• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

বাংলায় বিজেপি-আরএসএসকে ডেকে এনেছেন মমতা, ব্রিগেড সভা থেকে বিমান-গর্জন

ব্রিগেডের মঞ্চ থেকে একযোগে বিজেপি ও তৃণমূলকে নিশানা করলেন বিমান বসু। রবিবাসরীয় ব্রিগেডে বিমান বসুর তোপ, বাংলায় আরএস,এসকে ডেকে এনেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ই। আরএসএস বা বিজেপিকে আটকাতে পারত একমাত্র বামপন্থীরাই। কিন্তু কমরেডদের বিরুদ্ধে একের পর এক মিথ্যা মামলায় ফাঁসানো হচ্ছে।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এমন কাজ করছেন, যাতে সহায়তা হচ্ছে বিজেপির। রাজ্যে আজ গণতন্ত্র বিপন্ন। গণতন্ত্র হরণ করে নিয়েছে রাজ্যের সরকার। তারা আরএসএসকে রাজ্যে ডেকে আনছে। বামেদের শাসনের অবসানের পর থেকেই রাজ্যে আরএসএসের শাখার বাড়বাড়ন্ত হয়েছে।

বাংলায় বিজেপি-আরএসএসকে ডেকে এনেছেন মমতা, ব্রিগেড সভা থেকে বিমান-গর্জন

একের পর এক আরএসএসের শাখা গজিয়ে উঠেছে। আর এর পিছনে রয়েছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মদত। তিনি কঠোর হলে কখনই রাজ্যে আরএসএসের বাড়বাড়ন্ত হতে পারত না। শুধু আরএসএসই নয়, রাজ্যে বিজেপির বাড়বাড়ন্তের জন্যও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ই দায়ী। বিজেপি আর তৃণমূল এক বৃন্তে দুটি ফুল।

[আরও পড়ুন: সন্তানের জন্মগ্রহণও তাঁর অনুপ্রেরণায়! মমতাকে কটাক্ষ ক্ষিতির]

বিমান বসু বলেন, এক দিন বিজেপির সঙ্গে ঘর করেছে তৃণমূল। আজও পরোক্ষভাবে বিজেপিকে মদত দিয়ে চলেছে। রাজ্যের সরকারের কাজকর্ম, শাসকদলের কাজকর্মেই উৎসাহিত হয়ে উঠছে বিজেপি। তৃণমূল চাইছে, রাজ্যে বামেদের নাম নিশান মুছে দিয়ে শুধু নিজেরা থাকতে আর বিজেপিকে রাখতে।

[আরও পড়ুন: ব্রিগেডে অসুস্থ বুদ্ধদেব! মঞ্চে নয়, মানুষের উন্মাদনা পরখ করলেন গাড়িতে বসেই]

এদিনের ব্রিগেডে স্পষ্ট করে দিল, রাজ্যে শাসকের এই অভিষন্ধি পূর্ণ হবে না। রাজ্য থেকে তৃণমূল সরকারকে হটাবে বামেরাই। আজ লালে লাল হয়ে গিয়েছে ব্রিগেডে। ব্রিগেডের এই জনতাই রাজ্য থেকে তৃণমূল আর কেন্দ্র থেকে বিজেপিকে হটিয়ে নতুন দেশ গড়বে। গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনবে।

English summary
Left Front chairman Biman Basu says Mamata Banerjee is responsible for RSS-BJP’s coming in Bengal. LF gives message to come back before Lok Sabha Election 2019,
For Daily Alerts
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X
We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Oneindia sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Oneindia website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more