গণনার ফল 
মধ্যপ্রদেশ - 230
PartyLW
CONG1150
BJP1051
IND40
OTH50
রাজস্থান - 199
PartyLW
CONG7822
BJP5914
IND93
OTH86
ছত্তিশগঢ় - 90
PartyLW
CONG5114
BJP143
BSP+71
OTH00
তেলেঙ্গানা - 119
PartyLW
TRS483
TDP, CONG+318
AIMIM07
OTH13
মিজোরম - 40
PartyLW
MNF026
IND08
CONG05
OTH01
  • search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

    ফল প্রকাশের শুরুতেই মুখ্যমন্ত্রী-বন্দনা! উঠছে নানা প্রশ্ন

    শুক্রবার সকাল দশটা। সল্টলেকের করুণাময়ীর উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদের অফিস। ২০১৮-র উচ্চমাধ্যমিকের ফল প্রকাশ অনুষ্ঠানে উপস্থিত পর্ষদ সভাপতি মহুয়া দাস। শুরুতেই লিখিত ভাষণ পড়তে শুরু করলেন তিনি। শুরু করলেন, মুখ্যমন্ত্রীর অনুপ্রেরণায়....

    ফল প্রকাশের শুরুতেই মুখ্যমন্ত্রীর বন্দনা! উঠছে নানা প্রশ্ন

    মুখ্যমন্ত্রীর এই বন্দনা নিয়েই প্রশ্ন উঠে শিক্ষা মহলে। অবশ্যই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর সব কাজে নজরদারি করেন। তবে তিনি তো শিক্ষামন্ত্রীও নন, কিংবা কোনও শিক্ষাবিদও নন। যদিও সমালোচকরা বলেন তিনি সবার ওপরে। হতে পারে তিনি কন্যাশ্রী চালু করেছেন। কন্যাশ্রী এই উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষায় কী ভাবে কতটা প্রভাব বিস্তার করেছে সেটা পৃথক প্রশ্ন। কিন্তু মুখ্যমন্ত্রীর অনুপ্রেরণায়....কথাটা ফলপ্রকাশ অনুষ্ঠানে বেসুরোই বেজেছে। শিক্ষাবিদদের অনেকেই বলছেন, যদি বলতেই হয়, তাহলে তো শেষের দিকেও বলা যেত। তবে শুরুতে কথাটা বলে হয়ত নিজের অবস্থানটাকে আরও বেশি পাকা করতেই চাইছেন। কটাক্ষ সমালোচকদের।

    আর যেখানে সময় মতো ফল প্রকাশের জন্য শিক্ষামন্ত্রীকে ধমক দিতে হয়, সেখানে এই ধরনের বন্দনা সত্যিই বেমানান বলে বলছেন অধিকাংশই।

    শিক্ষাবিদদের অনেকেই এবিষয়ে রাজনৈতিক আনুগত্যের কথা বলছেন। কিন্তু নিন্দুকদের কথা ধরে নিলে রাজনৈতিক আনুগত্য ছিল ৩৪ বছরের বাম শাসনেও। সেখানে পরীক্ষার ফল ঘোষণার সময় মুখ্যমন্ত্রী জ্যোতি বসু কিংবা বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের অনুপ্রেরণার কথা বলা হয়েছে, সেকথা স্মরণে আনতে পারছেন না অধিকাংশই।

    English summary
    West Bengal Higher Secondary Council head praises Chief Minister before Result out
    For Daily Alerts

    Oneindia - এর ব্রেকিং নিউজের জন্য
    সারাদিন ব্যাপী চটজলদি নিউজ আপডেট পান.

    Notification Settings X
    Time Settings
    Done
    Clear Notification X
    Do you want to clear all the notifications from your inbox?
    Settings X
    We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Oneindia sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Oneindia website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more