পাক প্রতিরক্ষামন্ত্রীকে আইনি নোটিস পাঠাচ্ছে জঙ্গিনেতা হাফিজ সঈদ

  • Posted By:
Subscribe to Oneindia News
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS
For Daily Alerts

    পাকিস্তানের আশ্রয়তেই এতকাল ছিল জামাত উদ দাওয়া প্রধান তথা জঙ্গি নেতা হাফিজ সইদ। এবার সেই পাক আশ্রিত জঙ্গিই আস্ফালন দেখাতে শুরু করল পাকিস্তানের সরকারের বিরুদ্ধে। পাক প্রশাসন হাফিজ সঈদের বেশ কিছু সংগঠন নিষিদ্ধ করার পদক্ষেপ নিতেই, আইনি নোটিসের পথে হাঁটতে চলেছে হাফিজের সংগঠন জামাত উদ দাওয়া। তাদের দাবি আর্থিক নিষেধাজ্ঞা চাপিয়ে পাক প্রশাসন তাদের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করছে। এনিয়ে পাকিস্তানের প্রতিরক্ষামন্ত্রী খুররাম দস্তগিরের বিরুদ্ধে অভিযোগ হাফিজের।

    পাক প্রতিরক্ষামন্ত্রীকে আইনি নোটিস পাঠাচ্ছে জঙ্গিনেতা হাফিজ সঈদ

    জামাত উদ দাওয়ার পক্ষ থেকে মুখপাত্র খুররাম দস্তগির জানিয়েছেন, , পাকিস্তানের তরফে এখন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড চ্রাম্প ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ভাষা বলা হচ্ছে। যদিও এর আগে, পাকিস্তানের প্রতিরক্ষামন্ত্রী খুররাম দস্তগির জানিয়েছেন কোনও রকমের মার্কিন চাপে এসে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। দস্তগীর এও বলেন যে এই আর্থিক নিষেধাজ্ঞা এই জন্যই নেওয়া হল , যাতে কোনও জঙ্গি আর স্কুলে ঢুকে শিশুহত্যা না করতে পারে। এদিকে, পাক প্রতিরক্ষামন্ত্রীর এই বক্তব্যকে নিয়েও বেশ সরব হয়েছে জমাত উদ দাওয়া কর্তৃপক্ষ।

    বছরের শুরুতেই যেভাবে পাকিস্তানকে টুইট বার্তায় আক্রমণ করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প, তাতে রীতিমত স্পষ্ট হয়ে যায় যে ওয়াশিংটন কতটা ক্ষুব্ধ ইসলামাবাদের ওপর। পাকিস্তানকে আদৌ ২৫৫ বিলিয়ন ডলার অঙ্কের বার্ষিক অনুদান দেওয়া হবে কি না সন্দেহ তৈরি হয়েছে। সোমবার ইসলামাবাদকে তুলোধনা করে টুইট করেন ট্রাম্প। এরপর , থেকেই নড়েতড়ে বসে পাকিস্তান প্রশাসন। নিষেধাজ্ঞা জারি করা শুরু হয় বহু জেইউডি পরিচালিত প্রতিষ্ঠানের ওপর।

    English summary
    The JuD has said it will serve a legal notice to Pakistan's defence minister for "defaming" it, days after the government banned the Hafiz Saeed-led outfit from collecting donations following US President Donald Trump's outburst against Islamabad's sheltering of terrorists.

    Oneindia - এর ব্রেকিং নিউজের জন্য
    সারাদিন ব্যাপী চটজলদি নিউজ আপডেট পান.

    We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Oneindia sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Oneindia website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more