স্কুলের প্রিন্সিপ্যাল কেন পুড়িয়ে দিলেন শিশুদের হাত?

  • Posted By: BBC Bengali
Subscribe to Oneindia News
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS
For Daily Alerts

    ভারতের ঝাড়খন্ড রাজ্যে এক স্কুল প্রিন্সিপ্যাল জ্বলন্ত মোমবাতির ওপর শিশুদের হাত ধরে রাখতে বাধ্য করে তাদের হাত পুড়িয়ে দিয়েছেন। স্কুলে কিছু টাকা চুরি যাওয়ার পর কে টাকা চুরি করেছে তা নিয়ে ছাত্র-ছাত্রীদের জিজ্ঞাসাবাদ করছিলেন স্কুলের প্রিন্সিপ্যাল।

    যে স্কুলে এই ঘটনা, সেটি ঝাড়খন্ডের পশ্চিম সিংভুম জেলার চক্রধরপুরে।

    এ ঘটনার পর সেখানে অভিভাবকদের মধ্যে তীব্র ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছে।

    স্থানীয় প্রশাসন ঘটনাটি তদন্তে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে। স্কুল প্রিন্সিপ্যালের বিরুদ্ধে একটি মামলাও দায়ের করা হয়েছে।

    পুলিশ জানিয়েছে, স্কুলের প্রিন্সিপ্যাল ইতোমধ্যে ঘটনার দায় স্বীকার করেছেন।

    তদন্ত কমিটি ইতোমধ্যে রিপোর্ট জমা দিয়েছে
    RAVI PRAKASH/BBC
    তদন্ত কমিটি ইতোমধ্যে রিপোর্ট জমা দিয়েছে

    যা ঘটেছিল:

    বেরিটা মেমোরিয়াল স্কুল, যেখানে এই ঘটনা ঘটেছে, সেটি নির্মাণ করা হয়েছে একটি চার্চের সীমানার ভেতরেই।

    স্কুলের চতুর্থ শ্রেণীর এক ছাত্রের দুশো রুপি চুরি যাওয়ার পর সে এ নিয়ে প্রিন্সিপ্যালের কাছে অভিযোগ করে।

    আরও পড়ুন: একুশের বইমেলায় 'সেল্ফ সেন্সরশীপের' খড়গ

    বাংলাদেশি তকমা’র ভয়ে তটস্থ পশ্চিমবঙ্গের মুসলিমরা

    খাবার নিয়ে সাবধান হচ্ছেন বাংলাদেশের নারীরা

    এরপর প্রিন্সিপ্যাল ক্লাসের সব ছাত্রকে ডেকে জানতে চান, কে এই অর্থ চুরি করেছে। কিন্তু কেউই দোষ স্বীকার করেনি।

    রোশান এখন স্কুলে যেতে চাইছে না
    RAVI PRAKASH/BBC
    রোশান এখন স্কুলে যেতে চাইছে না

    এরপর স্কুল প্রিন্সিপ্যাল একে একে সব ছাত্রকে ডেকে জ্বলন্ত মোমবাতির উপর তার হাত ধরে রাখতে বলেন।

    স্কুল প্রিন্সিপ্যাল নাকি ছাত্রদের বলেছিলেন, যে টাকা চুরি করেছে, তার হাতই শুধু পুড়বে।বাকীদের কোন ক্ষতি হবে না।

    এরপর শিশুরা একে একে মোমবাতির ওপর তাদের হাত মেলে ধরতে থাকে। একজন শিশুর হাতে এতটাই মারাত্মকভাবে পুড়ে যায় যে তাকে হাসপাতালে নিয়ে যেতে হয়।

    রোশন নামের এই শিশুর মা শর্মিলা দেবি বলেছেন, তার ছেলের অবস্থা এখনো স্কুলে যাওয়ার মতো নয়। সে রীতিমত আতংকিত। সে কিছু খেতে পারছে না তার হাত দিয়ে, সে স্কুলে যেতে চাইছে না।

    জেলা প্রশাসক আরওয়া রাজকমল সিং
    RAVI PRAKASH/BBC
    জেলা প্রশাসক আরওয়া রাজকমল সিং

    শর্মিলা দেবি জানান, শুধু তার ছেলে নয়, আরও অনেক ছেলের হাত একইভাবে পুড়ে গেছে।

    ঘটনাটি নিয়ে পুরো এলাকায় তীব্র ক্ষোভ সৃষ্টি হয়েছে।

    স্থানীয় প্রশাসনের কর্মকর্তারা এসডিও প্রদীপ প্রসাদের নেতৃত্বে ঘটনাস্থলে গিয়ে সবার সঙ্গে কথা বলেছেন।

    এসডিও ইতোমধ্যে এ নিয়ে জেলা প্রশাসক আরওয়া রাজকমল সিং এর কাছে একটি রিপোর্টও জমা দিয়েছেন।

    তিনি বিবিসিকে জানিয়েছেন, স্কুল প্রিন্সিপ্যাল তদন্ত কমিটির সামনে এসে তার দোষ স্বীকার করেছেন।

    BBC
    English summary
    Why school principal given punishment to student

    Oneindia - এর ব্রেকিং নিউজের জন্য
    সারাদিন ব্যাপী চটজলদি নিউজ আপডেট পান.