, সাহস ও ফোকাস ঠিক রাখাকেই অবনীর সাফল্যের কারণ হিসেবে উল্লেখ করেছিলেন বিন্দ্রা। আজও তিনি অবনীকে অভিনন্দন জানিয়েছেন। অভিনব অলিম্পিকে প্রথম দেশকে সোনা এনে দিয়েছিলেন, অবনী প্যারালিম্পিকে। সকলের কাছে দৃষ্টান্ত হয়েছিলেন সেদিনই। আজ আরও একধাপ এগিয়ে গেলেন অবনী, প্যারালিম্পিকে জোড়া পদক জিতে। তাঁর এই সাফল্যকে বিশিষ্টজন থেকে আমজনতা সকলেই কুর্নিশ জানিয়েছেন।

English summary
Avani Lekhara Becomes First Indian Woman To Win 2 Medals In A Single Paralympic Games In Tokyo. The Jaipur-Based Shooter Who Sustained Spinal Cord Injuries In A Car Accident In 2012.
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X